বড়লেখা উপজেলা নির্বাচন : আ'লীগের প্রতিদ্বন্দ্বি আ'লীগ 

মনসুর আহমদ, বড়লেখা প্রতিনিধি : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষ হতে না হতেই শুরু হয়েগেল ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে ক্ষমতাশীন আওয়ামীলীগে একাধিক প্রার্থী থাকলে নেই থাকলে বিএনপি ও জামায়াতের প্রার্থী। তাই এ নির্বাচনে বিরোধী দল না থাকায় নৌকার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন ক্ষমতাশীনদের দলীয় নেতারা।

১০টি ইউনিয়ন ১টি পৌরসভা নিয়ে বড়লেখা উপজেলা পর্যায় ক্রমে বড়লেখা উপজেলা প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন বড়লেখা ও জুড়ি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা বিএনপি নেতা আসাদ উদ্দিন বটল, তারপরে নির্বাচিত হন সাবেক ক্ষমতাশীল এমপি সাবেক চেয়ারম্যান সেই সময়ের দাপুটে আওয়ামীলীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম, বড়লেখা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আওয়ামীলীগ নেতা সিরাজ উদ্দিন এবং বিতর্কিত ২০১৪সালের নির্বাচনে জয়ী হন আরেক আওয়ামীলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম সুন্দর।

এদিকে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে ৪ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭ জন। বর্ত্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সুন্দরকে দল আবারো আ-লীগ নৌকা প্রতীকে মনোনীত করে। এতে দলের অনেকে বিষয়টি

মানতে পারেননি। ফলে নৌকার বিপক্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন সাবেক সদর ইউনিয়ন ২বারের চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা সোহেব আহমদ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সিরাজ উদ্দিন, বড়লেখা আওয়ামীলীগ পরিবারের ৩ সদস্য হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন আওয়ামীলীগ নেতা কর্মিরা, কাকে ভোট দিবেন নৌকা না সতন্ত্র, এ নিয়ে উপজেলার সর্বত্র জমে উঠেছে আলোচনার ঝড়।

আবার কেউ কেউ এ ভোটকে ভিন্ন হিসেবে নৌকা ও ঘোড়ার তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতার যুক্তি ও দেখাচ্ছেন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ২প্রার্থীর নেতা কর্মিদের মধ্য বেপক আলোচনা সমালোচনা পক্ষে বিপক্ষে লেখালেখি করতে দেখা যাচ্ছে। 

তবে বসে নেই উপজেলা আওয়ামী সিনিয়র সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সিরাজ উদ্দিন,তিনি মোটর সাইকেল প্রতীকে নির্বাচনী মাঠে ভোটযুদ্ধে প্রস্তুতি নিয়ে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ঘুরে ভেড়াচ্ছেন সাধারন ভোটারদের দোয়ারে দোয়ারে।

অপরদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি তাজ উদ্দিন (টিয়া পাখি) আওয়ামীলীগ নেতা নুর উদ্দিন (তালা) বর্তমান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বিতর্কিত ২০১৪সালের নির্বাচনে জয়ী হওয়া বিবেকান্দ দাস নাটু (টিউবওয়েল) সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আজিজুর রহমান (চশমা) মাঠ পর্যায়ে ভোটারদের আলোচনায় শুনা যাচ্ছে তাজ উদ্দিন (টিয়া পাখি) ও নূর উদ্দিন (তালা) প্রতীকের নির্বাচন অবশেষে জমে উঠবে।

অন্যদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান মহিলা ২বারের ভাইস চেয়ারম্যান বিএনপি নেত্রী রেহানা বেগম হাছনা (পদ্ম ফুল), আওয়ামীলীগ নেত্রী ফারহানা (সিলিং ফ্যান)  আরেক আওয়ামীলীগ নেত্রী মুন্না মনি (ফুটবল) বিএনপি নেত্রী আমিনা বেগম ডলি (হাস) সহ আরো ৩জন মোট ৭জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়বেন  সাধারণ ভোটারদের আলোচনায়  দলমত নির্বিশেষে রেহানা বেগমের নাম শুনা যাচ্ছে সর্বত্র।

বড়লেখা উপজেলায় প্রায় ১লক্ষ ৬৮হাজার ভোটার আছে, বিতর্কিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সাধারণ জনগণ  ভোটের আস্থা হারিয়ে ফেলেছে, হাজার হাজার মানুষের নির্বাচনে অনুপ্রস্তিতি গঠতে পারে সাধারণ জণগন মনে করছেন, এই নিয়ে নির্বাচনে প্রার্থীরা চরম বিপাকে,তবে শেষ অবধি এই নির্বাচনে সাধারণ জনগণের উপস্থিতি কেমন হবে তা এখনো বলা যাচ্ছে না।

পাঠকের মন্তব্য