Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, শনিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৮ , সময়- ১:৩৭ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
গাজীপুর সিটি : মেয়র প্রার্থীদের হলফনামায় নির্বাচনী হিসাব ও আয়-ব্যয় কার কত ?   সাকিব, মুস্তাফিজুরদের সঙ্গে বছরে ৫০ লাখের চুক্তি করল ক্রিকেট বোর্ড রোহিঙ্গা সংকটে বাংলাদেশের প্রতি কমনওয়েলথের সংহতি প্রকাশ রানী এলিজাবেথের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় পরিবহন খাতের বিশৃঙ্খলা : আমি মন্ত্রী, আমি কি দায় এড়াতে পারব ? শান্তিরক্ষা মিশনে আত্মোৎসর্গকারী ৫ বাংলাদেশিকে স্মরণ করলো জাতিসংঘ খুলনা-গাজীপুরে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে ১৪ দলের সমর্থন টাইম ম্যাগাজিনে বিশ্বের ১০০ প্রভাবশালীর তালিকায় শেখ হাসিনা খুলনায় ৮শ’ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎ কেন্দ্র হবে শেখ হাসিনা ও মোদি বৈঠক : দ্বিপক্ষীয় বিষয় নিয়ে আলোচনা

জেলহত্যা দিবসে রাষ্ট্রীয় ছুটি ঘোষণার আহ্বান : সোহেল তাজ


নিজস্ব প্রতিবেদক

আপডেট সময়: ৩ নভেম্বর ২০১৭ ২:০৬ পিএম:
জেলহত্যা দিবসে রাষ্ট্রীয় ছুটি ঘোষণার আহ্বান : সোহেল তাজ

ফেসবুক স্ট্যাটাস : পচাঁত্তরের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পর দ্বিতীয় কলঙ্কজনক অধ্যায় হলো ৩ নভেম্বর ‘জেলহত্যা দিবস।’ ইতিহাসের এ কলঙ্কজনক দিনে (৩ নভেম্বর, জেলহত্যা দিবস) রাষ্ট্রীয় ছুটি ঘোষণার আহ্বান জানিয়েছেন শহীদ সন্তান তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ।

শুক্রবার (৩ নভেম্বর) নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমেদের ছেলে ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন, ‘বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী জাতীয় চারনেতার সার্বিক অবদান- ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ছয় দফা, গণঅভ্যুথান, সত্তুরের নির্বাচন এবং মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাঙালি জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন স্বাধীনতা- আগামী প্রজন্মকে অনুপ্রেরণা যোগাবে নতুন প্রজন্ম যাতে জানতে পারে যে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু তার সঙ্গে রেখেছিলেন যোগ্য ব্যক্তিদের, যারা তাদের দক্ষতটা, যোগ্যতা আর দেশপ্রেম দিয়ে অর্জন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু এবং এ জাতির আস্থা তেসরা (৩) নভেম্বরকে রাষ্ট্রীয় ছুটির দিন ঘোষণা করে বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চারনেতা এবং এই দিনের তাৎপর্য নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরা উচিত।’

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পর ৩ নভেম্বর জেলের মধ্যে বন্দি অবস্থায় হত্যা হরা হয় জাতীয় এ চার নেতাকে। মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বীর সেনানী ও চার জাতীয় নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমদ, এ এইচ এম কামারুজ্জামান ও ক্যাপ্টেন মনসুর আলীকে এই দিনে (৩ নভেম্বর) ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের অভ্যন্তরে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top