Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ , সময়- ৯:৫১ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
ড. কামাল হোসেনের গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় মামলা সারা দেশে ব্যাপক শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় বিজয় দিবস উদযাপন বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টকে ভোট না দেয়ার আহ্বান খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে সংগ্রাম চলছে, চলবে : ফখরুল  ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভোটারদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী বিজয় দিবসে একাত্তরের বীর শহীদদের প্রতি প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা গণমানুষের শেখ মুজিব, ইতিহাসের মহানায়ক বিজয় দিবসের বীর শ্রেষ্ঠরা বীরত্বের এক অবিস্মরণীয় দিন, মহান বিজয় দিবস আজ নির্বাচনে নিরাপত্তার ছক চুড়ান্ত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী

ঐক্যের নাম দিয়ে এখানে কোনো রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্র হচ্ছে (ফোনালাপ) 


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ১৪ অক্টোবর ২০১৮ ৩:১৮ পিএম:
ঐক্যের নাম দিয়ে এখানে কোনো রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্র হচ্ছে (ফোনালাপ) 

আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করেছে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া। গতকাল শনিবার রাতে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ঐক্য প্রক্রিয়ার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। কিন্তু আলোচিত এই জাতীয় ঐক্য রাখা হয়নি বিকল্পধারার সভাপতি বি. চৌধুরীকে। এই পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল রাতেই ফোনে কথা হয় বি. চৌধুরীর ছেলে মাহী বি. চৌধুরী এবং নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নার মধ্যে। বি. চৌধুরীহীন জাতীয় ঐক্যের সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণাপত্র পাঠ করায় মান্নাকে ফোন করে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন মাহী বি. চৌধুরী। 

মাহী বি. চৌধুরী ও মাহমুদুর রহমান মান্নার মধ্যকার ফোনালাপ পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

মাহী বি. চৌধুরী : মান্না ভাই, আপনি আব্বার সঙ্গে কথা বলে ঘোষণাপত্র পাঠ করলেন?

মাহমুদুর রহমান মান্না : না না এই মিস আন্ডারস্ট্যান্ডিংটা হয়েছে। আমার আরও ভালো করে ভাবা উচিত ছিল। রব ভাই কথা বলেছেন স্যারের সঙ্গে। স্যার বলেছেন, হ্যাঁ আমি এটা চিন্তা করছি, আধা ঘণ্টার মধ্যেই জানাচ্ছি। আমি ভেবেছি উনি আসবেন।

মাহী : না না আব্বা আমার পাশে বসে রব চাচার সঙ্গে কথা বলেছেন। উনি যদি এই কথাটা বলে থাকে তা সত্যি নয়। আর আব্বা তো নিজে আপনার সঙ্গে কথা বলেছে মান্না ভাই।

মান্না : আমার সঙ্গে কথা বলেছেন কী? কথা তো সব ঠিকই আছে। যেভাবে যেভাবে বলবার ব্যাপার সেভাবে আলাপ হয়েছে। আমি ওনেস্টলি বলি আজকের সামগ্রিক বিষয়ের ওপর অনেক কথা আছে সামনাসামনি বলবো। ফোনে সব বলতে পারবো না। কিন্তু একটা সিচুয়েশন হয়েছে সেটা আমি এভয়েড করতে পারিনি। আমি যদি করতে পারতাম এই ঘটনাটা যদি না হত। রব যদি স্যারের সঙ্গে কথা না বলতো এই রিপ্লাই না পেতাম। অলসো আই সেইড নো, এন্ড ইট ওয়াজ টোলড। এইটা শোনার পরে, নিজে কথাবার্তা বলার পরে এগ্রি হয়েছি কিন্তু তখনও ঘোষণাপত্র পড়ার কথা হয় নাই। সেটা হয়েছে পরে। আমি তো প্রথমে বলেছি যাবই না।

মাহী : কিন্তু সকাল থেকে মঈনুল হোসেন সাহেব কামাল হোসেন সাহেবকে সরিয়ে নিয়ে গেলেন উনার বাসা থেকে। চিন্তাটা আগেই ছিল মওদুদ হোসেন সাহেবের যে বি চৌধুরী এবং কামাল হোসেনকে একলা বসতে দেওয়া যাবে না। বি চৌধুরীকে সম্পূর্ণরূপে অপমান করে দেওয়া এই যে একটা পরিকল্পনা, এই একটা চক্রের মধ্যে তো আপনারা পড়ে গেলেন মান্না ভাই।

মান্না : না না এই চক্রের মধ্যে পড়বো কেন, বাইরেও থাকবে এটা আনাও যাবে। আপনাদের ব্যাপারটাও আমার একটু বোঝা দরকার। আচ্ছা, আপনি আমাকে কেন দোষারোপ করলেন মিছিমিছি? আমি কি বেইমানি করলাম?

