Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৯ , সময়- ৮:০৩ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা হলেন সালমান আরেকটি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা : কারণ এবং প্রতিকার কী ? পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রথম বিদেশ সফর ভারত প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ পেলেন জয়  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু ৫ আমি কখনও সংলাপের কথা বলিনি : ওবায়দুল কাদের কাদের'কে স্টেডিয়ামে প্রকাশ্যে মাফ চাওয়ার আহ্বান  বাংলাদেশে তথ্য প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী জাপান সংরক্ষিত নারী আসনে আ'লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু  পদ্মা সেতুর পাশেই হবে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

খুলনা-৪ আসনে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী

শিল্পপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী শিক্ষায় উচ্চমাধ্যমিক, মাসিক আয় ৪৭ লাখ টাকা


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ৫:১৯ পিএম:
শিল্পপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী শিক্ষায় উচ্চমাধ্যমিক, মাসিক আয় ৪৭ লাখ টাকা

খুলনা-৪ আসনের (তেরখাদা, দিঘলিয়া ও রূপসা উপজেলা) উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুস সালাম মুর্শেদী উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন। বিশিষ্ট এই শিল্পপতি বাসাভাড়া, ব্যবসাসহ বিভিন্ন খাত থেকে প্রতি মাসে আয় করেন ৪৭ লাখ টাকা।

নির্বাচন কার্যালয়ে সালাম মুর্শেদীর জমা দেওয়া হলফনামা থেকে এই তথ্য পাওয়া গেছে। গত রোববার তিনি খুলনা আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন। সঙ্গে হলফনামা জমা দিয়েছেন তিনি।

রোববার ছিল এই উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। ওই দিন পর্যন্ত সালাম মুর্শেদী ছাড়া আর কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেননি। তাই ধরেই নেওয়া হচ্ছে, সবকিছু ঠিক থাকলে তিনিই হচ্ছেন খুলনা-৪ আসনের সাংসদ।

হলফনামায় সালাম মুর্শেদী তাঁর ৮৫ কোটি ৯৬ লাখ টাকার সম্পদের হিসাব দিয়েছেন। তাঁর স্ত্রী ও সন্তানদের সম্পদ দেখিয়েছেন আরও ২৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকার। এত বিত্তশালী কেউ খুলনায় এর আগে সাংসদ হয়েছেন, এমন নজির নেই।

সালাম মুর্শেদী হলফনামায় পেশার ঘরে লিখেছেন ‘ব্যবসা-প্রাইভেট/পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিসমূহের ব্যবস্থাপনা পরিচালক/পরিচালক পোশাক শিল্পপ্রতিষ্ঠান, বস্ত্রশিল্প, ব্যাংক, হাসপাতাল ইত্যাদি’। বছরে নিজের আয় দেখিয়েছেন ৫ কোটি ৭৩ লাখ টাকা। অর্থাৎ তাঁর প্রতি মাসে আয় ৪৭ লাখ টাকা।

হলফনামায় আয়ের উৎস সম্পর্কে সালাম মুর্শেদী উল্লেখ করেছেন, বাড়িভাড়া থেকে বছরে তাঁর নিজের আয় ১৫ লাখ ৯২ হাজার টাকা; তাঁর ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের আয় ১০ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। ব্যবসা থেকে বছরে নিজের আয় ২ কোটি ৬৮ লাখ টাকা; নির্ভরশীলদের আয় ১৭ লাখ ৫৮ হাজার টাকা। শেয়ার সঞ্চয়পত্র ও ব্যাংক আমানত থেকে নিজের আয় ২ কোটি ৮৯ লাখ টাকা; নির্ভরশীলদের আয় ৪৭ লাখ টাকা।

হলফনামায় দেখা গেছে, সালাম মুর্শেদীর শিক্ষাগত যোগ্যতা ‘উচ্চমাধ্যমিক’। তাঁর বিরুদ্ধে মামলা নেই।

সালাম মুর্শেদীর অস্থাবর সম্পদের মধ্যে রয়েছে নিজের নামে নগদ সাড়ে ১৩ লাখ টাকা; স্ত্রীর নামে ৪ লাখ টাকা; নির্ভরশীলদের নামে ১ লাখ টাকা। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে নিজের নামে জমা রয়েছে ৩ কোটি ৬৫ লাখ টাকা; স্ত্রীর নামে ১২ লাখ টাকা ও নির্ভরশীলদের নামে ১৭ লাখ ৮৫ হাজার টাকা। কোম্পানির শেয়ার রয়েছে নিজের নামে ৬৪ কোটি ৭৮ লাখ টাকার; স্ত্রীর নামে ৯ কোটি ৪০ লাখ টাকার; নির্ভরশীলদের নামে ১২ কোটি ৯৪ লাখ টাকার। স্বর্ণ আছে নিজের সাড়ে ৯ হাজার টাকার এবং স্ত্রীর ৪ লাখ ২৫ হাজার টাকার। আসবাবের মূল্য ৩০ হাজার টাকা। অন্যান্য অস্থাবর সম্পদ আছে নিজের নামে ৫ কোটি ৪৭ লাখ টাকার এবং স্ত্রীর নামে ১ কোটি ২৮ লাখ টাকার।

স্থাবর সম্পদের মধ্যে সালাম মুর্শেদীর নিজের নামে থাকা ভবনের মূল্য ১১ কোটি ৫৫ লাখ টাকা; স্ত্রীর নামে থাকা ভবনের মূল্য ৩৪ লাখ টাকা। ব্যাংকে নিজের ঋণের পরিমাণ ৫ কোটি ৭৩ লাখ টাকা।

সালাম মুর্শেদীর বাড়ি খুলনার রূপসা উপজেলায়। তিনি একজন সফল ফুটবলার হিসেবে পরিচিত। পরে ব্যবসায়ও তিনি সফলতা অর্জন করেছেন। একসময় ছিলেন বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি।

গত ৩ মার্চ খুলনায় এক জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে সঙ্গে করে নিয়ে আসেন। ওই জনসভায় সালাম মুর্শেদী বক্তব্যও দেন। এরপর থেকেই খুলনার রাজনীতিতে সালাম মুর্শেদীর নাম ঘুরতে-ফিরতে থাকে।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top