রাজধানীর উন্নয়নে যা কিছু করবো, পরিকল্পিতভাবে করবো

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, মাদক নির্মূলে তরুণ সমাজকে খেলার মাঠে আসতে এবং সেজন্য খেলার মাঠগুলো সংস্কারের প্রয়োজন। শহরকে আবর্জনামুক্ত রাখতে নাগরিক হিসেবে সবার দায়িত্ব আছে। ছাদের ওপর থেকে, বাস থেকে এবং চলার পথে যেনো ময়লা না ফেলি। শহর পরিচ্ছন্ন রাখতে আমাদের নাগরিকদেরও দায়িত্ব রয়েছে। 

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর উত্তরায় সাংবাদিকদের তিনি বলেন, প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করাসহ স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনায় রাজধানীর উন্নয়ন করা হবে।

তিনি বলেন, আমাদের সুস্থ থাকতে হবে। দৈহিক ও মানসিক সুস্থতার জন্য আমাদেরকে হাঁটতে হবে, খেলতে হবে এবং পরিবারকে নিয়ে ঘরের বাইরে যেতে হবে। জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করতে হবে এবং ফুটপাত যেগুলো বেদখল হয়ে আছে, সেগুলো স্থানীয় সংসদ সদস্যদেরকে নিয়ে এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দখলমুক্ত করার চিন্তাভাবনা রয়েছে বলে জানান নবনির্বাচিত মেয়র।

গাড়ির গতি বাড়ানোর ব্যাপারে নজর থাকবে উল্লেখ করেন আতিকুল ইসলাম। তবে হাইওয়েতে কাজের ক্ষেত্রে নাগরিকের সুবিধা নিশ্চিত করা হবে।

নতুন মেয়র বলেন, যা কিছু করবো, পরিকল্পিতভাবে করবো। সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে কালেক্টিভ ওয়েতে কাজে লাগোনো হবে, জনগণ যেনো দুর্ভোগে না পড়ে। আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার দিকে বিশেষ নজর দেয়া হবে। শর্ট টার্ম, মিড টার্ম এবং লং টার্মের জন্য কী কী বিষয়ে নজর দেওয়া হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ২০১৮ সাল থেকে আমি প্রচারণা শুরু করি এবং ম্যারাথন দৌঁড়ের মতো আমি কাজ করেছি। ঢাকার অলিতে গলিতে খেটে খাওয়া মানুষেরা যেখান দিয়ে চলে, সে রাস্তাগুলোর অবস্থা খুবই খারাপ। রাস্তাগুলোকে নিয়ে একটি পরিকল্পনা করতে হবে। মশা নিধনে বর্জ্যব্যবস্থাপনা নিয়েও চিন্তা ভাবনা করার সময় এসেছে বলে জানান নবনির্বাচিত মেয়র।

পাঠকের মন্তব্য