সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত

সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন

সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন

একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশনে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে। অর্থাৎ মাত্র ৫ কার্য দিবস চলবে দ্বিতীয় এই অধিবেশন। বৃহস্পতিবার স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে কার্য উপদেষ্টা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বৈঠকে কমিটি সদস্য এবং সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অংশগ্রহণ করেন। 

নিয়ম রক্ষার দ্বিতীয় এই অধিবেশন শেষে আগামী জুনে শুরু হবে নতুন সরকারের প্রথম বাজেট অধিবেশন। বাজেট অধিবেশনটি হবে দীর্ঘ। তবে প্রয়োজনে দ্বিতীয় অধিবেশনের মেয়াদ স্পীকার পরিবর্তন করতে পারবেন। কমিটির সদস্য রওশন এরশাদ, আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, রাশেদ খান মেনন, হাসানুল হক ইনু,, মো: ফজলে রাব্বী মিয়া, আনিসুল হক, আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং নূর-ই-আলম চৌধুরী বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

বৈঠকের শুরুতে শ্রীলঙ্কায় সংঘটিত গীর্জা ও হোটেলে সিরিজ বোমা হামলায় নিহতদের স্মরণে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়। সাবেক মন্ত্রী, জাতীয় সংসদের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি’র নাতি শিশু জায়ান চৌধুরীর নির্মম মৃত্যুতেও শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে কমিটি। এ অধিবেশনে ১৪৭ বিধিতে জঙ্গী ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সাধারণ আলোচনার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

বৈঠকে জানানো হয়, একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশনে সংসদে উত্থাপণের জন্য এ পর্যন্ত ১টি সরকারি বিলের নোটিশ পাওয়া গেছে। এছাড়া গত অধিবেশনে অনিস্পন্ন ৫টি বিলসহ মোট ৬টি সরকারি বিল রয়েছে। পাশের অপেক্ষায় ৩টি, কমিটিতে পরীক্ষাধীন ২টি ও উত্থাপনের অপেক্ষায় ১টি সরকারি বিল রয়েছে। বেসরকারি সদস্যদের কাছ থেকে কোনো বিলের নোটিশ পাওয়া যায়নি। পূর্বে প্রাপ্ত ও অনিষ্পন্ন একটি বেসরকারি বিল রয়েছে।

বৈঠকে জানানো হয়, দ্বিতীয় অধিবেশনে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর জন্য ৪৪টি ও সাধারণ প্রশ্ন ১০৪০টিসহ প্রাপ্ত মোট ১০৮৪টি প্রশ্ন পাওয়া গেছে। সিদ্ধান্ত প্রস্তাব (বিধি ১৩১) ১০৪টি, বিশেষ অধিকার প্রশ্নের নোটিশের সংখ্যা (বিধি ১৬৪) একটি, মনোযোগ আকর্ষণের নোটিশ (বিধি ৭১) ৮৮টি ও সংক্ষিপ্ত আলোচনার (বিধি ৬৮) দুইটি নোটিশ পাওয়া গেছে। সংসদের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান বৈঠকের কার্যপত্র উপস্থাপন করেন।

পাঠকের মন্তব্য