Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , সময়- ৭:৫৭ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
খালেদা জিয়ার চিকিৎসা বিতর্ক কেন ? বিএনপি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাত শেষে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী | প্রজন্মকণ্ঠ পছন্দের হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আবেদন খালেদা জিয়ার | প্রজন্মকণ্ঠ খালেদা জিয়া কারাগারের বাইরে থাকার সময়ও জনগণ তার ডাকে সাড়া দেয়নি : ওবায়দুল কাদের বিএনপি-জামায়াত ক্লিনহার্ট অপারেশন চালিয়ে আ'লীগের অসংখ্য নেতাকর্মীকে নির্যাতনের শিকার করেছিল : প্রধানমন্ত্রী  ধর্মমন্ত্রী ও ভূমিমন্ত্রীর  কড়া সমালোচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রিজভীর নেতৃত্বে মিছিল করেছে বিএনপি আ'লীগের প্রতিনিধিদলের উত্তরবঙ্গ সফর শুরু । প্রজন্মকণ্ঠ   বিজিবি-বিএসএফ সম্মেলন : সীমান্ত হত্যা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনার অঙ্গীকার | প্রজন্মকণ্ঠ  সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে মাঠে নামছে স্বাগতিক বাংলাদেশ, আগামীকাল | প্রজন্মকণ্ঠ

কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীকে গণধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেপ্তার ৩


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ২৮ এপ্রিল ২০১৮ ১২:৪১ এএম:
কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীকে গণধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেপ্তার ৩

বরিশাল নগরীর কাশিপুরে কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে গণধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার বেলা ৩টার দিকে  তাদেরকে শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। নগরীর মথুরানাথ পাবলিক স্কুল সড়কের সিকদার ভিলা নামে একটি ছাত্রাবাসে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ওই ছাত্রাবাস থেকে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করে।

এই ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- বিএম কলেজের মার্কেটিং বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম সজিব ও তার বন্ধু রাব্বি এবং মানিক।

জানা গেছে, ওই কলেজছাত্রী পাঠ্য বিষয়ের নোট আনতে সকালে বিএম কলেজের সামনে তার বন্ধু সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ইমতিয়াজের ছাত্রাবাসে যায়। এ সময় স্থানীয় বখাটে রাব্বী মল্লিক তাদের জিম্মি করে মেয়েটিকে জোরপূর্বক মথুরানাথ পাবলিক স্কুল সড়কের হানিফ সিকদারের মালিকানাধীন সিকদার ভিলা নামের ছাত্রাবাসে নিয়ে যায়। সেখানে সজিবের কক্ষে নিয়ে চেতনানাশক খাইয়ে ধর্ষণ করেন রাব্বী। পরে রাব্বী ওই ছাত্রীকে সজিবের জিম্মায় রেখে পালিয়ে গেলে পরে সজিবও তাকে ধর্ষণ করে। এর আগে সহপাঠী বান্ধবীকে জোরপূর্বক তুলে নেয়ার খবর পুলিশকে জানায় ইমতিয়াজ। খবর পেয়ে পুলিশ ধর্ষিতাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের পুলিশ কমিশনার  এস এম রুহুল আমীন জানান, এই ঘটনার মূল হোতা রাব্বি মল্লিক পুলিশের তালিকাভুক্ত একজন চিহ্নিত আসামি। সে এর আগেও কলেজছাত্রদের আটকে টাকা নিয়েছে এবং এলাকার বিভিন্ন চুরি-ছিরতাইয়ের সঙ্গেও সে প্রত্যক্ষ্য এবং পরোক্ষভাবে যুক্ত ছিল।

তিনি আরো জানান, ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর অবস্থা বর্তমানে তেমন ভালো নয়। মনে হচ্ছে ধর্ষকরা এই ছাত্রীকে কিছু খাইয়ে ধর্ষণ করেছে। তিনি ঠিকমত কথা বলতে পারছেন না। মোটামুটি সুস্থ হওয়ার পর আরও বিস্তারিতভাবে জানা যাবে।

বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ মো. আওলাদ হোসেন জানান, সজীবকে গ্রেপ্তারের পরপরই সাঁড়াশি অভিযানে নামে পুলিশ। এই অভিযানে মূল হোতা রাব্বি ও তার সহযোগী মানিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে বিএম কলেজ এলাকার একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে যে, রাব্বি মল্লিক বিএম কলেজ এলাকার ছিনতাই কর্মকাণ্ডে জড়িত। তার বাড়ি বিএম কলেজের সামনে হওয়ার সুবাদে তিনি বিএম কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের জিম্মি করে নানা সময় অর্থ আদায় থেকে শুরু বিভিন্ন অপকর্ম করতেন। তার বিরুদ্ধে বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এছাড়া তিনি বরিশালের একজন চিহ্নিত ছিনতাইকারী হিসেবেই পুলিশের কাছে বেশী পরিচিত। গ্রেপ্তারকৃত অপর আসামি সাইফুল ইসলাম সজীব ২০নং ওয়ার্ড এলাকার চিহ্নিত ইয়াবা বিক্রেতা। তার বিরুদ্ধেও স্থানীয় সূত্রে পাওয়া গেছে নানা অভিযোগ।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top