রাজশাহীতে আ'লীগ-বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষে নিহত ১ 

সকাল আটটা থেকেই ভোট শুরু হয়েছে রাজশাহীতে। সকাল সকাল রাজশাহীর ভোটকেন্দ্রগুলোতে ব্যাপক ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। নগরীর তেরোখাদিয়া স্টেডিয়াম কেন্দ্র, গার্লস গাইড কেন্দ্র, উপশহর কামারুজ্জামান কলেজ কেন্দ্র, স্যাটেলাইট স্কুল কেন্দ্র থেকে শুরু করে নগরীর সবগুলো ভোটকেন্দ্রেই সকাল সকাল ভোটারদের ভিড় লক্ষ্য করা যায়। শান্তিপূর্ণ পরিবেশেই ভোট দিচ্ছেন ভোটাররা।

তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উত্তেজনা ছড়িয়েছে বিভিন্ন এলাকায়। রাজশাহী মহানগরীর আহমদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে পোলিং এজেন্ট বের করে দেওয়ার অভিযোগ করেন ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী মিজানুর রহমান মিনু। এছাড়া, রাজশাহী-৩ আসনের মোহনপুর উপজেলার জাহানাবাদে একটি কেন্দ্র দখলকে কেন্দ্র আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষে মিরাজ (৩২) নামের একজন নিহত হয়। এ সময় আওয়ামী লীগের পরিস্থিতি খারাপ হয়ে উঠলে পুলিশ গুলি চালায়। এতে দুইজন গুলিবিদ্ধ হন। তবে কোন পক্ষের সমর্থকরা গুলিবিদ্ধ হয়েছেন তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

রাজশাহীর পুলিশ সুপার শহীদুল্লাহ দাবি করেন, নিহত মিরাজ একজন আওয়ামী লীগের কর্মী। তিনি ইউনিয়ন পর্যায়ে রাজনীতি করেন।

পাঠকের মন্তব্য