গায়ে আগুন নিয়ে মঞ্চে অক্ষয়, জোর ধমক স্ত্রী টুইঙ্কলের !

নিজের উপস্থিতিতে স্টেজে আগুন ধরানো আক্ষরিক অর্থে নিশ্চয় একেই বলে। অনেকেই প্রথমে বিশ্বাস করতে পারেননি ভাইরাল হওয়া ছবিতে যাঁকে দেখা যাচ্ছে, তিনি আসলে অক্ষয় কুমার। সিনেপ্রেমীরা যখন অক্ষয়ের এমন সাহসিকতাকে সাবাশি দিচ্ছেন, তখন একেবারে অন্য কথা শোনা গেল স্ত্রী টুইঙ্কল খান্নার মুখে। স্বামীর এমন কাণ্ড নিয়ে রীতিমতো মশকরাই করলেন তিনি।

বর্তমান প্রজন্ম বিনোদনকেও এখন হাতের মুঠোয় রাখতে পছন্দ করেন। আর তাই স্মার্টফোনের মাধ্যমে সর্বদা নজর থাকে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে। রিয়ালিটি শো থেকে অরিজিনালস- এসবই এখন জনপ্রিয়তার শীর্ষে। আর সে কথা মাথায় রেখেই প্রথমবার ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে পা রাখছেন বলিউডের খিলাড়ি কুমার। ওয়েবসিরিজ ‘দ্য এন্ড’-এ দেখা যাবে তাঁকে। আর তার আত্মপ্রকাশে এসেই সকলকে চমকে দিলেন অক্ষয়। সাদা শার্ট ও কালো ব্লেজার পরে মঞ্চে এলেন তিনি। গোটা গায়ে দাউদাউ করে জ্বলছে আগুন। অক্ষয়ের সাহসী অবতার এর আগেও দেখেছে বি-টাউন। 

নিজের ছবির বেশিরভাগ স্টান্টই নিজের করে থাকেন তিনি। এমনকী, রিয়ালিটি শো ‘খাতরো কে খিলাড়ি’ সঞ্চালনা করার সময় অনেক স্টান্ট প্রতিযোগীদের করে দেখিয়ে দিয়েছেন তিনি। কিন্তু সারা গায়ে আগুন ধরিয়ে হাঁটতে তাঁকে এই প্রথম দেখল দর্শক। দেখেছেন স্ত্রী টুইঙ্কল খান্নাও। আর তারপরই একটি টুইটারে মজা করে স্বামীকে জোর ধমক দিয়েছেন তিনি।

বলি অভিনেত্রী লেখেন, “বুঝলাম এইভাবেই তুমি নিজের গায়ে আগুন লাগানোর চেষ্টা করেছ। বাড়ি এসো। যদি বেঁচে যাও তাহলে আমিই তোমাকে খুন করব।” টুইঙ্কলের এমন টুইটে গোটা বিষয়টি নিয়ে নেটিজেনদের আগ্রহ আরও বেড়েছে। অনেকেই অভিনেত্রীকে অনুরোধ জানিয়েছেন, অক্ষয় বাড়ি যাওয়ার পর কী হল, তা যেন অবশ্যই তিনি সকলকে জানান।

এমন স্টান্ট করে নির্ভীক অক্ষয় বলেন, “অ্যাকশনটা আমার মধ্যেই রয়েছে। আমি নিজেকে আগে স্টান্টম্যান বলি, তারপর অভিনেতা।” ‘দ্য এন্ড’ প্রসঙ্গে অভিনেতা জানান, অ্যাকশন ও থ্রিলারে ভরপুর ওয়েবসিরিজ নিঃসন্দেহে দর্শকদের মন কাড়বে। পাশাপাশি এও বলেন, ছেলে আরবই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে আসতে তাঁকে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। তাঁর আশা, ওয়েবসিরিজের মধ্যে দিয়ে দর্শকদের আরও কাছে পৌঁছে যাবেন তিনি। কিন্তু বাড়িতে স্ত্রী তাঁর সামনে কী মূর্তি ধারণ করলেন, তা জানতেই এখন বেশি কৌতূহলী নেটিজেনরা।

পাঠকের মন্তব্য