ওবায়দুল কাদেরের অবস্থার এখন আরও উন্নতি

সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের অবস্থার আরও উন্নতি হয়েছে।

তার সঙ্গে সিঙ্গাপুরে অবস্থানরত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের নিওরোলজির অধ্যাপক ডা. আবু নাসার রিজভী জানিয়েছেন, ওবায়দুল কাদেরের কিডনি ও রক্তে ইনফেকশনের যে সমস্যাগুলো ছিল সেগুলো এখন অনেকটা নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে।

মাউন্ট এলিজাবেথের চিকিৎসকদের কাছ থেকে ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে সর্বশেষ তথ্য জানার পর বুধবার সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন ডা. রিজভী। তিনি বলেন, তার সব প্যারামিটার দিন দিন ভালোর দিকে যাচ্ছে। তার কিডনি এখন খুবই স্টেবল। ইনফেকশনের রেট এখন অনেক কমে এসেছে। ব্লাড কাউন্ট ২৬ হাজার থেকে ১২ হাজারে চলে এসেছে। ইউরিন আউটপুটও ভালো। হার্টের অবস্থা, প্রেসার ও হার্টবিট এখন খুব ভালো।

ডা. রিজভী আরও বলেন, ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসার জন্য তার শরীরের সঙ্গে যে আর্টিফিশিয়াল ডিভাইসগুলো লাগানো রয়েছে সেগুলো দুয়েক দিনের মধ্যে খুলে ফেলার কথা ভাবছেন সিঙ্গাপুরের চিকিৎসকরা। হয়তো কালকে কিছু খুলে ফেলা হবে। আগামী শুক্রবার বাকিগুলো খুলে ফেলা হবে। এ সময় ওবায়দুল কাদেরের স্ত্রী ইসরাতুন্নেসা কাদের, সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান, সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী ও নিজাম হাজারী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহে আলম মুরাদ এবং গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানাতে বুধবার সকালে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, তিনি (কাদের) এখন আর সংকটাপন্ন অবস্থায় নেই। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে তার অবস্থা স্বাভাবিক হবে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। তার বাইপাস সার্জারি হবে। দুয়েক সপ্তাহের মধ্যে তিনি সুস্থ অবস্থায় আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন বলে আমরা আশা করছি। হানিফ বলেন, সকালে মাউন্ট এলিজাবেথে ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক পরীক্ষা হয়েছে। এ ব্যাপারে ডা. আবু নাসের রিজভী আমাদের অবহিত করেছেন। তিনি বলেন, ওবায়দুল কাদের দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবেন।

‘ওবায়দুল কাদেরকে সিঙ্গাপুরে নেয়া হলেও খালেদা জিয়াকে কেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে’- এমন প্রশ্ন তুলে বিএনপির নেতারা এটিকে বৈষম্য বলে অভিযোগ করেছেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, খালেদা জিয়া আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত একজন কয়েদি। কারাগারে যেসব কয়েদি রয়েছেন তাদের সুচিকিৎসা কেমন, কখন, কোথায়, কীভাবে হবে সেটা পুরোপুরি কারা কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করে। এ নিয়ে রাজনৈতিক দলের কোনো বক্তব্য থাকতে পারে না। খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য যেটা প্রয়োজন কারা কর্তৃপক্ষ সর্বোচ্চটাই করছে বলেও তিনি দাবি করেন।

হানিফ আরও বলেন, ওবায়দুল কাদের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও একজন মন্ত্রী। তার অবস্থা খুবই সংকটাপন্ন ছিল। চিকিৎসকদের পরামর্শক্রমে তাকে দেশের বাইরে পাঠানো হয়েছে। দেশের চিকিৎসকরা সন্দিহান ছিলেন যে, বর্তমান পরিস্থিতির চেয়ে তার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হলে দেশে তার চিকিৎসার সুযোগ থাকত না। চিকিৎসকদের মতামতের পরিপ্রেক্ষিতেই তাকে বিদেশে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এসএম কামাল হোসেন, মারুফা আক্তার পপি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ওবায়দুল কাদেরের সুস্থতা কামনায় তাঁতী লীগের দোয়া : আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সুস্থতা কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ তাঁতী লীগ। বুধবার দুপুরে ১৯ বঙ্গবন্ধু এভিনিউর মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এ দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা হারুন-অর রশীদ। এ সময় তাঁতী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. শওকত আলী, সাধারণ সম্পাদক বাবু খগেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ তাঁতী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মোজাহারুল ইসলাম সোহেলসহ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য