মাহী : না না। আমি এই ওয়ার্ডটাই উচ্চারণ করি নাই। আমি বলেছি, আব্বা যখন নিজে কথা বলেছে আপনি বলেছেন ঠিক আছে, আপনি আমাদের প্রেস কনফারেন্সেও থাকবেন না, উনাদের প্রেস কনফারেন্সও থাকবেন না। আমরা সেটা আশা করেছিলাম। তাই আপনি যখন ঘোষণাপত্র পাঠ করলেন তখন আব্বা লিটারালি শকড।

মান্নার জন্য কামাল হোসেনের সঙ্গে আমি ফাইট করেছি। সেখানে কামাল হোসেন হয়ে গেল মান্নার কাছের লোক। আমাকে অপমান করলো আর মান্না সেখানে চলে গেল ঘোষণাপত্র পাঠ করতে?

মান্না : এটা আপনি খুব রাইট কথা বলেছেন। আমাকে এক প্রকার ধাক্কা দিয়ে, পুশ করে… দ্যাট টাইম ইউর ফাদার সেভড মি। সেটা তো আমি ভুলছি না। তার মানে কি গ্রেটার ইউনিটি চিন্তার বাইরে চলে গেছে তা তো না।

মাহী : কার সঙ্গে গ্রেটার ইউনিটি, যে লোক ভদ্রতা জানে না তাঁর সঙ্গে?

মান্না : পলিটিক্সে এরকম হয়।

মাহী : এরকম পলিটিক্স আমরা করি না। রব চাচা, আমরা ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে গেলেন,আমরা আল্লাহর রহমতে বেঁচে গেলাম।

মান্না : বেঁচে গেলাম মানে কী? মানে আপনারা ঐক্য থেকে বেরিয়ে গেলেন?

মাহী : আমরা বেরিয়ে যাইনি, আমাদেরকে বের করে দিলেন আপনারা।

আপনারা মিটিং করলেন, আমাদের ডাকলেনই না। আপনারা ঘোষণা দেবেন বি চৌধুরীর সঙ্গে আলোচনা করেছেন? আপনি আমাকে বলেন, বি চৌধুরী সাহেব কামাল হোসেনের বাসায় যাবেন উনি বাসায় ছিলেনই না, একবার ফোন করে দুঃখ প্রকাশ পর্যন্ত করেননি। যৌথ ঘোষণা দেবেন আমাদের জানিয়েছেন? আমরা কিন্তু ঐক্য থেকে বেরিয়ে আসেনি। ঐক্য কে চায় না তা জাতির সামনে পরিষ্কার হয়ে গেছে।

মান্না : ঐক্য যদি চায় আপনারা আসেন তাহলে কী করবেন?

মাহী : ঐক্য তো চায় না, আজকে তো বলেই দিলেন।

মান্না : প্রেস কনফারেন্সে আপনাদের কথা বলা হয়েছে। বলা হয়েছে আপনারা আসছেন।

মাহী : সেটা তো জাতির সঙ্গে মিথ্যা কথা বলা। ওনার তো প্রেস কনফারেন্সে আসার কথা না। ওনাকে তো কেউ প্রেস কনফারেন্সে আসার কথা কেউ বলে নাই।

মান্না : প্রেস কনফেরেন্সে পরে এটাও বলা হয়েছে, যে কোনো কারণেই হোক, ভুলের কারণেই হোক উনি এখন এখানে নাই। কিন্তু আমরা তাঁকে ঐক্যের মধ্যেই ধরে আছি। উনি আমাদের সঙ্গে আছেন।

