Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ , সময়- ৩:০৩ অপরাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় গণসংযোগে মির্জা ফখরুল  বিতর্কিত সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ ও তাঁর রাজনীতি  প্রমাণিত হলো বিএনপি সন্ত্রাসী দল : কাদের  বিবাহবার্ষিকীতে দোয়া চাইলেন ক্রিকেট সুপারস্টার সাকিব টুঙ্গিপাড়া থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করলেন সভানেত্রী শেখ হাসিনা  খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা নিয়ে রিটের আদেশ আগামীকাল  মনোনয়নপত্র ফিরে পাচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিরো আলম নির্বাচনী প্রচার শুরু করবেন শেখ হাসিনা, ১২ ডিসেম্বর সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য ২০১৫ থেকে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট ২০৩০

ইসলামিক সম্মেলনে শূকরের মাংস, নিন্দার ঝড়


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ৩ ডিসেম্বর ২০১৮ ৫:০৭ পিএম:
ইসলামিক সম্মেলনে শূকরের মাংস, নিন্দার ঝড়

গত সপ্তাহে বার্লিনে জাতীয় ইসলামিক সম্মেলনে শূকরের সসেজ পরিবেশন করা হয়েছিল৷ একে অন্য ধর্মের প্রতি সহিষ্ণুতাবিরোধী এবং অসম্মান প্রদর্শন হিসেবে মন্তব্য করেছেন অনেকে৷ জার্মানির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অবশ্য এজন্য ক্ষমা চেয়েছেন৷

বার্লিনে জাতীয় ইসলামিক সম্মেলনের খাবারে ‘ব্লাড সসেজ' দেয়ায় তীব্র নিন্দা জানানো হয়, কেননা ইসলামে শূকরের মাংস খাওয়া নিষিদ্ধ৷ তবে কট্টরপন্থি দলগুলো এই খাবার দেয়াকে স্বাভাবিকভাবে দেখছে৷

গত বুধবার সন্ধ্যার খাবার তালিকায় অন্যান্য খাবারের সাথে ছিল শূকরের রক্তের সসেজ, শূকরের মাংস এবং বেকন৷ মন্ত্রণালয় অবশ্য নিজেদের সিদ্ধান্তকে সঠিক উল্লেখ করে বলেছে, ঐ সন্ধ্যায় বিভিন্ন দেশের ইসলামিক সংগঠনের নেতাদের পাশপাশি জার্মান সরকারের কেন্দ্রীয় এবং স্থানীয় কর্মকর্তারাও ছিলেন৷ তাঁদের কথা মাথায় রেখেই অন্যান্য খাবারের পাশাপাশি এগুলো রাখা হয়েছিল৷ 

মন্ত্রণালয় বলছে, সেদিন সন্ধ্যায় ‘বুফে' ছিল, যেখানে বিশাল খাদ্যসম্ভারের মধ্যে ছিল শাক-সবজি, মাছ, মাংস এবং হালাল অন্যান্য মাংস৷ তারা বলছে, এরপরও যদি কিছু শূকরের মাংস থাকার কারণে কারো অনুভূতিতে আঘাত লাগে, সেজন্য তারা দুঃখিত৷

তবে অনেকেই মনে করছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হোর্স্ট সেহোফার কট্টরপন্থি হওয়ায় তাঁর সিদ্ধান্তেই ব্লাড সসেজ পরিবেশন করা হয়েছে৷ চলতি বছরের মার্চেই ‘জার্মানিতে ইসলামের ঠাঁই নেই' বলে কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন তিনি৷

হ্যাশট্যাগ ব্লাড সসেজ গেট

তুর্কি-জার্মান সাংবাদিক টুনকে ওজদামার টুইটারে লিখেছেন, ‘‘যেসব মুসলমান শূকর খান না, তাঁদের প্রতি সামান্য সম্মান দেখালে সেটা অগ্রহণযোগ্য নয়৷ আমি নিজেও শূকরের মাংস খাই৷'' তিনি আরো লিখেছেন, ‘‘জার্মানিতে বহু সম্প্রদায়ের মানুষের বাস৷ তাই যেসব স্কুলে মুসলিম শিক্ষার্থীরা পড়ালেখা করছে, সেখানে শূকরের মাংস পরিবেশনে আমি খারাপ কিছু দেখি না৷ কিন্তু একটি ইসলামিক সম্মেলনে, যেখানে মুসলমানদের বিভিন্ন আলোচনায় অংশ নিতে ডেকে আনা হয়েছে, ধর্মীয় নানা কারণে নিত্যদিনকার সমস্যা সমাধানের জন্য যাঁদের কাছে আপনারা পরামর্শ চাইছেন, তাঁদের অনুভূতির প্রতি আপনাদের সম্মান দেখানো উচিত৷''

২০০৬ সালের ইসলামিক সম্মেলনেও শূকরের মাংস পরিবেশন করা হয়েছিল৷ এদিকে কট্টরপন্থি দল অলটারনেটিভ ফর জার্মানি (এএফডি) জার্মান সংস্কৃতির উপর হামলার কারণে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে দায়ী করেছে৷ টুইটারে এএফডি'র আইন প্রণেতা আলিসে ভাইডেল লিখেছেন,‘‘ব্লাড সসেজ হলো জার্মানির সুস্বাদু খাবার৷ এটা আমাদের সংস্কৃতির অংশ৷ এটাকে মেনে নেয়াটাই সহিষ্ণুতার পরিচয়৷ আমাদের দৈনন্দিন জীবন থেকে আমরা এগুলো ত্যাগ করতে পারি না৷''


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top