Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ , সময়- ১১:১৮ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
বিভ্রান্ত করতে বিএনপি নেতাকর্মী ও শয়তানের মধ্যে তফাৎ নাই : যুবলীগ চেয়ারম্যান এত বেশী কেন, বাংলাদেশে মোবাইল ইন্টারনেটের দাম ? মামলার তারিখ এলেই খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে পড়েন : শেখ হাসিনা মামলার তারিখ এলেই খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে পড়েন : শেখ হাসিনা মামলার তারিখ এলেই খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে পড়েন : শেখ হাসিনা তালিকাচ্যুতির পাইপ লাইনে আরও ২৫ কোম্পানি বেগম খালেদা জিয়ার জামিন না মঞ্জুর, ২৬ জুলাইয়ের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ কুষ্টিয়ার ঘটনায় যারাই জড়িত থাকুক, খুঁজে বের করা হবে : ওবায়দুল কাদের লাল ফিতা, সাদা ফিতার দৌরাত্ম্য বন্ধ সরকারি কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান : প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ

অভিভাবক ও সংশ্লিষ্ট মহল উদ্বেগ : ফল বিপর্যয়ের আশঙ্কায় ১৬শ’ পরীক্ষার্থী


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ১০ এপ্রিল ২০১৮ ১২:২১ পিএম:
অভিভাবক ও সংশ্লিষ্ট মহল উদ্বেগ : ফল বিপর্যয়ের আশঙ্কায় ১৬শ’ পরীক্ষার্থী

গাজীপুর ও জামালপুরের দুই পরীক্ষা কেন্দ্রে সোমবার ভুল প্রশ্নে এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ঘটনায় অভিভাবক ও সংশ্লিষ্ট মহল উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। একই সঙ্গে এক হাজার ৬০০ পরীক্ষার্থী ফল বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন। এর মধ্যে গাজীপুরে এক হাজার ৩০০ ও জামালপুরে ২৯০ পরীক্ষার্থী রয়েছেন।  

এদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে গাজীপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে গতকাল অবস্থান, সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বিকালে গাজীপুর সরকারি মহিলা কলেজের সামনে রাজবাড়ি ত্রিমোড়ে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেন। 

প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য নিচে দেওয়া হলো-   

এইচএসসির ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেওয়ার প্রতিবাদে গাজীপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান, সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল সকালে জেলা শহরের কাজী আজিম উদ্দিন কলেজ কেন্দ্রে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ে এমসিকিউ ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বিকালে গাজীপুর সরকারি মহিলা কলেজের সামনে রাজবাড়ি ত্রিমোড়ে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা জানান, সকাল ১০টায় চলমান এইচএসসি পরীক্ষার তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি পরীক্ষা শুরু হয়। কিন্তু আইসিটি বিষয়ে এমসিকিউ ২৫ নম্বরের এক নম্বর সেটের পরিবর্তে দুই নম্বর সেটের প্রশ্নপত্র সরবরাহ করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

অভিভাবকরা জানান, শিক্ষা বোর্ড থেকে যে সেটে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য বার্তা এসেছিল সেই সেটে পরীক্ষা না নিয়ে অন্য সেটে পরীক্ষা নেয় কর্তৃপক্ষ। ফলে ঝুঁকিতে পড়েছে কাজী আজিম উদ্দিন কলেজ কেন্দ্রের প্রায় এক হাজার ৩০০ পরীক্ষার্থী।

এ কেন্দ্রে গাজীপুর সরকারি মহিলা কলেজ, লিংকন কলেজ, গাজীপুর জেলা কলেজ, অক্সফোর্ট কলেজের পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা দেন। পরীক্ষা শেষে শিক্ষার্থীরা অন্য কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারেন তারা ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিয়েছেন।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর বিক্ষোভকারী শিক্ষার্থীদের কাছে এসে জানান, এ ব্যাপারে শিক্ষা বোর্ডের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। সব শিক্ষার্থী যেন পূর্ণ নম্বর পায়, সে ব্যাপারে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা এলাকা ত্যাগ করে। ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেওয়ার ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা সুলতানাকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপজেলা সমবায় অফিসারকে শোকজ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান জেলা প্রশাসক। 

জামালপুর প্রতিনিধি: জামালপুরে শহরের শহীদ জিয়াউর রহমান ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে ভিন্ন সেটে এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে ওই কেন্দ্রে অংশ নেওয়া সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের ২৯০ শিক্ষার্থীর ফল বিপর্যয়ের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। আজ তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি পরীক্ষায় দেশের সব পরীক্ষা কেন্দ্রে ‘ঘ’ সেটের ‘ওলকপি’ সিরিজের প্রশ্ন দিয়ে বহুনির্বাচনি পরীক্ষা নেওয়া হলেও ওই কলেজ পরীক্ষা কেন্দ্রে ‘ঘ’ সেটের ‘লাউ’ সিরিজের প্রশ্ন দিয়ে বহুনির্বাচনি পরীক্ষা নেওয়া হয়।

এতে জামালপুর সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ২৯০ পরীক্ষার্থীর তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিষয়ে পরীক্ষায় পাস করার অনিশ্চয়তা দেখা দেয়। এ ব্যাপরে ওই কেন্দ্রের শিক্ষার্থীরা সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করে পুনরায় এ পরীক্ষা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে শহীদ জিয়াউর রহমান ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আলহাজ তসলিম উদ্দিন ভিন্ন সেটের প্রশ্ন দিয়ে বহুনির্বাচনি পরীক্ষা গ্রহণের কথা স্বীকার করে বলেন, মোবাইলের মেসেজ ভুল বোঝা নিয়ে এ ঘটনাটি ঘটেছে। তবে এ ব্যাপারে বোর্ড নিয়ন্ত্রক তপন কুমারের সঙ্গে কথা হয়েছে, বিষয়টি তারা দেখবেন।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top