জামাত-উদ-দাওয়া নিষিদ্ধ

নতিস্বীকার করল পাকিস্তান

প্রবল চাপের মুখে নতিস্বীকার করল পাকিস্তান। পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার জেরে মুম্বই হামলার মাস্টারমাইন্ড হাফিজ সইদের সংগঠন জামাত-উদ-দাওয়াকে নিষিদ্ধ করল ইসলামাবাদ। পাশাপাশি নিষিদ্ধ করা হয়েছে জামাতের শাখা সংগঠন ফালাহ-এ-ইনসানিয়তকেও। বৃহস্পতিবার রাতে পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রক এই খবর জানিয়েছে।   

মন্ত্রকের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে জানান, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ডাকা জাতীয় নিরাপত্তা কমিটির এক বিশেষ বৈঠকে লস্কর প্রধান হাফিজের সংগঠনটিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। অর্থাৎ শেষমেশ আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পড়ে ভারতের কাছে মাথা নত করতে বাধ্য হল পাকিস্তান। প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞদের মতে জামাত-উদ-দাওয়াই বকলমে জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবা। ২০০২ সালে পাকিস্তানে লস্করকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। তারপর থেকে জামাতের নাম নিয়েই সে দেশে সমস্ত কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে হাফিজের দল। 

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ২৬/১১ হামলার পর থেকেই নয়াদিল্লি হাফিজ সইদের বিরুদ্ধে একের পর এক প্রমাণ দাখিল করে গিয়েছে। তাতেও কাজের কাজ কিছু হয়নি। জামাত-উদ-দাওয়াকে নিষিদ্ধ করা তো দূরের কথা, হাফিজের বিরুদ্ধে লোক দেখানো কিছু নাটক ছাড়া কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি ইসলামাবাদ। কয়েকদিন গৃহবন্দী রেখে ফের ছেড়ে দেওয়া হয় লস্কর প্রধানকে। এদিকে অধিকৃত কাশ্মীরে দেদার চলেছে জঙ্গি প্রশিক্ষণ। সেখানে রুটিন ভিজিটও দিচ্ছে হাফিজ। 

উল্লেখ্য, আগেই হাফিজ সইদকে বিশেষ আন্তর্জাতিক জঙ্গি ঘোষণা করেছে আমেরিকা। তা সত্ত্বেও কিন্তু এতদিন এমন পদক্ষেপ নেয়নি পাকিস্তান। ২০১২ সালে আমেরিকা এও ঘোষণা করেছিল, হাফিজ সইদের বিরুদ্ধে যথাযথ প্রমাণ দিতে পারলেই ১ কোটি মার্কিন ডলার পুরস্কার দেওয়া হবে। কিন্তু পুলওয়ামা নিয়ে যেভাবে চাপ বাড়াচ্ছে বাড়াচ্ছে ভারত তাতে বাধ্য হয়েই জামাতকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে পাকিস্তান। তবে বিশ্লেষকদের মতে ফের অন্য নাম নিয়ে জঙ্গি সংগঠনটি নিজের কাজ চালয়ে যাবে জামাত। হাফিজের বিরুদ্ধে নেওয়া পাকিস্তানের সমস্ত ব্যবস্থাই প্রহসন মাত্র।    

পাঠকের মন্তব্য