Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ২০১৮ , সময়- ৯:৪০ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
বিশ্বকাপ-যুদ্ধের ফাইনাল আজ, মুখোমুখি ফ্রান্স ও ক্রোয়েশিয়া  প্রধানমন্ত্রীর উপহার কেন ফেরত দিলেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী   শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর  আনুষ্ঠানিক ভাবে ঈশ্বরদী-পাবনা-ঢালারচর রেললাইনের উদ্বোধন  মানুষের কল্যাণে জন্য কাজ করে আওয়ামী লীগ : শেখ হাসিনা ইংল্যান্ডকে ২-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপের তৃতীয় বেলজিয়াম অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের নারী দল  সেতুমন্ত্রীর উপন্যাস ‘গাঙচিল’ থেকে সিনেমা  ২০২২ সালের ২১ নভেম্বর শুরু হবে কাতার বিশ্বকাপ, দিনক্ষণ ঘোষণা  স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে দুদেশের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শুরু রবিবার 

পুলিশি হামলায় বিএনপির ‘কালো পতাকা’ মিছিল পণ্ড | প্রজন্মকন্ঠ


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ৩:১৭ পিএম:
পুলিশি হামলায় বিএনপির ‘কালো পতাকা’ মিছিল পণ্ড | প্রজন্মকন্ঠ

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জলকামান থেকে রঙিন পানি নিক্ষেপ করে পুলিশ

সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির ডাকা পূর্বঘোষিত ‘কালো পতাকা’ মিছিল কর্মসূচি পুলিশি হামলায় পণ্ড হয়ে গেছে। এ সময় আহত হয়েছেন অন্তত ২৫ জন। আটক করা হয়েছে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলালসহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীকে।

আজ (শনিবার) বেলা ১১টায় কর্মসূচি আহ্বান করা হলেও নির্ধারিত সময়ের আগেই বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা কালো পতাকা হাতে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কয়েকশ কর্মী কার্যালয়ের সামনের সড়কে কালো পতাকা নিয়ে বসে পড়েন। এসময় তারা খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দেন।

বিএনপিকর্মীরা সড়কে অবস্থান নেয়ার সঙ্গে সঙ্গে লাঠিপেটা শুরু করে পুলিশ, জলকামান থেকে রঙিন পানিও ছুড়তে থাকে। এসময় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন ও সাবেক সংসদ সদস্য নিলুফার চৌধুরী মনিসহ অন্তত ২৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। রঙিন পানিতে আক্রান্ত বিএনপি মহাসচিবসহ অন্য নেতারা দলীয় কার্যালয়ের ভেতরে অবস্থান নেয়ার পর কলাপসিপল গেইটের মুখে দাঁড়িয়ে স্লোগান দিতে থাকেন কর্মীরা।

সকাল ১১টার দিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান কার্যালয়ে ঢোকার সময় আরেক দফা আক্রমণ চালায় পুলিশ। লাঠিপেটার পাশাপাশি কয়েকজনকে টেনে নিয়ে ভ্যানে তোলে তারা। এসময় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল ও হালিমা নেওয়াজ আরলিকে আটক করা হয়। পল্টন থানার ডিউটি অফিসার রেজভী আক্তার জানিয়েছেন, নারী-পুরুষসহ বিএনপির ৫৭ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। তবে, বিএনপির অভিযোগ, শতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সাংবাদিকদের বলেন, 'সরকারের এটা কোন ধরনের আচরণ? সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ একটা কর্মসূচির মধ্যে এভাবে জলকামান দিয়ে পানি ছিটানো, লাঠিপেটা, নির্বিচারে গ্রেপ্তার কোনো সভ্য গণতান্ত্রিক দেশের আচরণ হতে পারে না। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই।’

তবে মতিঝিল জোনের এসি শিবলি নোমান বলেন, ‘বিএনপি কালো পতাকা প্রদর্শন কর্মসূচি পালনে অনুমতি নেয়নি। গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কে সকাল থেকে অবস্থান নিয়ে তারা জনসাধারণের স্বাভাবিক কার্যক্রম বিঘ্নিত করছিল। এজন্য জলকামান ব্যবহার করে তাদের সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

পুলিশি হামলার সময় ঘটনাস্থলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, মওদুদ আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরী, আবদুল আউয়াল মিন্টু, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সাবেক সংসদ সদস্য নীলুফার চৌধুরী মনি উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে কেন্দ্রীয় কার্যালয় নয়াপল্টনে  সংবাদ সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ‘কালো পতাকা’ মিছিল কর্মসূচি ঘোষণা দেন। খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে রাজধানীতে সমাবেশ করতে না দেয়ার প্রতিবাদে এই কর্মসূচি দিয়েছিল বিএনপি।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top