মাহী : কাদের সঙ্গে? কামাল হোসেনের নেতৃত্বে আপনারা ঐক্য করছেন। ড. কামাল হোসেন প্রধানমন্ত্রী হোওয়ার স্বপ্নে বিভোর হয়ে আছেন। ওনার নেতৃত্বে জামাতের সঙ্গে গোপন আঁতাত হবে, এগুলোর সঙ্গে আমরা থাকতে চাই না আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহ যা করেন মঙ্গলের জন্যই করেন। বাট প্রশ্ন তো সেটা না। এই বিষয়গুলো আপনারা জাতির সামনে পরিষ্কার করেই বলতেন যে উনাকে দাওয়াৎ দেওয়া হয় নাই। উনাকে না বলে আমরা চুরি করে মিটিং করছি। এগুলো বলে নাই কেন?

কামাল হোসেন উনার বাসা থেকে পালিয়ে গিয়ে অফিসে গিয়ে মিটিং করে বি চৌধুরীকে বাদ দিয়ে আমরা একটা ঐক্য করতে চাই। জামাতের সঙ্গে গোপনে গোপনে আমরা ঐক্য করতে চাই। এসব বলতেন।

মান্না : আপনি এভাবে বলছেন কেন?

মাহী : যা করছেন তাই বলতেন।

মান্না : ভালো কাজ হয়নি সেটা আমিও মানছি। তার মানে এই না যে আমরা রেগে গিয়ে বলবো আমরা অন্যায় কাজ করেছি। তাহলে প্রেস কনফারেন্সে আসছেন কেন? ওইটা তো হয় না। যেহেতু ঐক্যটা করতে চাই তাই করেছি। হ্যা, একটা কথা হলো, একটা বিভ্রান্ত্রির মধ্যেই ছিলাম।

মাহী : মান্না ভাই, আমি আপনাকে আজকে আল্লাহর কসম একটা কথা বলি। আপনাকে পছন্দ করি বলেই বলছি। আপনি হান্ড্রেড পার্সেন্ট আন্তরিক ঐক্যের ব্যাপারে। আমিও হান্ড্রেড পার্সেন্ট হান্ড্রেড পার্সেন্ট ঐক্যের ব্যাপারে আন্তরিক। কিন্তু ঐক্যের নাম দিয়ে এখানে কোনো রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্র হচ্ছে, আপনাকে দিয়ে ঘোষণাপত্র পাঠ করানো হচ্ছে, আমাকেও এখানে ঢুকানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। আজকের এই কথাটা শুধু মনে রাখবেন। আর কিছু বলবো না।

মান্না : চিন্তা করবো, আরও কথা বলবো সামনাসামনি।

মাহী : জ্বি। আমার মনে হয় একটা চক্রান্ত্রের মধ্যে আপনারা ভিক্টিম হয়ে যাচ্ছেন মান্না ভাই। আমার মনে বিশ্বাস থেকে বললাম, ঐক্য প্রক্রিয়ার নামে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এখানে আমাদের জড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছিল। আমি আল্লাহর রহমতে বেঁচে গেলাম। আপনাকে দিয়ে ঘোষণাপত্র পাঠ করানো হলো।

মান্না : না আপনি যেভাবে মনে করছেন আমি সেভাবে মনে করছি না। আজকের ঘটনার জন্য আমি মর্মাহত।

মাহী : আপনি মনে করছেন আজকের ঘটনাটা এমনি এমনি ভুলে ভুলে হয়ে গেছে? মনে হয়, এর বাইরে জাতীয়-আন্তর্জাতিক চক্রান্ত নাই?

মান্না : এমনি হয়ে গেছে ভাবছি না আবার এত বড় জিনিসও ভাবছি না।

মাহী : অনেক বড় জিনিস হয়েছে। একটুখানি নজর দিয়ে দেখার চেষ্টা করেন কারা কারা তে জড়িত। কারা কারা কামাল হোসেন ও বি চৌধুরীকে একসাথে বসতে দিল না, কারা আপনাকে দিয়ে ঘোষণাপত্র পাঠ করালো। আপনারাই বিবেচনা করে দেখেন আপনারা কীসের মধ্যে ঢুকছেন আমি কিছু বলবো না।

মান্না : আচ্ছা, আলাপ করবো।

মাহী : জি, ইনশাল্লাহ।

ফোনালাপ লিঙ্ক 


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top