Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, শনিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০১৯ , সময়- ৭:০১ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
জীবন দিয়ে হলেও জনগনের সম্মান আমি রক্ষা করবো লুঠের টাকায় ভোট, লুঠছে সব নোট : মমতা'র অভিযোগ ‘জয় বাংলা’ স্লোগানে মুখরিত সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অর্থপূর্ণ রাজনৈতিক সংলাপের আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ সাবেক অর্থমন্ত্রীর হুইল চেয়ার ধরার লোক নেই বিমানবন্দরে !  বিজেপি সরকারের ‘বিদায় ঘণ্টা’ বাজানোর প্রস্তুতি জনগণের দৃষ্টি ভিন্নখাতে প্রভাহিত করতেই বিজয় উৎসব করছে আ'লীগ কলকাতার ব্রিগেডের দিনেই সম্প্রচারিত হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর মৃত্যু আশঙ্কা আসছেন জাতিসংঘের বিশেষ দূত যেসব সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে আজ 

মেয়রের জন্য এমপিত্ব ছাড়ছেন খালেক, আসছেন তার স্ত্রী হাবিবুন নাহার


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ১০ এপ্রিল ২০১৮ ২:১০ পিএম:
মেয়রের জন্য  এমপিত্ব ছাড়ছেন খালেক, আসছেন তার স্ত্রী হাবিবুন নাহার

আওয়ামী লীগের তালুকদার আবদুল খালেক খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে অংশ নিতে ১২ এপ্রিল মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনেই প্রার্থিতা জমা দেবেন।

খুলনা সিটি করপোরেশনে আগামী ১৫ মের ভোটকে সামনে রেখে রবিবার আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকে খালেককে নৌকা প্রতীক দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এই নির্বাচনে অংশ নিতে খালেকের জন্য একটি বাধা ছিল তার সংসদ সদস্যপদ। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে করা একটি বিধানে সংসদ সদস্য থাকা অবস্থায় স্থানীয় সরকারের কোনো পদে আসীন হওয়া যায় না। কিন্তু দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার নির্দেশে সে পদ ছেড়েই ভোটের লড়াইয়ে নামছেন তিনি।

ভোটে অংশ নিতে প্রার্থিতা জমা দিতে আর তিন দিন সময় পাবেন খালেক। এক প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমি শেষ দিনেই মনোনয়নপত্র জমা দেব।’
সংসদ সদস্য পদ কখন ছাড়ছেন?- জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘এখনও তো সময় আছে, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার আগেই পদত্যাগ করব।’

গত ৩১ মার্চ এই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর খালেক জানিয়েছিলেন, তিনি রামপাল-মংলা আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে থাকতেই পছন্দ করবেন। তবে দলের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকের আগের দিন খালেক আবার বলেন, তার মেয়র পদে নির্বাচন করার ইচ্ছা নাই। তবে নেত্রী (শেখ হাসিনা) নির্দেশ দিলে তিনি ভোটের লড়াইয়ে নামবেন।

খালেককে রাজি করাতে তার সঙ্গে আগেই আলোচনা করেছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। বাগেরহাট-৩ আসন ছেড়ে দিলে সেখানে স্ত্রী হাবিবুন নাহারকে মনোনয়ন দেয়ার প্রস্তাব দেন তারা। রবিবার দলের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকেও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন একাধিক নেতা।

ওই আসনটি আওয়ামী লীগের ঘাঁটি হিসেবেই পরিচিত। ফলে দলের মনোনয়ন পেলেই জয় অনেকটাই নিশ্চিত যে কোনো প্রার্থীর। আসনটি কি আপনার স্ত্রীকেই দেয়া হচ্ছে? এমন প্রশ্নে খালেক বলেন, ‘এটা দলের মনোনয়ন বোর্ড সিদ্ধান্ত নেবে। তবে যেহেতু আমার স্ত্রী এ আসনের সংসদ সদস্য ছিল, তার কাজের অভিজ্ঞতাও রয়েছে। আর তাকে দল মূল্যায়ন করবে বলে কথা দিয়েছে।’

‘আর রামপাল-মংলায় উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চলমান। সে (স্ত্রী) এমপি হলে আমিও তদারকি করতে পারব, কাজে সুবিধা হবে।’


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top