এবার তৈরি হতে চলেছে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘তর্জনী’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ রেসকোর্স ময়দানে যে ঐতিহাসিক ভাষণ প্রদান করেন তা শুধু এ জাতিকে মুক্তই করেনি সাথে দিয়েছে হাজার বছর এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা। যে ভাষণ আজ স্থান করে নিয়েছে বিশ্ব ঐতিহ্যে। জাতির জনকের ঐতিহাসিক সে ভাষণ নিয়ে এবার তৈরি হতে চলেছে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘তর্জনী’। সোহেল রানা বয়াতী নামের এক তরুণ নির্মাতা নির্মাণ করতে যাচ্ছেন এ চলচ্চিত্র। ৭ই মার্চ এমনটাই ঘোষণা দিলেন এই তরুণ নির্মাতা।

সংবাদ মাধ্যমকে বয়াতী বললেন, ‘আমাদের মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু- এই দুটি বিষয়ই দেশপ্রেমের প্রধান কেন্দ্রবিন্দু। সেই ভাবনা থেকেই চেয়েছি আমার প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি হোক মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে ঘিরে। সেভাবেই চিত্রনাট্যকার আর আমি বারবার বসেছি কিভাবে মুক্তিযুদ্ধকে নতুন একটা পয়েন্ট অব ভিউ থেকে তুলে ধরা যায়। কিভাবে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শের মূল জায়গাটাকে ফোকাস করা যায়। দীর্ঘ আলোচনার মাধ্যমে আমরা সিদ্ধান্ত নিই ৭ মার্চে ভাষণ নিয়ে কাজ করার।’

নির্মাতা টিম জানায় ‘তর্জনী’ চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য করছেন শাহাদাত রাসেল। চিত্রনট্যের বিষয়ে শাহাদাত রাসএল বলেন, ‘আসলে এটা আমাদের জন্য খুব চ্যালেঞ্জিং একটা কাজ। মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু এতো বড় ক্যানভাস যে, একটা দুই ঘণ্টার চলচ্চিত্রে পুরো চিত্রটা আঁকা সম্ভব নয়। তবে আমি আর নির্মাতা চেষ্টা করছি অন্তত ৭ মার্চের ভাষণের একটা বাক্য নিয়ে কাজটা করতে। যেই বাক্যটার মধ্যেই আসলে রয়েছে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ এবং বর্তমানের পথ নির্দেশনা।’

চিত্রনাট্যের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে এমনটাই জানালেন সোহেল রানা বয়াতী। ‘তর্জনী’র কাজ শুরু হবে এপ্রিলেই। সোহেল রানা আরো জানান, সিনেমাটির শিল্পী ও কলাকুশলী সব ঠিক হলে শিগগিরই গণমাধ্যমকে বিস্তারিত জানানো হবে।

পাঠকের মন্তব্য