শুটিং ফ্লোরেই কেঁদে ফেলেন সানি লিওন, জানেন কেন ?

সানি লিওন

সানি লিওন

প্রথম পর্বে দর্শকের মনে অনেক প্রত্যাশা জাগিয়েছিল ‘করেনজিত কউর: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’। কিন্তু ওয়েব সিরিজটি মুক্তি পাওয়ার পর বেশ হতাশ হতে হয়েছিল দর্শকদের। কারণ সেখানে করেনজিতের গল্পই ছিল। সানি লিওনের কথা ছিল নাম মাত্র। তবে সানি আশ্বাস দিয়েছিলেন সিরিজের দ্বিতীয়ভাগে সানির জার্নি দেখানো হবে। এবার শুটিংয়ের কথা যত প্রকাশ্যে আসছে, মনে হচ্ছে সত্যিই এবার সানির গল্পই দেখাবে ‘করেনজিত কউর: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’।

ওয়েব সিরিজের ফাইনাল সিজনের শুটিং শুরু হয়েছে। শোনা গিযেছে, শুটিংয়ের সময় শট দিতে গিয়ে নাকি কেঁদে ফেলেছিলেন সানি লিওনে। কেন? অ্যাডাল্ট ফিল্মে তো বহুদিন কাজ করেছেন সানি। কাহিনিও তো তাঁর অজানা নয়, নিজের জীবনের গল্প। এমন কোনও শটও নেই যা করতে অশালীন লেগেছে তাঁর। তাঁকে না জানিয়ে তো আর চিত্রনাট্য লেখা হয়নি। ফলে এমন কোনও শটও তাতে ছিল না। তাহলে এমন কী হল? 

শোনা গিয়েছে, সানির জীবনে এমন অনেক কথা রয়েছে যা তিনি আবার মনে করতে চান না। অনেক নাটকীয়তায় ভরপুর তাঁর জীবন। এরোটিক ইন্ডাস্ট্রি থেকে তাঁকে যখন তুলে এনেছিল ভাট ক্যাম্প, তখন তাঁর পরিচয় পর্নস্টারই। তিনি যতই নিজেকে মডেল হিসেবে তুলে ধরুন না কেন, পর্ন ইন্ডাস্ট্রির এক নম্বর নায়িকাকে চেনা তকমা দিয়ে দিতে কসুর করেননি বলিপাড়া। সেখান থেকে অভিনেত্রী হয়ে উঠতে সানিকে যত না অভিনয়ে কসরত করতে হয়েছে, তার থেকে বেশি পেরোতে হয়েছে সামাজিক ও মানসিক বাধা। পর্ন দুনিয়া তিনি পিছনে ফেললেও, সে দুনিয়ার বাইরে তাঁকে কেউ ভাবতেই নারাজ ছিলেন।

কিন্তু নিজের জীবন পর্দায় দেখাতে গেলে তো আর লুকিয়ে-চুরিয়ে করা যায় না। ফলে সব ঘটনাই খোলসা করতে হয়েছে সানিকে। তাই এমন কিছু কথা বেরিয়ে এসেছে যা চোখে জল এনেছে সানির। আবেগ সংবরণ না করতে পেরে শুটিং ফ্লোরেই কেঁদে ফেলেন অভিনেত্রী। 

তিনি জানিয়েছেন, তাঁর মা মারা যাওয়ার পর বাবার ক্যানসার ধরা পড়ে। কিছুদিন পর তিনিও মারা যান। তারপর বিয়ে করেন সানি। ভারতে আসেন। টেলিভিশনে কাজ করেন। একসঙ্গে অনেক ঘটনা ঘটেছে তাঁর জীবনে। সেসবের পুনরাবৃত্তি হলে নিজেকে ঠিক রাখতে পারেন না সানি।

পাঠকের মন্তব্য