Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ , সময়- ৩:১০ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
বৈশ্বিক ক্ষুধা সূচকে গত বছরের তুলনায় আরও দুই ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার পর এবার ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা চলতি বছরেই বাংলাদেশে চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্ট শেষ পর্যন্ত ভর্তুকি দিয়ে গ্যাসের দাম না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত : বিইআরসি নরসিংদীর ‘জঙ্গি আস্তানায়’ যৌথবাহীনির অভিযান সমাপ্ত  এই মুহূর্তে কোনও রাজবন্দি নাই, যারা আছে তারা সবাই অপরাধী : তথ্যমন্ত্রী অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা ছাড়া দুদক টিকবে না : দুর্নীতি দমন কমিশন নরসিংদীর 'জঙ্গি আস্তানা' থেকে দু'টি লাশ উদ্ধার, জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের আহ্বান ৮ হাজার রোহিঙ্গার প্রথম তালিকা যাচাই করে তথ্য স্বীকার করেছে মায়ানমার জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় সম্মিলিত প্রচেষ্টার বিকল্প নেই : পানি সম্পদ মন্ত্রী

ভারতে ধৃত বোমা মিজানকে ফেরত চায় বাংলাদেশ সরকার


নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রজন্মকণ্ঠ

আপডেট সময়: ১০ আগস্ট ২০১৮ ৯:২৮ পিএম:
ভারতে ধৃত  বোমা মিজানকে ফেরত চায় বাংলাদেশ সরকার

ভারতে ধৃত জামাত উল মুজাহিদীন ইন্ডিয়া (জেএমআই) শাখার আমির (প্রধান) বোমা মিজানকে ফেরত চায় বাংলাদেশ সরকার৷ এমন্টাই জানিয়েছেন,   স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল৷ তিনি বলেন, যেহেতু দুই রাষ্ট্রের মধ্যে বন্দি প্রত্যর্পণ চুক্তি রয়েছে তাই তাকে অবশ্যই ফেরানো হবে৷ বেঙ্গালুরু থেকে এই জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছে এন আই এ৷ 

এই বাংলাদেশী জঙ্গিকে ২০১৪ সালে ময়মনসিংহের ত্রিশাল এলাকায় পুলিশের ভ্যান থেকেই ছিনিয়ে নিয়েছিল জেএমবি জঙ্গিরা৷ পরে সীমান্ত পেরিয়ে সে প্রতিবেশী দেশে চলে যায়৷ আর ভারতে বসে বাংলাদেশে নাশকতা ছড়ানোর লক্ষ্যে বিশাল জঙ্গি নেটওয়ার্ক তৈরি করেছিল বোমা মিজান ওরফে কওসর ওরফে জাহিদুল ইসলাম৷ পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলা (বর্তমানে পূর্ব বর্ধমান) সদর শহর বর্ধমানের উপকণ্ঠে খাগড়াগড়ে ছিল তার মূল ঘাঁটি৷ ২১০৪ সালের ২ অক্টোবর দুর্গাপুজোর সময় সেই বাড়িতে বিস্ফোরণ হয়৷ প্রাথমিকভাবে সেটি দুর্ঘটনা মনে হলেও পরে তদন্তে উঠে আসে বাংলাদেশি জঙ্গি সংগঠন জেএমবি সংযোগ৷ তখন থেকেই নিখোঁজ ছিল কওসর ওরফে বোমা মিজান৷

বিভিন্ন নাশকতার মামলায় বোমা মিজানের মাথার দাম বাংলাদেশে পাঁচ লক্ষ টাকা৷ ২০০৭ সালে কক্সবাজার বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক উদ্ধার, ঝিনাইদহে বোমা তৈরির সরঞ্জাম রাখা, চট্টগ্রাম আদালত চত্বরে আত্মঘাতী বোমা হামলা সহ একাধিক মামলায় এই শীর্ষ জঙ্গি নেতার নাম জড়িয়ে৷ তাকে জেরা করতে চাইছেন গোয়েন্দারা৷

বোমা মিজান ভারতে আত্মগোপন করে জেএমবি সংগঠনের ভারতীয় শাখা জেএমআই তৈরি করেচিল৷ সংগঠনের প্রদান হিসেবে দীর্ঘদিন তার কর্মতৎপরতা চালিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ ও নদিয়া জেলায়৷ এছাড়া জঙ্গি নেটওয়ার্ক ছড়িয়েছিল বর্ধমান শহরের খাগড়াগড়ে৷ কিন্তু বিস্ফোরণের ঘটনায় সেই জঙ্গি ডেরা সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য উঠে আসে এনআইএ-র হাতে৷

খাগড়াগড় বিস্ফোরণ মামলায় ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা বেঙ্গালুরুর রামনগর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে৷ বুদ্ধগয়ায় বিস্ফোরণ ঘটিয়ে দলাই লামাকে খুন করার পরিকল্পনাও নিয়েছিল বোমা মিজান৷


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top