Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ , সময়- ৯:২১ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
অটলবিহারী বাজপেয়ীর অবস্থা সঙ্কটজনক আলোর গতিতে বাংলার আকাশ ছাড়িয়ে বহির্বিশ্বে বঙ্গবন্ধুর নাম গভীর শোক আর শ্রদ্ধায় জাতি স্মরণ করলো বঙ্গবন্ধুকে বাংলাদেশ সরকার গণগ্রেপ্তার চালাচ্ছে - এইচআরডব্লিউ : বিশ্লেষক প্রতিক্রিয়া বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িত ছিল দেশি-বিদেশি আন্তর্জাতিক চক্র : সেলিম জাতীয় নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র চলছে : কামরুল নির্বাচনে বিশ্বাস করি, ভোটের লড়াই করে ক্ষমতায় যেতে চাই : মোহাম্মদ নাসিম কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনায় ৪৮ জন নিহত এখন পর্যন্ত ৪০ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু  বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম সারওয়ারকে শেষ বিদায় জানালেন বানারীপাড়াবাসী

বরিশাল সিটি করপোরেশন : নির্বাচনে কাউন্সিলর যারা


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ১ আগস্ট ২০১৮ ১২:৪৭ পিএম:
বরিশাল সিটি করপোরেশন : নির্বাচনে কাউন্সিলর যারা

এবারের বরিশাল সিটি করপোরেশন (বিসিসি) নির্বাচনে ৩০টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ৯১ জন প্রার্থী। এছাড়া ১০টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর পদের প্রার্থী ছিলেন ৩৪ জন।

মঙ্গলবার (৩১ জুলাই) দিনগত রাতে সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুজিবুর রহমান ওয়ার্ড কাউন্সিলের বিজয়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তার ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী- ৩০ ওয়ার্ডের মধ্যে ২১ ওয়ার্ডে ২১জন সাধারণ কাউন্সিলরকে ও ১০টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে চারজনকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। বাকি ৯টি ওয়ার্ডে ৯জন সাধারণ কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৬ জনের চূরান্ত ফলাফল ঘোষণার কার্যক্রম আটকে আছে।

এর মধ্যে আগে থেকেই ৩ ওয়ার্ডে তিনজন সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে একজন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় বিজয়ী হয়েছেন।

সাধারণ ওয়ার্ডে বিজয়ীদের মধ্যে ১৪ জন আওয়ামী লীগ, তিনজন বিএনপি, একজন জাতীয় পার্টি ও তিনজন স্বতন্ত্রপ্রার্থী রয়েছেন। সংরক্ষিত ওয়ার্ডে বিজয়ী চারজনের মধ্যে একজন আওয়ামী লীগ, একজন বিএনপি, একজন স্বতন্ত্র ও একজন সদ্য বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন।

সাধারণ ওয়ার্ডে বিজয়ী কাউন্সিলররা হলেন- ২ নম্বর ওয়ার্ডে অ্যাডভোকেট একে. এম মুরতজা আবেদীন (জাপা), ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সৈয়দ হাবিবুর রহমান ফারুক (স্বতন্ত্র), ৪ নম্বর ওয়ার্ডে তৌহিদুল ইসলাম (আওয়ামী লীগ), ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মো. কেফায়েত হোসেন রনি (স্বতন্ত্র), ৬ নম্বর ওয়ার্ডে খান মোহাম্মদ জামাল হোসেন (স্বতন্ত্র), ৭ নম্বর ওয়ার্ডে মো. রফিকুল ইসলাম (আওয়ামী লীগ), ৮ নম্বর ওয়ার্ডে মো. সেলিম হাওলাদার (বিএনপি), ৯ নম্বর ওয়ার্ডে হারুন অর রশিদ (বিএনপি), ১০ নম্বর ওয়ার্ডে এটিএম শহিদুল্লাহ (স্বতন্ত্র), ১১ নম্বর ওয়ার্ডে মজিবর রহমান (আওয়ামী লীগ), ১২ নম্বর ওয়ার্ডে জাকির হোসেন (আওয়ামী লীগ), ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে মো. মেহেদী পারভেজ খান (আওয়ামী লীগ), ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে মীর একেএম জাহিদুল কবির (বিএনপি), ২১ নম্বর ওয়ার্ডে শেখ সাঈদ আহমেদ (আওয়ামী লীগ), ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে মো. হুমায়ুন কবীর (আওয়ামী লীগ), ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে মো. জাহাঙ্গীর হোসেন (আওয়ামী লীগ), ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে মো. ফরিদ আহমেদ (আওয়ামী লীগ) ও ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে আজাদ হোসেন মোল্লা কালাম (আওয়ামী লীগ)।

তাছাড়া বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় বিজয়ী হয়েছেন- ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে লিয়াকত হোসেন খান (আওয়ামী লীগ), ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে মো. মোশারফ আলী খান বাদশা (আওয়ামী লীগ), ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে গাজী নঈমুল হোসেন লিটু (আওয়ামী লীগ) ও সংরক্ষিত ৪ নম্বর ওয়ার্ডে আয়শা তৌহিদ লুনা (সদ্য আওয়ামী লীগে যোগদানকারী)।

সংরক্ষিত ওয়ার্ডে বাকি তিন বিজয়ী হলেন- ২নম্বর ওয়ার্ডে জাহানারা বেগম (স্বতন্ত্র), ৩ নম্বর ওয়ার্ডে কোহিনুর বেগম (আওয়ামী লীগ), ১০নম্বর ওয়ার্ডে রাশিদা পারভীন (বিএনপি)।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান আরও জানান, ফল স্থগিত থাকা ওয়ার্ডগুলোর কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যা এবং স্থগিত কেন্দ্রের মোট ভোটার সংখ্যা নির্বাচন কমিশনে (ইসি) পাঠানো হবে। সেখান থেকে পরবর্তী সিদ্ধান্তের পর নির্ভর করবে কাউন্সিলর প্রার্থীদের ফল।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top