Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , সময়- ৯:৫৮ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
খালেদা জিয়ার চিকিৎসা বিতর্ক কেন ? বিএনপি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাত শেষে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী | প্রজন্মকণ্ঠ পছন্দের হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আবেদন খালেদা জিয়ার | প্রজন্মকণ্ঠ খালেদা জিয়া কারাগারের বাইরে থাকার সময়ও জনগণ তার ডাকে সাড়া দেয়নি : ওবায়দুল কাদের বিএনপি-জামায়াত ক্লিনহার্ট অপারেশন চালিয়ে আ'লীগের অসংখ্য নেতাকর্মীকে নির্যাতনের শিকার করেছিল : প্রধানমন্ত্রী  ধর্মমন্ত্রী ও ভূমিমন্ত্রীর  কড়া সমালোচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রিজভীর নেতৃত্বে মিছিল করেছে বিএনপি আ'লীগের প্রতিনিধিদলের উত্তরবঙ্গ সফর শুরু । প্রজন্মকণ্ঠ   বিজিবি-বিএসএফ সম্মেলন : সীমান্ত হত্যা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনার অঙ্গীকার | প্রজন্মকণ্ঠ  সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে মাঠে নামছে স্বাগতিক বাংলাদেশ, আগামীকাল | প্রজন্মকণ্ঠ

খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা না দিয়ে হত্যার চেষ্টা চালানো হচ্ছে : বিএনপি মহাসচিব


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ৮:৫৫ পিএম:
খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা না দিয়ে হত্যার চেষ্টা চালানো হচ্ছে : বিএনপি মহাসচিব

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে সঠিক চিকিৎসা না দিয়ে হত্যার হীন প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ (শুক্রবার) সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খুব অসুস্থ। তার বাঁ হাত ও বাঁ পা প্রায় অবশ হয়ে গেছে। অসহ্য ব্যথা অনুভব করছেন তিনি। একই কথা তিনি বলেছেন ৫ তারিখে কারাগারে স্থাপিত বেআইনি আদালতে। এরপর খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা কারাগারে তার সঙ্গে দেখা করে শারীরিক অবস্থার যে বর্ণনা করেছেন তাতে আমরা শুধু উদ্বিগ্ন নই, হতবাক। এ বিষয়টিকে বার বার আমরা গুরুত্ব দিয়ে বললেও সরকার কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। 

৫ সেপ্টেম্বর জোর করে খালেদা জিয়াকে আদালতে আনা হয়েছিল দাবি করে তিনি বলেন, আইন অনুযায়ী, কোনো অসুস্থ নাগরিক সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত বিচারকার্য চালানো যায় না। খালেদা জিয়া এখন যে অবস্থায় আছেন, তাতে তার জীবন নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন। শুধুমাত্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য পরিত্যক্ত নির্জন কারাগারে অস্বাস্থ্যকর কক্ষে আবদ্ধ করে রেখেছে। সরকার তাকে শাস্তি দেয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। রাজনীতি ও নির্বাচন থেকে দূরে সরিয়ে রেখে এক তরফা নির্বাচনে নিজেদের নির্বাচিত ঘোষণা করার নীল নকশা নিয়েই এ অপপ্রয়াস চালাচ্ছে সরকার।

জিয়াউর রহমানের সময় কারাগারে আদালত বসিয়ে কর্নেল তাহেরের বিচার করা হয়েছিল, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া বিএনপি মহাসচিব বলেন, তখন মার্শাল ল’ ছিল।

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসা দাবি করে তিনি বলেন, গণবিরোধী সরকার নিশ্চিত হয়েছে যে, খালেদা জিয়া মুক্ত হলে তাদের রাজনৈতিক অস্তিত্ব বিপন্ন হবে এবং আগামী নির্বাচনে তাদের ভরাডুবি হতে বাধ্য। এটা এখন শুধু আমাদের কথা নয়, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের সাবেক রাষ্ট্রদূত পিনাক ভট্টাচার্য সম্প্রতি তার লেখায় বলেছেন। অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগের লজ্জাজনক পরাজয় ঘটবে। খালেদা জিয়া যেন নির্বাচনে নেতৃত্ব দিতে না পারেন সেজন্যই সরকার তার চিকিৎসার ব্যবস্থা না নিয়ে বেআইনিভাবে সাজা দিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে।

সরকারের ভূমিকার কঠোর সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এই অবৈধ সরকার একদলীয় শাসনব্যবস্থা কায়েমের লক্ষ্যে রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠানগুলো ধ্বংস করে বাংলাদেশকে স্বৈরাচারী রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। এক ব্যক্তির স্বেচ্ছাচারিতায় দেশ চলছে। জনগণ এর পরিবর্তন চায়। ইতিহাসের কাঠগড়ায় আপনাদের দাঁড়াতে হবে। সকল দায়দায়িত্ব আপনাদের ওপর বর্তাবে।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top