প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকে ফলাফলের প্রতিফলন হতে পারে : ইসি সচিব

৮ নভেম্বরের কমিশন সভায় ৭ নভেম্বরের (প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের) বৈঠকের ফলাফলের প্রতিফলন হতে পারে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। সোমবার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে কমিশনারদের সঙ্গে বৈঠক করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের একটি প্রতিনিধিদল। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে ইসি সচিব এ কথা বলেন।

হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ৭ তারিখে একটি আলোচনা আছে, তারা সেখানে নজর রাখতে বলেছেন। তফসিল ঘোষণার এখতিয়ার একমাত্র নির্বাচন কমিশনের আছে। ৮ তারিখে তফসিলের ঘোষণার বিষয়ে যেহেতু সিদ্ধান্ত হয়ে আছে। ৮ নভেম্বরের কমিশন সভায় ৭ নভেম্বরের (প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের) বৈঠকের ফলাফলের প্রতিফলন হতে পারে।

সংলাপে সমঝোতা হলে তফসিল ঘোষণা পেছাবে কী না- এ বিষয়ে সচিব বলেন, এ বিষয়ে এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। ৮ নভেম্বর তফসিল ঘোষণা ও ডিসেম্বরে ভোটগ্রহণের প্রস্তুতি আছে।

তিনি বলেন, বৈঠকে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা বলেছেন, আগামি ৭ তারিখ (বুধবার) প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাদের আলোচনায় কী হয় তাতে লক্ষ্য রেখে সে অনুযায়ী যেন তফসিল ঘোষণা করা হয়। নির্বাচন কমিশন একটি নিরপেক্ষ প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানটি যেন সাংবিধানিকভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করেন সেটা উনারা আশা করেন। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র ও ভোটারদের নিরাপত্তা এবং পোলিং এজেন্টদের নিরাপত্তার বিষয়ে উনারা কথা বলেছেন।

হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, কমিশন উনাদের আশ্বস্ত করেছেন ভোটকেন্দ্রে ভোটার পোলিং এজেন্টদের নিরাপত্তা ইসি নিশ্চিত করবেন এবং ভোটের ফলাফল এজেন্টদের স্বাক্ষরসহ যেন প্রকাশ করা হয় সেটা উনারা দাবি করেছেন। ইসি তাদের আশ্বস্ত করেছেন পোলিং এজেন্টদের স্বাক্ষরসহ ফলাফল প্রদান করা হবে। দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিকদের ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন এবং তাদের নিরাপত্তার দাবি জানিয়েছেন। ইসি এ বিষয়ে তাদের আশ্বস্ত করেছেন।

সচিব বলেন, সেনাবাহিনী মেতায়েনের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। ইসি বলেছে এখনো তফসিল ঘোষণা হয়নি, তফসিল ঘোষণার পরে কমিশনারদের সঙ্গে বসে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। ইভিএমের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে, ইসি বলেছে সীমিত পরিসরে শহর এলাকায় ব্যবহারের পরিকল্পনা আছে। সেটাও কোন কোন কেন্দ্রে, সে বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত প্রদান করা হবে।

এদিন বিকালে ইসির সঙ্গে জেএসডির সভাপতি আ স ম রবের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা বৈঠকে বসেন। প্রতিনিধিদলে ছিলেন গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপির গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, বরকতউল্লাহ বুলু, জেএসডির আব্দুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, গণফোরামের মোকাব্বির খান প্রমুখ। অসুস্থতার কারণে ড. কামাল হোসেন এ বৈঠকে অংশ নেননি বলে জানানো হয়েছে।

অপরদিকে সিইসি কে এম নুরুল হুদার নেতৃত্বে বৈঠকে চার কমিশনার ও ইসি সচিব অংশ নেন।

পাঠকের মন্তব্য