দেশ পরিচিতি : ব্রুনাই, ব্রুনাইয়ের রাষ্ট্রীয় ধর্ম ইসলাম 

দেশ পরিচিতি : ব্রুনাই, ব্রুনাইয়ের রাষ্ট্রীয় ধর্ম ইসলাম 

দেশ পরিচিতি : ব্রুনাই, ব্রুনাইয়ের রাষ্ট্রীয় ধর্ম ইসলাম 

দেশের নাম : ব্রুনাই।
রাষ্ট্রীয় নাম : নেগারা ব্রুনেই দারুস সালাম (the sultanate of Brunei)
রাজধানী : বন্দর সেরী বেগওয়ান।

রাষ্ট্রপ্রধান : সুলতান হাসসান আল বলকিয়াহ।
ধর্ম : ১০০% মুসলমান।

ভৌগোলিক অবস্থান : বোর্নিওর উত্তর-পশ্চিম উপকূলীয় দেশ ব্রুনাই। দেশটি দক্ষিণ ও পূর্বে সারাওয়াক রাজ্য দ্বারা বেষ্টিত। পশ্চিম ও উত্তরে দক্ষিণ চীন সাগর।

আয়তন : ব্রুনাইয়ের মোট আয়তন ৫,৭৬৫ বর্গ কিলোমিটার।
জনসংখ্যা : ২০১১ সালের গণনা অনুযায়ী এর জনসংখ্যা প্রায় ৩ লক্ষ।
ভাষা : সরকারী ভাষা মালয়, তবে অন্যান্য কাজে ইংরেজি ভাষার প্রচলন রয়েছে।
রাষ্ট্রধর্ম : ব্রুনাইয়ের রাষ্ট্রীয় ধর্ম ইসলাম।

মুদ্রা : ব্রুনাই ডলার। ১মার্কিন ডলার = ১.৯৩ ব্রুনাই ডলার।
আন্তর্জাতিক সম্পর্ক : ব্রুনাই জাতিসংঘ, কমনওয়েলথ এবং আসিয়ানের সদস্য।

কৃষি সম্পদ : ব্রুনাইয়ের কৃষিদ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ধান, কলা ও অন্যান্য ফলমূল। গবাদিপশু সম্পদের মধ্যে রয়েছে গরু, মহিষ, শূকর এবং হাঁস-মুরগি।

বনজ সম্পদ : দেশের অধিকাংশ এলাকা জুড়েই রয়েছে বনাঞ্চল। এসব বনাঞ্চলে মূল্যবান কাঠ পাওয়া যায়। কাঠের বার্ষিক গড় উৎপাদন ৩লক্ষ কিউবিক মিটার।

শিল্প ও বাণিজ্য : ব্রুনাই প্রাথমিক পর্যায়ে তেল শিল্পের উপর নির্ভরশীল। দেশের মোট কর্মজীবীদের ১০% ভাগ এ শিল্পে কর্মরত। অন্যান্য শিল্পের মধ্যে রয়েছে রাবার, কাগজ এবং কাঠ শিল্প। এছাড়া কুটির শিল্পের মধ্যে রয়েছে নৌকা তৈরি, বস্ত্র বুনন, তামা ও ইস্পাতের বাসনপত্র ইত্যাদি।

চতুর্দশ শতাব্দী হতে উনবিংশ শতাব্দী পর্যন্ত ব্রুনাইয়ের সুলতান ব্রুনাইকে শাসন করছে। এই অঞ্চলটি বোর্নিও এর উত্তরাঞ্চল এবং ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চল পর্যন্ত বিস্তৃত।ইউরোপিয়ানরা ধীরে ধীরে এই আঞ্চলিক ক্ষমতা অবসানে প্রভাব খাটায়। পরে স্পেনের সাথে একটি ছোট যুদ্ধ হয়, যেখানে  ব্রুনাই জয় লাভ করে। এই ব্রুনাই সম্রাজ্ঞ্য উনবিংশ্ব শতাব্দীতে দ্রুত লোপ পেতে থাকে যখন তারা সারাওয়াক এর সাদা রাজাদের কাছে বিরাট সংখক ভূমি হারায়, যার ফলস্রুতিতে এটি একটি দুইজায়গায় বিচ্ছিন্ন একটি ছোট অঞ্চলে পরিণত হয়। ব্রুনাই ১৮৮৮ থেকে ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত ব্রিটিশদের আশ্রিত রাজ্য হিসেবে ছিল।

