Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, শনিবার, ২৬ মে ২০১৮ , সময়- ৪:১২ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
মুক্তিযুদ্ধে ভারতবাসীর সহযোগির কথা স্মরণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশজুড়ে গ্রেফতার বাণিজ্যের পাশাপাশি হত্যা-বাণিজ্য চলছে : রিজভী এই সম্মানসূচক ডিগ্রি বাংলাদেশের জনগণের প্রতি উৎসর্গ করছি : প্রধানমন্ত্রী আ'লীগের টার্গেট চার সিটিতে নৌকার বিজয়  ডি.লিট উপাধিতে ভূষিত শেখ হাসিনা ইসলাম ধর্ম প্রচারে ও প্রসারে শেখ হাসিনার ভূমিকা  সুনামগঞ্জে এ বছরসহ চার বছরে বজ্রপাতে নিহত হয়েছেন ৯০ জন ফুটবলের চীনে জন্ম, ইংল্যান্ড বড় করেছে আর ব্রাজিল দিয়েছে পরিপূর্ণতা কক্সবাজারের তালিকাভুক্ত ইয়াবা গডফাদারা সবাই প্রভাবশালী, নামের তালিকা মাদকবিরোধী অভিযানে ফের ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১০

তারেক রহমান ফোনেই জানলেন মায়ের জেল সংবাদ | প্রজন্মকণ্ঠ 


ডেস্ক রিপোর্ট

আপডেট সময়: ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ৯:১৩ পিএম:
তারেক রহমান ফোনেই জানলেন মায়ের জেল সংবাদ | প্রজন্মকণ্ঠ 

প্রজন্মকণ্ঠ বিশেষ প্রতিবেদন : ঘন ঘন চোখ চলে যাচ্ছিল ব্রেকিং নিউজের দিকে৷ অস্থির হয়ে উঠছিলেন৷ বুঝতেই পারছিলেন দুঃসংবাদ আসছে৷ আশঙ্কা সত্যি হল৷ রাতভর নিদ্রাহীন খালেদা পুত্র তারেক রহমান লন্ডনেই জানলেন মায়ের জেল যাত্রার সংবাদ৷ এদিকে ফেসবুকে প্রতিক্রিয়া তারেক রহমান লিখেছেন ‘আমি তোমায় অনেক ভালবাসি মা’

চাঞ্চল্যকর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হল খালেদা জিয়ার৷ সেই খবরটি পেয়েই রীতিমতো উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন তারেক রহমান৷ একই মামলায় আদালত তারেক রহমান সহ শীর্ষ বিএনপি নেতৃত্বকে ১০ বছরের কারাদণ্ডের সাজা শুনিয়েছে আদালত৷ তবে মামলায় খালেদা জিয়াই ছিলেন প্রধান আসামী৷

জিয়াউর রহমানের স্ত্রী খালেদা জিয়া৷ তিনি নিজেও বাংলাদেশের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী ছিলেন৷ জিয়া দম্পতির একপুত্র আগেই মারা গিয়েছেন৷ তাঁর নাম আরাফত রহমান কোকো৷ অন্যপুত্র তারেক রহমান লন্ডন থেকেই বিএনপি দলের হয়ে কার্যভার সামাল দেন৷

জেলে যাওয়ার আগে বিএনপি জাতীয় কার্য নির্বাহী বৈঠকে ছেলের হাতেই দলের ভার অর্পণ করেছিলেন খালেদা জিয়া৷ তখন লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সেই বৈঠকে যোগ দেন তারেক রহামন৷

সূত্রের খবর, ব্রিটেনে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশিদের যাঁরা বিএনপি সমর্থক তাঁরা ইতিমধ্যেই তারেক রহমানকে সমবেদনা জানিয়েছেন৷ ক্ষোভ ছড়িয়েছে সেখানেও৷ অভিযোগ, আসন্ন জাতীয় নির্বাচন থেকে খালেদা জিয়ার মতো শক্তিশালী বিরোধী নেতৃত্বকে দূরে রাখতেই ক্ষমতাসীন আওয়ামি লিগ নোংরা রাজনীতি করেছে৷ যদিও বাংলাদেশ সরকারের দাবি, আইন মোতাবেক কাজ হয়েছে৷

টানা ৩৬ বছরের রাজনৈতিক জীবনে খালেদা জিয়া এর আগে একবার কারাগারে যান। ২০০৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তখন তাকে জাতীয় সংসদ ভবন এলাকায় স্পিকারের বাসভবনকে সাবজেল ঘোষণা দিয়ে সেখানে রাখা হয়েছিল। ২০০৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর উচ্চ আদালতের এক আদেশে খালেদা জিয়া মুক্তি পান। দ্বিতীয় দফায় বৃহস্পতিবার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় পাঁচ বছরের সাজা হওয়ার পর তাকে রাজধানীর নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে৷


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top