ওবায়দুল কাদেরের অবস্থা এখন আর সংকটাপন্ন নয় 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অসুস্থ ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা এখন আর সঙ্কটাপন্ন নেই বলে জানিয়েছেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

বুধবার (০৬ মার্চ) সকালে ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি। এদিকে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসার তৃতীয় দিনে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে সঙ্গে থাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসক জানিয়েছেন, ২-১ দিনের মধ্যে কৃত্রিম কার্ডিয়াক সাপোর্ট খুলে ফেলার চিন্তা করা হচ্ছে।

কিছুটা হলেও উদ্বেগ কমলো নেতাকর্মীদের; এখন আর সংকটাপন্ন নয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গেল রোববার থেকে হৃদরোগে আক্রান্ত গুরুতর অসুস্থ ওবায়দুল কাদের চিকিৎসাধীন সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে। ওই হাসপাতালে চিকিৎসার ৩ দিনের মাথায় আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে জানানো হলো, সবকিছু ঠিক থাকলে ১ সপ্তাহের মধ্যেই শুরু করা যাবে চিকিৎসার পরবর্তী ধাপ বাইপাস সার্জারি।

হানিফ বলেন, ওবায়দুল কাদেরের অবস্থা এখন আর সংকটাপন্ন নয়। কিডনিতে সামান্য ইনফেকশন আছে। এছাড়া তার বাকি সবকিছু এখন পর্যন্ত সবই ঠিক আছে। ডাক্তাররা আশা করছেন, এভাবে দ্রুত উন্নতির দিকে গেলে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই তার অবস্থা স্বাভাবিকের কাছাকাছি আসবে। এরপরে তার হার্টের ব্লকগুলো বাইপাস সার্জারির মাধ্যমে পরিষ্কার করা হবে।

ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে থাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের চিকিৎসকও ভালো খবর দিয়েছেন। আওয়ামী লীগের এ নেতার কিডনির সংক্রমণ কমে আসছে, বাড়ছে প্রত্যক্ষ শ্বাস প্রশ্বাসের মাত্রাও।

অধ্যাপক ডাক্তার আবু নাসের রিজভী বলেন, 'হার্টের কন্ডিশন খুব ভালো আছে। এভাবে অগ্রগতি হলে আগামী দুই এক দিনের মধ্যে তার শরীরে স্থাপিত কৃত্রিম যন্ত্রগুলো খুলে ফেলার চিন্তা করছেন চিকিৎসকরা। অসুস্থ হওয়ার ১ দিনের মাথায় উপমহাদেশের প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ দেবী শেঠির পরামর্শে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাওয়া হয় ওবায়দুল কাদেরকে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার হৃদযন্ত্রে ৩টি ব্লক ধরা পড়েছে।

পাঠকের মন্তব্য