Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ , সময়- ১:৩৯ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
ড. কামাল হোসেনের গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় মামলা সারা দেশে ব্যাপক শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় বিজয় দিবস উদযাপন বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টকে ভোট না দেয়ার আহ্বান খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে সংগ্রাম চলছে, চলবে : ফখরুল  ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভোটারদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী বিজয় দিবসে একাত্তরের বীর শহীদদের প্রতি প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা গণমানুষের শেখ মুজিব, ইতিহাসের মহানায়ক বিজয় দিবসের বীর শ্রেষ্ঠরা বীরত্বের এক অবিস্মরণীয় দিন, মহান বিজয় দিবস আজ নির্বাচনে নিরাপত্তার ছক চুড়ান্ত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী

শেখ হাসিনার অধীনে জাতীয় নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না


অনলাইন ডেস্ক

আপডেট সময়: ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭ ৪:১৬ পিএম:
শেখ হাসিনার অধীনে জাতীয় নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচন প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেছিলেন এটা নিয়ম রক্ষার নির্বাচন। তিনি তখন দেশবাসী এবং বিদেশি বন্ধু রষ্ট্রিগুলোকে সব দলের অংশগ্রহণে একটা সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে কথা রাখেননি শেখ হাসিনা। তিনি দেশের মানুষ এবং বিদেশি বন্ধুদের ধোকা দিয়েছেন, বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন।

শেখ হাসিনাকে স্বৈরাচারী উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, শেখ হাসিনার অধিনে কোন জাতীয় নির্বাচন হতে পারেনা, হতে দেওয়া হবেনা। আগামী জাতীয় নির্বাচন হতে হবে নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সহায়ক সরকারের অধিনে। সোজা আঙ্গুলে ঘি উঠবে না। এই দাবি আদায়ে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আগামী দিনের আন্দোলন সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান তিনি।

আজ বুধবার দুপুরে বরিশাল নগরীর সদর রোডের অশ্বিনী কুমার হলে মহানগর বিএনপি’র কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ড. খন্দকার মোশারফ।

মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও কেন্দ্রিয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম মহাসচিব সাবেক মেয়র অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ারের সভাপতিত্বে কর্মী সভায় খন্দকার মোশারফ আরো বলেন, শেখ হাসিনা একজন ক্ষমতালোভী। তার অধিনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হয়না। তাই জনগনের ভোটাধিকার পুনপ্রতিষ্ঠার জন্য সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে নির্বাচনকালীন সময়ের জন্য সেনা বাহিনীকে বিশেষ ক্ষমতা দিয়ে মাঠে নামাতে হবে। ২০১৪ এবং ২০১৮ সাল এক নয় বলেও হুশিয়ারী দেন তিনি।

কর্মীসভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপি’র বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট বিলকিস জাহান শিরিন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল হক নান্নু, সিটি মেয়র আহসান হাবিব কামাল, দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সভাপতি এবায়েদুল হক চাঁন, উত্তর জেলা বিএনপি’র সভাপতি সাবেক এমপি মেজবাউদ্দিন ফরহাদ, দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম শাহিন, মহানগর বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার জিয়া প্রমুখ। এছাড়া সিটি করপোরেশনের ১ নম্বর প্যানেল মেয়র হাজী কেএম শহীদুল্লাহ ও ৩ নম্বর প্যানেল মেয়র তাছলিমা কালাম পলিসহ নগরীর ৩০টি ওয়ার্ড বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

বিকেলে একই স্থানে দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র কর্মী সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ড. খন্দকার মোশারফ।

বৃহস্পতিবার একই হলে উত্তর জেলা বিএনপি’র কর্মী সভায়ও তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করবেন বলে দলীয় সূত্র জানিয়েছে।
 


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top