Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮ , সময়- ৯:১৬ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
ব্রান্ড ফাইন্যান্স : পাকিস্তানের চেয়ে ১২ ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশ ভবিষ্যৎ চাহিদা মেটাতে মানবসম্পদ, শিক্ষা এবং দক্ষতা উন্নয়নে বিনিয়োগ করতে হবে : রাষ্ট্রপতি  অনেক অসম্ভব কাজকে সম্ভব করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : র‌্যাবের মহাপরিচালক স্পিকারের সঙ্গে ইউএনডিপি’র প্রতিনিধিদলের সাক্ষাৎ ৩৫টি ড্রেজার সংগ্রহের জন্য ৪ হাজার ৪৮৯ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন হত্যার শিকার মানুষটির লাশ কোথায় ? সৌদি সরকারকে প্রশ্ন তুর্কি প্রেসিডেন্টের  জাতীয় নির্বাচনে যুদ্ধ অপরাধী সংগঠন জামাতে ইসলামী কি অংশ নিতে পারবে ?  স্বাধীনতার ৪৮ বছরেও মুক্তিযোদ্ধাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রস্তুত করা সম্ভব হয়নি  জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ, আগামীকাল  খাসোগি হত্যাকাণ্ড : চূড়ান্তভাবে ফেঁসে যাচ্ছেন সৌদি যুবরাজ ! 

ভাচুর্য়াল মুদ্রাকে নীতিমালায় আনার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের


অনলাইন ডেস্ক

আপডেট সময়: ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭ ৬:৩৪ পিএম:
ভাচুর্য়াল মুদ্রাকে নীতিমালায় আনার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের

ক্রিপ্টো কারেন্সি বা ভার্চুয়াল মুদ্রা এখন অনলাইন লেনদেনে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। কিন্তু কোন নিয়ন্ত্রণ না থাকায় এটি ব্যবহারে সতর্কতা জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে ভাচুর্য়াল মুদ্রা বন্ধ না করে নীতিমালার মধ্যে আনার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

বিটকয়েন, লেনদেনের সাংকেতিক মুদ্রা। ২০০৮ চালু হওয়া এই কয়েন মাইনার নামে সার্ভারে সুরক্ষিত থাকে। একাধিক কম্পিউটার বা ফোনের মাধ্যমে লেনদেন হলে মূল সার্ভার হালনাগাদ করে ব্যবহারকারীর লেজার।

বিটকয়েন, ইথেরিয়াম, রিপ্পেল ও লিটকয়েনসহ বিশ্বে প্রায় আটশ ভার্চুয়াল মুদ্রা রয়েছে। বাংলাদেশেও স্বপ্ল পরিসরে ব্যবহার হচ্ছে এসব মুদ্রা।

প্রায় এগারো লাখ টাকা দামের বিটকয়েন সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। এই কয়েনের দাম দ্রুত ওঠানামা করায় লেনদেন ও প্রচারণায় সতর্ক থাকার পরামর্শ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের।

অনেক দেশ ডিজিটাল মুদ্রার নীতিমালা তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে। এদেশেও তাই করা উচিত বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ এ কে এম নজরুল হায়দার জানান,অ্যামাজন, ই-বে, মাইক্রোসফট থেকে কেনাকাটা করা যায় বিটকয়েনে। অন্যান্য মুদ্রা ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করে সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংক। কিন্তু ভার্চুয়াল মুদ্রার কোনো নিয়ন্ত্রণ সংস্থা নেই। সারা বিশ্বে প্রায় ৬০ লাখ ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের বিটকয়েন ওয়ালেট রয়েছে।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top