Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮ , সময়- ৮:৫৩ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
মুসল্লিরা জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া অন্য কিছু নিতে পারবেন না : ডিএমপি কমিশনার দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী রাজধানীতে বিভিন্ন মসজিদ ও ঈদগাহে জামাতের সময়সূচী  ব্রাজিলের সাপোর্টার প্রধানমন্ত্রী, একই দলের সমর্থক জয় মুসলিম উম্মাহর ঐক্যে ফাটল সৃষ্টি করতেই ইসরাইলের সৃষ্টি নূর চৌধুরী'কে দেশে ফেরাতে কানাডার আদালতে মামলা করেছে সরকার নির্বাচনী কৌশলগত কারনেই জামায়াতের সঙ্গ ছাড়ছে বিএনপি বিশ্বকাপ উদ্বোধনী ম্যাচে ৫-০ ব্যবধানে জয় পেল স্বাগতিক রাশিয়া বাগেরহাট ৩ আসনের উপ-নির্বাচনে নির্বাচিত এমপি'র শপথগ্রহণ ঘরমুখো মানুষ, চরম দুর্ভোগের মুখে পড়েছেন ট্রেনের যাত্রীরা

প্রশ্নফাঁস : শিক্ষকসহ ৫ জন রিমান্ড শেষে কারাগারে |  প্রজন্মকন্ঠ


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ৮:১৫ পিএম:
প্রশ্নফাঁস : শিক্ষকসহ ৫ জন রিমান্ড শেষে কারাগারে |  প্রজন্মকন্ঠ

এসএসসি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের জড়িত ক্যামব্রিজ হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক তানভীর হোসেনসহ ৫ জনকে ১ দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরণে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সাইফুল ইসলাম তাদেরকে ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির করে রিমান্ড শেষে তাদেরকে জামিন না দিয়ে কারাগারে আটক রাখার জন্য আবেদন করেন। আসামিপক্ষে জামিন চান। ঢাকার মহানগর হাকিম আহসান হাবীব উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

যাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে-

প্রধান শিক্ষক তানভীর হোসেন, হাসানুর রহমান ওরফে রকি ভাই (২৯), মো.সজীব মিয়া (২৬), মো. এনামুল হক (২৭), মো. ইব্রাহিম (২১)। এদের মধ্যে মো. সজীব মিয়া ক্যামব্রিজ হাই স্কুলের অ্যাকাউন্টিং বিষয়ের শিক্ষক, মো. ইব্রাহিম এবং মো. এনামুল হক সৃজনশীল কোচিং সেন্টারের শিক্ষক।

এক দিনের রিমান্ড শেষে তদন্ত কর্মকর্তা তার প্রতিবেদনে উল্লেখ্য করেন- আসামিদেরকে রিমান্ডে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। আসামিরা প্রশ্নফাঁসের সাথে জড়িত মর্মে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী অন্যন্যাদেরকে গ্রেফতার করার জন্য এই আসামিদেরকে জামিন না দিয়ে কারাগারে আটক রাখা প্রয়োজন। আসামিরা জামিন পেলে তদন্তে ব্যাঘাত ঘটবে।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারি ভোরে প্রশ্ন ফাঁস ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে সেগুলো ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে উত্তরখান ও গাজীপুর এলাকা থেকে ৪ শিক্ষকসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। আসামিদের মধ্যে তানভীর হোসেন (২৯) উত্তরখানের ক্যামব্রিজ হাই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। তানভীর ফাঁস হওয়া প্রশ্ন নিয়ে দ্রুত সমাধান করে দিতেন।

তানভীর হোসেন ছাড়াও অন্য আসামিরা হলো- হাসানুর রহমান ওরফে রকি ভাই (২৯), মো. সজীব মিয়া (২৬), মো. এনামুল হক (২৭), মো. ইব্রাহিম (২১)। এদের মধ্যে মো. সজীব মিয়া ক্যামব্রিজ হাই স্কুলের অ্যাকাউন্টিং বিষয়ের শিক্ষক, মো. ইব্রাহিম এবং মো. এনামুল হক সৃজনশীল কোচিং সেন্টারের শিক্ষক। হাসানুর রহমান ওরফে রকি ভাই একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। তার ফেসবুক আইডি ‘রকি ভাই’। প্রশ্নপত্র সরবরাহের ক্ষেত্রে তার বেশ খ্যাতি আছে। সে ফেসবুক গ্রুপের এডমিন। সে গত ৪ বছর ধরে প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত। গ্রেপ্তারকৃত হাসান পরীক্ষার শুরু হওয়ার ২ মাস আগে থেকেই ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপ, ইমো’তে বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক মানি ট্রান্সফার নম্বর আইডি দিয়ে প্রচারণা করতে শুরু করে।

প্রচারণায় উল্লেখ থাকে যে, যারা প্রশ্ন পেতে চায় তারা ২০০০ টাকার বিনিময়ে তার গ্রুপের সদস্য হতে পারে। পরীক্ষার দিন ভোরে হাসানুর রহমান ফাঁস হওয়া প্রশ্ন এসব শিক্ষকদের দিতো এবং শিক্ষকরা খুব কম সময়ের মধ্যে প্রশ্নপত্র সমাধান করে হাতে লেখা উত্তরপত্র সরবরাহ করত। ফাঁস হওয়া প্রশ্ন শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়ার নতুন কৌশল গ্রহণ করেছে আসামিরা।

আসামিদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আইন শৃংখলা বাহিনী জানতে পারে, তারা ব্লাড ডোনেশন-১, ব্লাড ডোনেশন-২ এবং ব্লাড ডোনেশন-৩ নামে গ্রুপ খুলে যাতে কেউ একে প্রশ্ন ফাঁসের গ্রুপ মনে না করতে পারে। গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে ৮টি মোবাইল সেট ও ১টি ট্যাব উদ্ধার করা হয়ছিল। ট্যাবে ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসের ভেতরে এসএসসি পরীক্ষার বিভিন্ন পশ্নপত্র পাওয়া যায়। আসামিরা কেন অর্থ উপার্জনের কৌশল হিসাবে প্রশ্নপত্র ফাঁস করেছে।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top