Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯ , সময়- ৪:৩৩ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
দ্বিতীয় স্যাটেলাইট ও দ্বিতীয় যমুনা সেতুর পরিকল্পনা করছি ৩৭ এজেন্সিকে শাস্তি, মামলার নির্দেশ আইসিসি নতুন সিইও হিসেবে নির্বাচিত মানু সোহনি সরকারের সঙ্গে অব্যাহতভাবে কাজ করবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচনে যাবে না বিএনপি ব্লগার হত্যার তদন্তে অগ্রগতি নেই অনিবার্য কারণবশত ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন স্থগিত ‘বিজয় উৎসব’ উপলক্ষে ডিএমপি’র ট্রাফিক নির্দেশনা বর্তমানে দেশে পর্যাপ্ত খাদ্য মজুদ রয়েছে : খাদ্যমন্ত্রী হঠাৎ করেই আলোচনায় চিত্রনায়িকা মৌসুমী

খালেদা জিয়া কারাবন্দী, গ্রেপ্তার আতঙ্কে তারেক : নেতৃত্ব শূন্যর আতঙ্কে বিএনপি । প্রজন্মকণ্ঠ   


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ৫:৫৮ পিএম:
খালেদা জিয়া কারাবন্দী, গ্রেপ্তার আতঙ্কে তারেক : নেতৃত্ব শূন্যর আতঙ্কে বিএনপি । প্রজন্মকণ্ঠ   

বিশেষ প্রতিবেদন : লন্ডনে বাংলাদেশ হাই কমিশনে হামলায় মদতের অভিযোগে গ্রেফতার হতে পারেন খালেদার ছেলে তারেক রহমান। বৃহস্পতিবার জেলে যাওয়ার আগে তাঁকে বিএনপি-র অস্থায়ী চেয়ারম্যান মনোনীত করে গিয়েছেন খালেদা জিয়া। বিএনপি নেত্রী জেলে যাওয়ার পরে অস্থায়ী চেয়ারম্যান হিসেবে প্রথম বিবৃতিটিও দিয়েছেন ইতিমধ্যেই অর্থ পাচারের অন্য একটি মামলায় ৭ বছরের কারাদণ্ড পাওয়া তারেক রহমান।

কুয়েত থেকে এসেছিল ২ কোটি ১০ লক্ষ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা৷ সেই টাকার নয় ছয় করা হয়৷ তদন্তে নামে বাংলাদেশ দুর্নীতি দমন কমিশন(দুদক)৷ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ৫ বছর ও দলটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ অপর পাঁচ আসামির ১০ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।
  
খালেদা জিয়ার রায়ের বিরুদ্ধে বুধবার এক দল বিক্ষোভকারী লন্ডনে বাংলাদেশ হাই কমিশনে স্মারকলিপি জমা দিতে গিয়ে হামলা চালান। কিছু আসবাবপত্র ভাঙার পাশাপাশি শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি দেওয়াল থেকে নামিয়ে মাটিতে ফেলে মাড়ায় বিক্ষোভকারীরা।শেখ মুজিবুরের  ছবিতে জুতো মারা হয়। দীর্ঘক্ষণ এই অরাজকতা চলার পরে পুলিশ এসে বিক্ষোভ ভেঙে দেয়। 

বিএনপি-র এক নেতা নাসির আহমেদ শাহিনকে গ্রেফতার করে স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড। তিনিই পুলিশকে জানান, তারেকের নির্দেশেই তাঁরা বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। ঘটনার পরে বাংলাদেশ হাই কমিশন তারেক রহমানকে প্রধান আসামি করে ৫০ জনের বিরুদ্ধে লন্ডন পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করে। বাংলাদেশের কূটনৈতিক সূত্রের দাবি, বিদেশি দূতাবাসে হামলার বিষয়টি বাড়তি গুরুত্ব দিয়ে দেখছে পুলিশ। প্রধান আসামিকে গ্রেফতারের কথা পুলিশ বিবেচনা করছে।

বিএনপি সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার আদালতে যাওয়ার আগেও খালেদা প্রায় ৪৫ মিনিট কথা বলেন তারেকের সঙ্গে। দল চালানোর বিষয়ে ছেলেকে পরামর্শ দিয়ে যান প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী। আবেগাপ্লুত কণ্ঠে বলেন, দলকে ঐক্যবদ্ধ করে আগলে রেখো। বিক্ষোভ আন্দোলন থেকে যাতে অশান্তি না-ছড়ায়, সে বিষয়ে সতর্ক করে দিয়ে যান অস্থায়ী চেয়ারম্যানকে। পূত্রবধু জেবায়দা ও ছোট্ট নাতনি জাইমার সঙ্গেও কথা বলেন খালেদা। 

বিএনপি প্রধানের অনুপস্থিতিতে দলে ফাটল ধরার শঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না দলের নীতিনির্ধারকরা। ২০১৬ সালের ১৯ মার্চ সংশোধিত গঠনতন্ত্র অনুযায়ী চেয়ারপারসনের সাময়িক অনুপস্থিতিতে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যানই ‘ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। দলের নেতৃত্বের প্রশ্নে বিএনপি নেতা-কর্মীরা গঠনতন্ত্রের ৭ ধারার (গ) (২) উপধারা সামনে আনেন। সেখানে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যানের কর্তব্য, ক্ষমতা ও দায়িত্ব প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, চেয়ারম্যানের সাময়িক অনুপস্থিতিতে তিনিই (সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান) ‘ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান’ হিসেবে চেয়ারম্যানের সমুদয় দায়িত্ব পালন করবেন। তবে দীর্ঘদিন ধরে লন্ডনে অবস্থান করছেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। সেখান থেকে তার দল পরিচালনা করা কঠিন হয়ে পড়বে বলে মনে করেন বিএনপির নেতা-কর্মীরা।

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া, তার দুই ছেলে তারেক রহমান ও আরাফাত রহমান কোকো এবং তারেক রহমানের স্ত্রী জোবায়েদা রহমানের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন আদালতে বর্তমানে মোট ২৭টি মামলা রয়েছে। এসব মামলার মধ্যে দু`টিতে খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার দুই ছেলেকে এবং একটিতে তারেক ও কোকোকে আলাদা আলাদাভাবে আসামি করা হয়েছে।

কোনো রাজনৈতিক পরিবারের বিরুদ্ধে এই পরিমাণ মামলা থাকাটা পৃথিবীর ইতিহাসেই বিরল। এসকল মামলার অন্যতম আসামী তারেক রহমান অসুস্থতাজনিত কারণ দেখিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে লন্ডনে থাকায় তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলাগুলো অমিমাংসিত আছে। এসবের কয়েকটিতে তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।

সামনের নির্বাচনকে সামনে রেখে দীর্ঘদিন ধরে চলমান এসব মামলার কথা আবার উঠে আসছে। অমিমাংসিত এসব মামলা চলাকালীন সময়ে আসামীগণ আদৌ নির্বাচনে অংশগ্রহণের যোগ্যতা রাখেন কিনা এমন প্রশ্নের উদ্রেক হয়েছে নেতাকর্মীদের মধ্যে।  

 


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top