ব্রুনাই (মালয় ভাষায় : Negara Brunei Darussalam) দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার একটি রাষ্ট্র। এটি একটি রাজতান্ত্রিক ইসলামী দেশ। দেশটি বোর্নিও দ্বীপের উত্তর উপকূলে অবস্থিত। এর উত্তরে দক্ষিণ চীন সাগর, এবং বাকী সব দিকে মালয়শিয়া। ব্রুনাই তেল সম্পদে সমৃদ্ধ একটি ধনী রাষ্ট্র। ১৯৬০-এর দশকের শেষ দিকে এটি এই অঞ্চলের একমাত্র দেশ হিসেবে ব্রিটিশ উপনিবেশ হিসেবে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। ১৯৮৪ সালে এসে দেশটি স্বাধীন হয়।

ব্রুনাই দুইটি আলাদা এলাকা নিয়ে গঠিত। এদের মধ্যে পশ্চিমেরটি বৃহত্তর। দুই এলাকাতেই সমুদ্র বন্দর আছে। তবে দুইটিকেই মালয়শিয়ার সারাওয়াক প্রদেশ ঘিরে রেখেছে। বন্দর সেরি বেগাওয়ান ব্রুনাইয়ের রাজধানী। ব্রুনাইয়ের আয়তন মাত্র ৫,৭৬৫ বর্গকিলোমিটার।

রাজনীতি : ব্রুনাইয়ের রাজনীতি একটি পরম রাজতন্ত্র কাঠামোতে সংঘটিত হয়। ব্রুনাইয়ের সুলতান হলেন একাধারে রাষ্ট্র ও সরকারের প্রধান। সরকারের হাতে নির্বাহী ক্ষমতা ন্যস্ত। ব্রুনাইয়ে ২০ সদস্যবিশিষ্ট একটি আইন প্রণয়ন কাউন্সিল আছে, তবে এর সদস্যেরা আইন প্রণয়নে কেবল পরামর্শদাতা হিসেবে কাজ করেন। ১৯৫৯ সালের সংবিধান অনুযায়ী পাদুকা সেরি বাগিন্দা সুলতান হাজি হাসানাল বোলকিয়াহ মুইযাদ্দিন ওয়াদ্দাউল্লাহ হলেন দেশের প্রধান। ১৯৬০-এর দশকে একটি বিপ্লবের পর থেকে ব্রুনাইয়ে মার্শাল ল' জারি হয়ে আছে।

প্রশাসনিক অঞ্চলসমূহ : মালয় ভাষা ও ইংরেজি ভাষা ব্রুনাইয়ের সরকারি ভাষা। ব্রুনাইয়ের অর্ধেকেরও বেশি লোকের মাতৃভাষা মালয় ভাষা। অন্যদিকে ইংরেজি মাতৃভাষী লোকের সংখ্যা হাজার দশেক। এখানকার প্রায় ১২% লোক চীনা ভাষার বিভিন্ন উপভাষাতে কথা বলেন। এছাড়াও বেশ কিছু সংখ্যালঘু ভাষা প্রচলিত। মালয় ভাষা দেশটির সার্বজনীন ভাষা বা লিঙ্গুয়া ফ্রাংকা, তবে ইদানীং পর্যটন ও বাণিজ্যে ইংরেজি ভাষার প্রসার বেড়েছে।

সংস্কৃতি : ব্রুনাইয়ের সংস্কৃতি দৃঢ়ভাবে মালে সংস্কৃতির এবং ইসলামী ধর্ম দ্বারা প্রভাবিত। ইসলাম ব্রুনাইয়ের সরকারী ধর্ম এবং ব্রুনেই ২০১৪ সাল থেকে শরিয়া আইন বাস্তবায়ন করেছে।

পাঠকের মন্তব্য