সাবেক ক্রিকেটার আলতাফ হোসেন আর নেই

সাবেক ক্রিকেটার এবং ক্রিকেট কোচিংয়ের অগ্রদূত সৈয়দ আলতাফ হোসেন আর নেই। (ইন্না লিল্লাহে .. রাজিউন)। তিনি মঙ্গলবার দিবাগত রাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৮১ বছর।

বছরখানেক ধরে শারীরিকভাবে বেশ অসুস্থ ছিলেন আলতাফ হোসেন। মাঝে কিছুদিন শারীরিক জটিলতা নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। পরে কিছুটা সুস্থ হয়ে বাসায় ফেরেন তিনি। মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে গেলে সঙ্গে সঙ্গে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৭৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত জাতীয় ক্রিকেট কোচ হিসেবে আলতাফ হোসেন বিভিন্ন পর্যায়ে দায়িত্ব পালন করেন। দেশের ক্রিকেট উন্নয়নে অবদান রাখায় ১৯৯৯ সালে তিনি জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার পান। জাতীয় দলে খেলা অনেক তারকা ক্রিকেটার বিভিন্ন ক্লাব পর্যায়ে কোচ হিসেবে আলতাফ হোসেনের কাছ থেকে ক্রিকেটীয় দীক্ষা নিয়েছিলেন। ১৯৮২ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত বেশ লম্বা সময় ধরে তিনি বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের কোচের দায়িত্বে ছিলেন।

স্বাধীনতার আগে ১৯৬১ এবং ১৯৬২ সালে আন্তঃ বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দলের হয়ে খেলেন তিনি। সেই সময়ে পাকিস্তানের জাতীয় ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপ কায়েদ-ই-আযম ট্রফিতেও পূর্ব পাকিস্তানের হয়ে খেলেছিলেন এই গুনী ক্রিকেটার।

এছাড়া বাংলাদেশ থেকে পাকিস্তান টেস্ট স্কোয়াডে ডাক পাওয়া প্রথম খেলোয়াড়টি ছিলেন তিনি। ১৯৬৫ সালে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের বিপক্ষে পাকিস্তানের ঘোষিত ১৪ জনের দলে আলতাফ হোসেন সুযোগ পেয়েছিলেন। শুধু ক্রিকেটার বা ক্রিকেট কোচই নন, আলতাফ হোসেন পাকিস্তানের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে আম্পায়ারের দায়িত্বও পালন করেছিলেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট আম্পায়ার্স অ্যান্ড স্কোরার্স এসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য ছিলেন তিনি।

জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারপ্রাপ্ত বর্ষীয়ান কোচ আলতাফ হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

আজ বুধবার বাদ জোহর রাজধানীর পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের হোসনি দালান মসজিদে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

পাঠকের মন্তব্য