ফখরুলের বাবা শান্তি কমিটির, আসিফের বাবা রাজাকার

সাবেক বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক

সাবেক বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বাবা ১৯৭১ সালে শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক। একই সঙ্গে তিনি দাবি করেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক আসিফ নজরুলের বাবা বিহারি এবং একজন খাস রাজাকার ছিলেন।

শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে ‘উন্নয়ন, গণমাধ্যমের ভূমিকা ও মানবাধিকার’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে সাউথ এশিয়ান লইয়ার্স ফোরাম (এসএএলএফ)।

গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সুবর্ণচরে ধর্ষণের ঘটনা ও ফেনীর নুসরাতের ঘটনার পেছনে কারা আছে তা তুলে ধরুন। আপনারা ঘটনার দিন নিউজ করেই শেষ করবেন না। ২০০১ সালে পূর্ণিমাকে ধর্ষণ করা হয়। আমরা শুধু তার নামই জানি। কিন্তু বিএনপি-জামায়াতের আমলে পূর্ণিমা ছাড়াও আরও শত শত মেয়ে ধর্ষিত এবং হিন্দুদের খুন করা হয়েছিল। 

কিন্তু তাদের আমলে একটি মামলাও করা হয়নি। পরে হাইকোর্টের নির্দেশে তদন্ত কমিশন গঠন করা হয়েছিল। শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বলেন, জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন এ কথা আমার মতো অনেকেই বিশ্বাস করেন না। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুকে খুন করলেন। আমি বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় প্রসিকিউশনে এবং ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলের দায়িত্বে ছিলাম। যেসব সাক্ষী পেয়েছিলাম তাতে স্পষ্ট বঙ্গবন্ধু হত্যার মূল নায়ক জিয়াউর রহমান ও দ্বিতীয় খন্দকার মোশতাক।

সংগঠনের সভাপতি শেখ সালাহউদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন সুপ্রিম কোর্টেন সিনিয়র আইনজীবী আব্দুর নুর দুলাল, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক, শেখ সাইফুজ্জামান জামান, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. আলী জিন্নাহ প্রমুখ।

পাঠকের মন্তব্য