Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ , সময়- ১০:৩১ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে পাকিস্তানকে আর্থিক অনুদান বন্ধের ঘোষণা আমেরিকার ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত নির্বাচনে অংশ নেবেন আবদুল লতিফ সিদ্দিকী  ‘মদিনা সনদেই মহানবী (সা.) ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলেছেন’ : সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মহাজোটের হয়ে জাপার সম্ভাব্য প্রার্থীর তালিকা  গুজব খবর : বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট নিখোঁজ  ! আ'লীগ ও মহাজোটের মনোনয়ন ঘোষণা দিন পাঁচেক দেরি হবে : ওবায়দুল কাদের বিকৃত ইতিহাস থেকে দেশকে মুক্ত করতে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী ঝিনাইদহে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান সমাপ্ত, আটক ১

বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে

পাকিস্তানের অনেক বুদ্ধিজীবী বলছে, আমাদেরকে বাংলাদেশ বানিয়ে দাও : প্রধানমন্ত্রী 


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১০:২০ পিএম:
পাকিস্তানের অনেক বুদ্ধিজীবী বলছে, আমাদেরকে বাংলাদেশ বানিয়ে দাও : প্রধানমন্ত্রী 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যেমন কয়লার খনি খুড়ে খুড়ে হীরা বের হয়, আমার মনে হয়েছে ঠিক সেই ভাবেই যেন হীরার খনি আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়েছি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে পাকিস্তান গোয়েন্দা সংস্থার গোপন এই রিপোর্টগুলো থেকেই আমরা সব থেকে মূল্যবান তথ্য আবিষ্কার করতে পারব।

শুক্রবার গণভবণ থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে তৎকালীন পাকিস্তান গোয়েন্দা সংস্থার গোপন নথিগুলো সম্বলিত ‘সিক্রেট ডকুমেন্ট অব ইন্টেলিজেন্স ব্রান্স অন ফাদার অব দ্য নেশন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ শিরোনামে বইটির ১৪ খণ্ডের প্রথম খণ্ড মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, যে পাকিস্তানকে যুদ্ধ করে আমরা পরাজিত করেছিলাম, সেই পাকিস্তানের অনেক বুদ্ধিজীবী বলছে আমাদেরকে বাংলাদেশ বানিয়ে দাও। অর্থাৎ বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

ভাষা আন্দোলনসহ বাঙ্গালীর স্বাধীনতার ধারাবাহিক আন্দোলনের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সম্বলিত ১৪ খণ্ডে বইটি হাক্কানী পাবলিশার্স থেকে প্রকাশ করা হয়েছে।

ছাত্র জীবন থেকেই বঙ্গবন্ধু বাংলার মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন শুরু করেন। পাকিস্তান ইন্টেলিজেন্স ব্রাঞ্চ (আইবি) প্রতিদিন প্রতি মুহূর্তে তার কর্মকাণ্ড পর্যবেক্ষণ করে রিপোর্ট প্রেরণ করত। এরই ভিত্তিতে বিনা বিচারে আটক, মামলাসহ নানামুখী নির্যাতন চলত। ১৯৪৮ সাল থেকে শুরু করে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর নামে স্পেশাল ব্রাঞ্চে খোলা ব্যক্তিগত ফাইলে সংরক্ষিত ডকুমেন্ট সংকলন করে গ্রন্থাকারে বের করা হয়েছে।

বইটির প্রথম খণ্ড ১৯৪৮ সাল থেকে ১৯৫০ সাল পর্যন্ত প্রাপ্ত ডকুমেন্টের উপর ভিত্তি করে সংকলিত হলেও এ খণ্ডে ১৯৪৭ এর দেশ বিভাগের পূর্বেও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছাত্র রাজনীতিতে সম্পৃক্ততা ও মানবদরদি মনের পরিচয় পাওয়া যায়।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top