লুইস ঝড়ের পর ওয়াহাবের হ্যাটট্রিকে কুমিল্লার জয় 

বিপিএল ষষ্ঠ আসরে খুলনা টাইটান্সকে ৮০ রানে হারিয়ে সুপার ফোরের দিকে আরও একধাপ এগিয়ে গেলো কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। এই জয়ে ঢাকাকে হটিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।
কুমিল্লার রান-পাহাড়ের চাপে পিষ্ট খুলনা

টস জিতে শুরুতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন খুলনা টাইটান্সের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। খুলনার শুরুটা ভালো না হলেও দারুণ ছিল কুমিল্লার। চোট থেকেই ফিরেই পুরনো রূপে দেখা গিয়েছে এভিন লুইসকে। শুরু থেকেই বেশ আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেন লুইস। অন্যপাশে ব্যাটিং বান্ধব উইকেটে ধীরগতির ব্যাটিং করেন তামিম ইকবাল। দুইজন মিলে প্রথম উইকেট জুটিতে গড়েন ৫৮ রান। ২৯ বলে ২৫ রান করে আউট হন তামিম।

তামিমের বিদায়ের পরের বলেই মাহমুদউল্লাহ আউট করেন এনামুল হক বিজয়কে (০)। মাঝের সময়ে লুইস রান নিতে গিয়ে চোট পেলেও সেটি কাল হয়ে দাড়ায়নি কুমিল্লার জন্য। তবে কাল হয়ে দাঁড়িয়েছিল খুলনার জন্য। চট্টগ্রামে শুরু হয় কায়েস-লুইস ঝড়। দুইজন মিলে গড়েন ৯৭ রানের জুটি। তাদের জুটি ভাঙেন শরিফুল। ৩৯ রান করা কায়েসকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন তিনি।

থিসারা ও আফ্রিদি ক্রিজে বেশিক্ষণ টিকতে না পারলেও শামসুর রহমানকে নিয়ে দলের রানের চাকা সচল রাখেন লুইস। লুইস ঝড়ের পর শুরু হয় শামসুরের ঝড়ও। শেষ পর্যন্ত দেখা পান সেঞ্চুরির। ১০৯ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন লুইস ও ২৮ রানে অপরাজিত থাকেন শামসুর।

কুমিল্লার দেওয়া ২৩৮ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালো করেন দুই ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দীকি ও ব্রেন্ডন টেলর। পাওয়ার প্লে বেশ ভালোভাবেই কাজে লাগান তারা। প্রথম উইকেট জুটিতে দাড় করান ৫৫ রান। জুনায়েদকে ফেরান স্পিনার মেহেদি। মালানও বেশিক্ষণ ক্রিজে টিকে থাকতে পারেননি। মাত্র ১৩ রান করে আফ্রিদির বলে আউট হন তিনি। খুলনার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ আশা দেখিয়েও নিরাশ করেন।

আউট হন মাত্র ১১ করে। দলের অন্যরা যখন রান পাচ্ছিলো না তখন একপাশ থেকে রান তুলতে থাকেন টেলর। ৩৩ বলে ৫০ করে আফ্রিদির বলে আউট হন তিনি। ব্র্যাথওয়েট ঝড় তোলার চেষ্টা করলেও সেটিকে থামিয়ে দেন থিসারা। তার বিদায়ের পর ১৪ করে আউট হন শান্তও। তারপর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি খুলনা। শেষদিকে তিন বলে তিন উইকেট নিয়ে হ্যাটট্রিক করেন ওয়াব রিয়াজ। খুলনার ইনিংস শেষ হয় ১৫৭ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ২৩৭-৫ (ওভার ২০)

লুইস ১০৯*, ইমরুল ৩৯: মাহমুদউল্লাহ ২-৩২

খুলনা টাইটান্স ১৫৭ (ওভার ১৮.৫)

টেলর ৫০, জুনায়েদ ২৭: ওয়াহাব ৩-১৪

পাঠকের মন্তব্য