Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮ , সময়- ৪:০৪ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
অটলবিহারী বাজপেয়ীর অবস্থা সঙ্কটজনক আলোর গতিতে বাংলার আকাশ ছাড়িয়ে বহির্বিশ্বে বঙ্গবন্ধুর নাম গভীর শোক আর শ্রদ্ধায় জাতি স্মরণ করলো বঙ্গবন্ধুকে বাংলাদেশ সরকার গণগ্রেপ্তার চালাচ্ছে - এইচআরডব্লিউ : বিশ্লেষক প্রতিক্রিয়া বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িত ছিল দেশি-বিদেশি আন্তর্জাতিক চক্র : সেলিম জাতীয় নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র চলছে : কামরুল নির্বাচনে বিশ্বাস করি, ভোটের লড়াই করে ক্ষমতায় যেতে চাই : মোহাম্মদ নাসিম কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনায় ৪৮ জন নিহত এখন পর্যন্ত ৪০ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু  বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম সারওয়ারকে শেষ বিদায় জানালেন বানারীপাড়াবাসী

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে ১৬৫০ কর্মকর্তা নিয়োগ


ডেস্ক রিপোর্ট

আপডেট সময়: ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ২:৩৩ পিএম:
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে ১৬৫০ কর্মকর্তা নিয়োগ

উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা পদে ১ হাজার ৬৫০ জন লোক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট ও বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি থেকে এ নিয়োগের বিষয়টি জানা গেছে। ইতিমধ্যে অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। চলবে ২৮ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

যেসব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না: জেলার কোটায় প্রাপ্যতা না থাকায় শেরপুর, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, খুলনা, বাগেরহাট, বরিশাল, ঝালকাঠি, ভোলা, পটুয়াখালী, বরগুনা ও রাজবাড়ী জেলার প্রার্থীরা এ পদে আবেদন করতে পারবেন না। তবে উল্লেখিত জেলাসহ সব জেলার এতিমখানা নিবাসী ও শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন (রাঙামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা ব্যতীত)।

আবেদনের যোগ্যতা: এ পদে যাঁরা কোনো স্বীকৃত ইনস্টিটিউট থেকে কৃষিবিজ্ঞানে ৪ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা উত্তীর্ণ হয়েছেন, সেসব প্রার্থী আবেদন করতে পারবেন। সাধারণ প্রার্থীদের বয়স ২৫ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। আর মুক্তিযোদ্ধাদের পুত্র-কন্যা এবং শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের জন্য বয়স ১৮ থেকে ৩২ বছর থাকতে হবে। প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।

যেভাবে আবেদন করবেন: বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, আগ্রহী প্রার্থীদের টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের ওয়েবসাইট 

http://daesaao.teletalk.com.bd অথবা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট www.dae.gov.bd এর মাধ্যমে নির্ধারিত আবেদনপত্র পূরণ করে অনলাইন রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম এবং ফি জমাদান সম্পন্ন করতে হবে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট (www.dae.gov.bd) থেকে অনলাইন আবেদনপত্র পূরণের বিষয়ে বিস্তারিত নির্দেশনা পাওয়া যাবে। এ ছাড়া নির্ভুলভাবে আবেদন করার ক্ষেত্রে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আইসিটি ব্যবস্থাপনা অনুশাখা এবং জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের দপ্তর থেকে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি ও সহযোগিতা পাওয়া যাবে।

নির্বাচন পদ্ধতি: কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক (পার্সোনেল) ও সদস্যসচিব বিভাগীয় বাছাই কমিটি মো. মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, ‘প্রার্থীদের আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই করে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগ করা হবে। লিখিত পরীক্ষা হবে ৭০ নম্বরের। আর মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে ৩০ নম্বরের। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হলে প্রার্থীকে অবশ্যই ৩৫ নম্বর পেতে হবে।’ লিখিত পরীক্ষার তারিখ ও স্থান অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট অথবা প্রার্থীর মোবাইল নম্বরে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান মোয়াজ্জেম হোসেন।

কাজের ধরন: রংপুর সদর উপজেলার খলেয়া ইউনিয়নের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা শাহ্‌নূর আলম বলেন, ‘একটি ইউনিয়নে তিনটি ব্লক তদারকির জন্য একজন করে উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা দায়িত্বে নিয়োজিত থাকেন। আমাদের মূলত কৃষকদের নিয়েই কাজ করতে হয়। উদ্ভাবিত সব কৃষি প্রযুক্তি কৃষকদের মাঝে সরবরাহ করা এবং মাঠপর্যায়ের সব সমস্যা সমাধানের জন্য আমরা কাজ করি।’ তিনি আরও বলেন, ভালো ফসল উৎপাদনে কৃষকদের বিভিন্ন ধরনের তথ্য ও কারিগরি সহায়তা দিয়ে নানাভাবে সহযোগিতা করাও তাঁদের কাজ। প্রয়োজনে কৃষকদের ফসল উৎপাদনে কোনো ধরনের সমস্যা সমাধানে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার মাধ্যমেও বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে কৃষকদের সহযোগিতা করে থাকেন এসব কর্মকর্তা।

পরীক্ষা প্রস্তুতি: ২০১৫ সালে উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা পদে নিয়োগ পান আসমা আক্তার। তিনি বর্তমানে টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার লাউহাটি ইউনিয়নে দায়িত্ব পালন করছেন। লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতি সম্পর্কে তিনি বলেন, লিখিত পরীক্ষায় বেশি প্রশ্ন পাওয়া যাবে কৃষিসম্পর্কিত বিষয়ের ওপর। তাই কৃষি বিষয়ে ভালো করতে হলে প্রার্থীকে কৃষি ডিপ্লোমার ওপর বইগুলো ভালো করে পড়তে হবে। এ ছাড়া বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞানের বিষয় থেকেও প্রশ্ন থাকবে। তাই এসব বিষয়ে ভালো করতে হলে নবম-দশম শ্রেণির পাঠ্যবইগুলো পড়তে হবে। সাধারণ জ্ঞানের জন্য নিয়মিত পত্রিকা পড়া, বাংলাদেশের ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধ, জলবায়ু, সংস্কৃতি, খেলাধুলা, বিভিন্ন জেলার আয়তন, অর্থনীতি ইত্যাদি সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে। বিভিন্ন দেশের মুদ্রা, দিবস, পুরস্কার ও সম্মাননা, সাম্প্রতিক ঘটনা জানা থাকলে প্রশ্ন পাওয়া যেতে পারে। এ ছাড়া বিগত বছরের এই পদের নিয়োগ পরীক্ষাগুলোর প্রশ্নপত্র দেখলেও ধারণা পাওয়া যাবে জানান আসমা আক্তার।

বেতন ও পদোন্নতি: চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত একজন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা ১২ হাজার ৫০০ টাকা স্কেলে বেতন পাবেন। এ ছাড়া চাকরি স্থায়ী হওয়ার পর আরও অন্যান্য সুবিধা যেমন ভ্রমণ ভাতা, প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ ইত্যাদি সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে। অন্যান্য চাকরির মতো এ পদেও পদোন্নতির সুযোগ আছে। এ পদ থেকে জ্যেষ্ঠতা, যোগ্যতা ও বিভিন্ন পরীক্ষার মাধ্যমে পদোন্নতি পেয়ে সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার ও উপজেলা কৃষি অফিসার হওয়ার সুযোগ পাওয়া যাবে বলে জানান মোয়াজ্জেম হোসেন।

 


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top