Projonmo Kantho logo
About Us | Contuct Us | Privacy Policy
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০১৯ , সময়- ২:৪৪ পূর্বাহ্ন
Total Visitor: Projonmo Kantho Media Ltd.
শিরোনাম
প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী হলেন ফেরদৌস ও শাহ ফরহাদ নেতাজি'কে কেন রাষ্ট্রনায়কের মর্যাদা দেওয়া হল না, ক্ষুব্ধ মমতা সাংবাদিকদের একটা করে ফ্ল্যাট দেবে সরকার আ'লীগের নিরঙ্কুশ বিজয়ের পর জনগণ শান্তিতে : কাদের ফেব্রুয়ারি মাসে বিশ্ব ইজতেমা করার সিদ্ধান্ত ডাকসু নির্বাচন, আগামী ১১ মার্চ বিশ্ব চিন্তাবিদের তালিকায় এবার শেখ হাসিনা  যুবলীগ ও আ'লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ১০ গণতন্ত্র ও উন্নয়ন একসঙ্গে চলবে : প্রধানমন্ত্রী দুদকের পরিচালক সাময়িক বরখাস্ত

পরিকাঠামো উন্নয়নে বিপুল অর্থ ঋণ দিচ্ছে চিন


প্রজন্মকণ্ঠ অনলাইন রিপোর্ট

আপডেট সময়: ২১ জানুয়ারী ২০১৯ ৯:৫০ পিএম:
পরিকাঠামো উন্নয়নে বিপুল অর্থ ঋণ দিচ্ছে চিন

বাংলাদেশের পরিকাঠামো উন্নয়নে ৭ কোটি ২৫ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার অনুদান দিচ্ছে চিন। বর্তমান বিনিময় হার অনুযায়ী বাংলাদেশি মুদ্রায় এই অর্থের পরিমাণ প্রায় ৬০৯ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও সেতু নির্মাণসহ যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে এই অর্থ ব্যয় করা হবে।

রবিবার এ বিষয়ে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সঙ্গে চিন সরকারের একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। ইআরডি সচিব মনোয়ার আহমেদ এবং ঢাকায় নিযুক্ত চিনের রাষ্ট্রদূত ঝ্যাং জু নিজ নিজ পক্ষে চুক্তিতে সই করেন।

শেরেবাংলা নগরের সিপিটিইউ ভবনের সম্মেলন কক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ইআরডি সচিব বলেন, “চিনের প্রেসিডেন্টের ঢাকা সফরের সময় ২৭টি প্রকল্পে অর্থায়নের বিষয়ে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত মাত্র পাঁচটি প্রকল্পের জন্য চূড়ান্ত ঋণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। “চলতি অর্থবছরে বিদ্যুৎ খাতের আরও দুটি প্রকল্পের চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার কথা রয়েছে।”

বাকি প্রকল্পগুলোর চূড়ান্ত ঋণ চুক্তি যাতে দ্রুত হয় সেজন্য চিনা রাষ্ট্রদূতের সহযোগিতা কামনা করেন সচিব।

রাষ্ট্রদূত ঝ্যাং জু বলেন, বাংলাদেশ চিনের অন্যতম প্রধান বন্ধু দেশের একটি। বাংলাদেশের উন্নয়নে অংশ নিতে পেরে চিন সরকার গর্ববোধ করে। বাংলাদেশে সব ধরনের উন্নয়ন সহায়তায় অংশগ্রহণ অব্যাহত রাখবেন তারা। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, চিনের অনুদানের অর্থে বাংলাদেশে একটি আন্তর্জাতিক মানের সম্মেলন কেন্দ্র (বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র) ছাড়াও আটটি সেতু (বাংলাদেশ-চিন মৈত্রী) নির্মিত হয়েছে। এছাড়াও কৃষি যন্ত্রপাতি, হাইব্রিড রাইস টেকনোলজি সহায়তা, চিকিৎসা যন্ত্রপাতি, ড্রেজার এবং কাস্টমসের জন্য স্ক্যানার সরবরাহ করে থাকে তারা।

বাংলাদেশে চিনা অনুদানে চলমান উল্লেখযোগ্য প্রকল্প হচ্ছে- পূর্বাচলে একটি বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টার নির্মাণ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে বার্ন ইউনিট নির্মাণ এবং ফায়ার সার্ভিসের জন্য মোটরসাইকেল সরবরাহ।


আপনার মন্তব্য লিখুন...

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনি
Top