Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, রবিবার, ২৭ মে ২০১৮ , সময়- ৭:৪৬ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
শনিবার অভিযানে ১১ জেলায় বন্দুকযুদ্ধে অন্তত ১১ জন নিহিত  বার কাউন্সিল নির্বাচন : আ.লীগ সমর্থকদের নিরঙ্কুশ বিজয়  চলতি বছরের হজ ফ্লাইট বৃহস্পতিবার থেকে শুরু ডেসটিনি ২০০০ লিমিটেড অবলুপ্তির বিষয়ে আদেশ সোমবার টেকনাফে যুবলীগের সাবেক সভাপতি একরাম কমিশনার ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলা ভাগ হলেও রবীন্দ্র-নজরুল অবিভক্ত : শেখ হাসিনা একান্ত বৈঠকে : তিস্তা নয়, মমতা উদ্যোগ বঙ্গবন্ধু'র নামে একটি মিউজিয়াম তৈরি ফাইনালে মুখোমুখি হবে হায়দরাবাদ ও চেন্নাই, আগামীকাল রোববার আগামী ৩ মাসের মধ্যে অনলাইন পত্রিকার রেজিষ্ট্রেশন : তথ্য প্রতিমন্ত্রী

বড়পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলায় আলতাফ হোসেনকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ


অনলাইন ডেস্ক

আপডেট সময়: ৬ ডিসেম্বর ২০১৭ ৩:১২ পিএম:
বড়পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলায়  আলতাফ হোসেনকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

বড় বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি দুর্নীতি মামলা বাতিল চেয়ে সাবেক মন্ত্রী ও বিএনপি নেতা আলতাফ হোসেন চৌধুরীর করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি চার সপ্তাহের মধ্যে তাঁকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে নির্দেশ দিয়ে ওই মামলায় তাঁর ক্ষেত্রে দেওয়া স্থগিতাদেশ তুলে নেওয়া হয়েছে।ছে।

আজ বুধবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ মামলা প্রশ্নে রুল খারিজ করে এ রায় দেন। এর ফলে বিচারিক আদালতে আলতাফ হোসেনের বিরুদ্ধে ওই মামলার কার্যক্রম চলতে আইনগত কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন দুদকের কৌঁসুলি খুরশিদ আলম খান। 

আদালতে আলতাফ হোসেনের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন এবং দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশিদ আলম খান।

রায়ের পর আইনজীবী খুরশিদ আলম খান বলেন, ‘মামলা বাতিলে রুল খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে চার সপ্তাহের মধ্যে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন। হাইকোর্টের এ রায়ের ফলে মামলা চলতেও আর বাধা নেই।’

একই মামলায় বৈধতার প্রশ্নে চলতি বছরের ২২ মে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আবেদন খারিজ করে দিয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বড়পুকুরিয়া কয়লাখনিতে উৎপাদন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ঠিকাদার নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে সেনা সমর্থিত সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং তাঁর মন্ত্রিসভার ১০ সদস্যসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলা দায়ের করা হয়।  

চীনা প্রতিষ্ঠান কনসোর্টিয়াম অব চায়না ন্যাশনাল মেশিনারিজ ইমপোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট করপোরেশনের (সিএমসি) সঙ্গে বড়পুকুরিয়া কয়লাখনির উৎপাদন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণ চুক্তি করার মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রের প্রায় ১৫৮ কোটি ৭১ লাখ টাকার ক্ষতির অভিযোগ আনা হয় এ মামলায়। ওই বছরের ৫ অক্টোবর ১৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করে দুদক।

বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলার বিচারিক কার্যক্রম ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯-এ চলছে।

খালেদা জিয়া, আলতাফ হোসেন চৌধুরী ছাড়াও ওই মামলায় আসামিরা হলেন, মতিউর রহমান নিজামী ও আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ (মৃত্যুদণ্ড কার্যকর), এম সাইফুর রহমান (মৃত), আবদুল মান্নান ভূঁইয়া (মৃত), ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, এম কে আনোয়ার (মৃত), এম শামসুল ইসলাম (মৃত), ব্যারিস্টার আমিনুল হক, এ কে এম মোশাররফ হোসেন, জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সচিব নজরুল ইসলাম, পেট্রোবাংলার সাবেক চেয়ারম্যান এস আর ওসমানী, সাবেক পরিচালক মঈনুল আহসান।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top