বঙ্গবন্ধু-১ এর সেবা পেতে চায় ফিলিপাইন, নেপাল ও থাইল্যান্ড

দেশের বেসরকারি টেলিভিশনগেুলোর প্রস্তুতি গ্রহণের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সেবা গ্রহণ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ফিলিপাইন, নেপাল ও থাইল্যান্ড। সোমবার নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে এ তথ্য জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তিনি লিখেছেন, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের সেবা গ্রহণ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ফিলিপাইন নেপাল ও থাইল্যান্ড। এগিয়ে চলেছি দুর্বার। 

এ বিষয়ে বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন কোম্পানি (বিএসসিসিএল) জানিয়েছে, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের সম্প্রচার পরীক্ষা সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এখন বিভিন্ন দেশে এই স্যাটেলাইটের বাজার তৈরির চেষ্টা চলছে।

সংস্থাটির চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ জানিয়েছেন, থাইল্যান্ডের বাজার ধরতে ইতিমধ্যে সেদেশে পরামর্শক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাদের ওপর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এই স্যাটেলাইট বাজারজাতকরণে যেন তারা সহায়তা করেন। 

পরামর্শকদের মাধ্যমে ফিলিপিনে ভালো একটা অর্ডার পাওয়া গেছে জানিয়ে তিনি বলেন, নেপালের সঙ্গে এখন আমাদের কথাবার্তা হচ্ছে। নেপালের প্রতিনিধি এদেশে এসেছিলেন। শাহজাহান মাহমুদ আরও জানান, দেশের যেসব এলাকায় ব্রডব্যান্ড কিংবা মোবাইল ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক এখনো দেয়া সম্ভব হয়নি সেসব এলাকায় ভি-স্যাটের মাধ্যমে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেয়া হবে। এর মধ্যে আছে ছিটমহল এবং দ্বীপ এলাকা।

এছাড়াও এই স্যাটেলাইটের মাধ্যমে টেলিমেডিসিন, টেলিএডুকেশন দেয়ার পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি।

বিএসসিসিএল দাবি করছে, দেশ-বিদেশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের বাণিজ্যিক ব্যবহারের পাশাপাশি দেশের দুর্গম এবং প্রত্যন্ত এলাকায় ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক বিস্তৃত করার কাজ আগামী মাসে শুরু হচ্ছে। বিভিন্ন ছিটমহলসহ দুর্গম ৪০টি এলাকায় চলতি বছরের মধ্যেই স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবা পাওয়া যাবে।

প্রসঙ্গত, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ইতিমধ্যে সেবা নিতে শুরু করেছে ১০টি বাংলাদেশি টেলিভিশন। নৌ-পরিবহন, মৎস্য অধিদপ্তর এবং কৃষি বিভাগসহ ৩০টির বেশি স্থানীয় সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বিএসসিসিএল-এর সঙ্গে চুক্তি করেছে।

পাঠকের মন্তব্য