Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ , সময়- ১২:২১ পূর্বাহ্ন
Total Visitor:
শিরোনাম
আগামীকাল ফ্রান্সে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন হলো শেখ হাসিনা সফটওয়্যার পার্কের, কর্মসংস্থান ২০ হাজার তরুণের ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করতেই গুম খুনের পথ বেছে নিয়েছে সরকার রংপুর সিটি নির্বাচনে জয়ের অনেকটাই আশাবাদী আ.লীগ  ওআইসির সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্ক যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি যে কেউ জোট গঠন করতে পারে তবে এটিকে প্রতিপক্ষ হিসেবে দেখছি না :  এরশাদ মানুষের ওপর চেপে বসেছে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির বোঝা  লুটপাট, মানি লন্ডারিং, দুর্নীতি, ঘুষ, অত্যাচার, নির্যাতন ছিল বিএনপির কাজ : প্রধানমন্ত্রী ইবির 'সি' ও 'জি' ইউনিট নিয়ে পৃথক তদন্ত মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের সপ্তাহব্যাপী বিজয় উৎসবের অনুষ্ঠান শুরু

শ্রীমঙ্গলে চালু হচ্ছে দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র


নিজস্ব রিপোর্টার

আপডেট সময়: ৭ ডিসেম্বর ২০১৭ ১১:২৭ এএম:
শ্রীমঙ্গলে চালু হচ্ছে দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে চালু হতে যাচ্ছে দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র। শুক্রবার উদ্বোধন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ব্যবসায়ীরা বলছেন, নিলাম কেন্দ্রটি চালু হলে পরিবহন খরচ কমবে সময় বাঁচবে। কম দামে চা-পাতা পাবেন ভোক্তারা।

এরই মাধ্যমে পূরণ হতে চলছে বৃহত্তর সিলেটবাসীর দীর্ঘ ৭০ বছরের পুরনো আরেকটি প্রত্যাশার। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ওইদিন দুপুর আড়াইটায় প্রথমবারের মতো সিলেট বিভাগের শ্রীমঙ্গলে চা নিলাম কেন্দ্র (টি অকশন হাউজ) উদ্বোধন শেষে ব্যবসায়ী ও সুধী সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন। 

অকশন সেন্টার, ওয়্যার হাউজ, ব্রোকার হাউজসহ উদ্বোধনের সব ধরনের প্রস্তুতি ইতোমধ্যেই সম্পন্ন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। দেশের দ্বিতীয় এই চা নিলাম কেন্দ্রটি চালু হলে পানকারীরা পাবেন টাটকা ও গুণগতমানের সাশ্রয়ী মূল্যের চা। অন্যদিকে সিলেট বিভাগের চা উৎপাদনকারী চা বাগানগুলো আগে চট্টগ্রামে অকশনে পাঠাতে যে পরিমাণ পরিবহন খরচ হতো তা অনেকটা কমে গিয়ে আর্থিকভাবে তারা লাভবান হবেন। ফলে খুচরা বাজারে চায়ের মূল্যেও তার একটি ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।

দেশে চা উৎপাদনে সিলেট বিভাগের একক আধিপত্য থাকলেও দেশের একমাত্র চা নিলাম কেন্দ্রটি চট্টগ্রামে। তাই সিলেটের চা নিলামের জন্য নিতে হয় চট্টগ্রামে। এতে বেড়ে যায় চায়ের দাম। চায়ের মানও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ জন্য মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দ্বিতীয় নিলাম কেন্দ্র চালুর দাবি জানিয়ে আসছিলেন ব্যাসায়ীরা।

চট্টগ্রামে চা নিলামকেন্দ্রে চা পাঠাতে গিয়ে সিলেট বিভাগের চা বাগানগুলো এতদিন নানা ভোগান্তিতে ছিলেন। অনেক সময় নিলামে পাঠানো  চা রাস্তায় গায়েব হয়ে যেতো। আর পরিবহন খরচ তো আছেই। ট্রান্সপোর্টের কারণে সময়মতো অনেক বাগান অকশনে অংশগ্রহণ করতে পারতো না। তাছাড়া বর্ষার মওসুমে চট্টগ্রামে অকশনে চা পাঠানোর সময় চায়ে ময়েশ্চারযুক্ত হয়ে গুণগত মান কমে যেত। 

২০১২ সালের ২৯ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মৌলভীবাজার সফরের সময় শ্রীমঙ্গলে চা নিলাম কেন্দ্র স্থাপনের ঘোষণা দেন। প্রধানমন্ত্রীর এ ঘোষণা বাস্তবায়নেই অবশেষে চালু হতে যাচ্ছে দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র।

টি প্ল্যান্টার্স অ্যান্ড ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশনের আহ্বায়ক ড. একেএম আবদুল মোমেন বলেন, শ্রীমঙ্গলে দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র স্থাপন বৃহত্তর সিলেটবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর আরেকটি দীর্ঘদিনের প্রত্যাশিত যুগান্তকারী পদক্ষেপ। 

এর মধ্যে সিলেট বিভাগের চা শিল্প আরো একধাপ এগিয়ে যাবে। দেশের সুষম উন্নয়নের স্বার্থে শ্রীমঙ্গলে দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র স্থাপনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা বাস্তবায়িত হচ্ছে।  এ ব্যাপারে সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সাবেক সভাপতি সালাউদ্দিন আলী আহমদ জানান, ক্রেতারাও সুবিধা পাবেন। ‘সিলেটের উৎপাদিত চা চট্টগ্রামে নিলামে নিয়ে যেতে বাড়তি খরচ অনেক। শ্রীমঙ্গলে চা নিলাম কেন্দ্র হলে বিপুল টাকা সাশ্রয় হবে। চা নিলাম কেন্দ্র চালুর মধ্য দিয়ে সিলেটবাসীর দীর্ঘদিনের একটি দাবি পূরণ হবে।’ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. আবদুর রউফ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় শ্রীমঙ্গলে চা নিলাম কেন্দ্র স্থাপনের সব দাপ্তরিক কর্মকাণ্ড এরই মধ্যে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে সম্পন্ন করে রাখা হয়েছে। 

বাংলাদেশে চা বাগান গড়ে ওঠে ঔপনিবেশিক আমলে। প্রথম চা বাগান প্রতিষ্ঠিত হয় সিলেটের মালনীছড়ায়। দেশে উৎপাদিত মোট চায়ের প্রায় ৭০ ভাগ চা উৎপাদন হয় মৌলভীবাজারের বাগানগুলোতে।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top