কিশোরী শ্যালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার দুলাভাই

কিশোরী শ্যালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার দুলাভাই

কিশোরী শ্যালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার দুলাভাই

কিশোরী শ্যালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন দুলাভাই জাকির মিয়া (২৮)। সোমবার দুপুরে ওসমানীনগর উপজেলার সাদিপুর ইউপির লামা গাভুরটিকি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
ওইদিন বিকেলেই জাকির মিয়াকে গ্রেপ্তার করে ওসমানীনগর থানা পুলিশ। এ ঘটনায় কিশোরীর মা সোমবার রাতে জাকিরকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ওসমানীনগর থানায় একটি (মামলা নং-০৯) করেছেন।

এদিকে সোমবার সন্ধ্যায় পুলিশ ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠায়।

পুলিশ ও নির্যাতিতা কিশোরীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, পিতৃহীন দরিদ্র পরিবারের কিশোরীর মা সোমবার সকালে মেয়েকে বাড়িতে একা রেখে গ্রামের অন্য লোকের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করতে যান। দুপুর দেড়টার দিকে কিশোরীর দূরসম্পর্কের দুলাভাই একই গ্রামের আব্দুস ছালামের ছেলে জাকির মিয়া (২৮) তাদের বাড়িতে আসে। এসময় ঘরে আর কেউ না থাকার সুযোগে এই কিশোরীকে জাকির মিয়া ধর্ষণ করে পালিয়ে যান। ঘটনার পরপর কিশোরীর মা বাড়িতে এসে ধর্ষণের বিষয়টি জানতে পারেন।

কিশোরীর মা কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমি গরিব। মানুষের বাড়িতে কাজ করে মেয়েকে নিয়ে চলছি। আমার কিশোরী মেয়েকে একা বাড়িতে রেখে অন্য জায়গায় কাজ করতে গেলে এ সুযোগে লম্পট জাকির আমার মেয়ের এই সর্বনাশ করেছে। আমি তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

ওসমানীনগর থানার ওসি এসএম আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধর্ষণের সাথে জড়িত জাকিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। নির্যাতিতাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য