Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮ , সময়- ৯:১৬ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
ব্রান্ড ফাইন্যান্স : পাকিস্তানের চেয়ে ১২ ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশ ভবিষ্যৎ চাহিদা মেটাতে মানবসম্পদ, শিক্ষা এবং দক্ষতা উন্নয়নে বিনিয়োগ করতে হবে : রাষ্ট্রপতি  অনেক অসম্ভব কাজকে সম্ভব করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : র‌্যাবের মহাপরিচালক স্পিকারের সঙ্গে ইউএনডিপি’র প্রতিনিধিদলের সাক্ষাৎ ৩৫টি ড্রেজার সংগ্রহের জন্য ৪ হাজার ৪৮৯ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন হত্যার শিকার মানুষটির লাশ কোথায় ? সৌদি সরকারকে প্রশ্ন তুর্কি প্রেসিডেন্টের  জাতীয় নির্বাচনে যুদ্ধ অপরাধী সংগঠন জামাতে ইসলামী কি অংশ নিতে পারবে ?  স্বাধীনতার ৪৮ বছরেও মুক্তিযোদ্ধাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রস্তুত করা সম্ভব হয়নি  জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ, আগামীকাল  খাসোগি হত্যাকাণ্ড : চূড়ান্তভাবে ফেঁসে যাচ্ছেন সৌদি যুবরাজ ! 

সবজির বাজারে ফিরে এসেছে স্বস্তি


অনলাইন ডেস্ক

আপডেট সময়: ২ জানুয়ারী ২০১৮ ২:৪৪ এএম:
সবজির বাজারে ফিরে এসেছে স্বস্তি

রাজধানীর বাজারগুলোতে নতুন পেঁয়াজের সরবরাহ বাড়ায় দেশি ও আমদানি করা উভয় ধরনের পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমেছে। তবে এখনও বাজারভেদে ৭০ থেকে ৭৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। এমনকি অধিকাংশ বাজারে দেশি পুরাতন পেঁয়াজ পাওয়া যাচ্ছে না। তবে সবজির বাজারে ফিরে এসেছে স্বস্তি।

২৯ ডিসেম্বর রাজধানীর কারওয়ান বাজার, শান্তিনগর, রামপুরা, মালিবাগ হাজীপাড়া এবং খিলগাঁও অঞ্চলের বিভিন্ন বাজার ঘুরে এবং ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, নভেম্বর মাসের শেষে হঠাৎই পেঁয়াজের দাম বাড়তে থাকে। দাম বেড়ে দেশি পেঁয়াজের কেজি ১৫০ টাকা পর্যন্ত পৌঁছে যায়। আর আমদানি করা পেঁয়াজের দাম দাঁড়ায় প্রায় ১০০ টাকায়।

পেঁয়াজের এমন আকাশচুম্বি দামের কারণে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই অনেক বাজারেই দেশি পেঁয়াজের সংকট দেখা দেয়। সেই অবস্থা এখনও বিদ্যমান। অধিকাংশ ছোট ছোট বাজারগুলোতে পুরাতন দেশি পেঁয়াজ পাওয়া যাচ্ছে না। তবে বাজারে নতুন পেঁয়াজের সরবরাহ বাড়ায় সব ধরনের পেঁয়াজের দাম কিছুটা নিম্নমুখী।

রাজধানীর বাজারগুলোতে প্রতিকেজি নতুন দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৭৫ টাকায়, যা চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে ছিল ৯০ থেকে ১০০ টাকা কেজি। আর আমদানি করা পেঁয়াজের দাম ৯০ টাকা থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ৬০ থেকে ৬৫ টাকায়। দেশি পুরাতন পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমে বিক্রি হচ্ছে ১১০ থেকে ১২০ টাকায়।

পেঁয়াজের দাম কমার বিষয়ে হাজীপাড়া বৌ-বাজারের ব্যবসায়ী মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, বাজারে নতুন পেঁয়াজের সরবরাহ পর্যাপ্ত পরিমাণে বেড়েছে। যে কারণে সব ধরনের পেঁয়াজের দাম কমেছে। ৯০ টাকার আমদান করা পেঁয়াজ এখন বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়। আর নতুন পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা কেজি দরে। তবে দেশি পুরাতন পেঁয়াজের দাম এখনও বেশি। তাই আমরা এক মাস ধরে দেশি পুরাতন পেঁয়াজ বিক্রি করছি না।

এদিকে পেঁয়াজের ঝাঁজ কমার পাশাপাশি সবজির দামে নেমেও এসছে স্বস্তি। প্রায় এক মাস ধরে সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে রয়েছে অধিকাংশ সবজি দাম। বেশির ভাগ সবজিই এখন ২০ থেকে ৩০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে। পেঁয়াজ, সবজির পাশাপাশি কমেছে কাঁচা মরিচের দামও। প্রতিকেজি কাঁচা মরিচের দাম কমে দাঁড়িয়েছে ৭০ থেকে ৮০ টাকায়। যা ডিসেম্বর মাসের শুরুতে ছিল ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা।

বেশ কিছুদিন ধরে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া পাকা টমেটোর দাম কমে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা নেমে এসেছে। তবে বাজারে আসা নতুন পাকা টমেটোর দাম এখনও বাড়তি। প্রতিকেজি নতুন পাকা টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৯০ টাকায়।

২০ থেকে ৩০ টাকা কেজিতে পাওয়া যাচ্ছে- শালগম, মুলা, পেঁয়াজের কালি, পেঁপে, বেগুন। প্রতিকেজি শালগম বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকা। মুলা বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকা কেজি। তবে সপ্তাহের ব্যবধানে মুলার দাম কিছুটা বেড়েছে। আগের সপ্তাহে প্রতিকিজে মুলার দাম ছিল ১০ থেকে ১৫ টাকা।

বাজারে নতুন আসা পেঁয়াজের কালি বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকা কেজি দরে। আগের সপ্তাহে এ সবজিটির দাম ছিল ৩০ থেকে ৩৫ টাকা কেজি। এছাড়া কাঁচা পেঁপের দাম আগের মতোই ২০ থেকে ২৫ টাকায় রয়েছে। বেগুনও আগের ৩০ থেকে ৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

তবে ২০ টাকা কেজিতে নেমে আসা শিমের দাম কিছুটা বেড়েছে। প্রতিকেজি শিম বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৩৫ টাকায়। আর বিচিসহ মিশ বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকায়। লাউ এর দাম আগের মতোই রয়েছে, ৩০ থেকে ৫০ টাকা।

দাম অপরিবর্তীত রয়েছে ফুলকপি ও বাঁধাকপির। প্রতিপিচ ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকায়। একই দামে পাওয়া যাচ্ছে বাঁধাকপি। নতুন আলুর দাম কমে হয়েছে ২০ টাকা। আর পুরাতন আলু বিক্রি হচ্ছে ১০ থেকে ১২ টাকা কেজি দরে।

শান্তিনগর কাঁচাবাজারের ব্যবসায়ী মো. আজগর আলী বলেন, সব ধরনের সবজির দামই এখন কম। শীতের সবজির সরবরাহ বাড়ার কারণে দাম কমেছে। ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, শালগম বেশ আগেই বাজারে এসেছে। এখন নতুন পাকা টমেটো বাজরে আসতে শুরু করেছে। ফলে মজুদ করা পাকা টমেটোর দাম কমে চার ভাগের এক ভাগে চলে এসেছে। নতুন পাকা টমেটোর দাম বাড়তি থাকলেও খুব শিগগির এর দাম কমে যাবে।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top