গাজীপুর টঙ্গীতে কুখ্যাত শীর্ষ সন্ত্রাসী ইসমাইল গ্রেফতার

গাজীপুর টঙ্গীতে কুখ্যাত শীর্ষ সন্ত্রাসী ইসমাইল গ্রেফতার

গাজীপুর টঙ্গীতে কুখ্যাত শীর্ষ সন্ত্রাসী ইসমাইল গ্রেফতার

টঙ্গী থেকে রেজাউল কবির রাজিব : টঙ্গীর শীর্ষ সন্ত্রাসী, হত্যা, চাঁদাবাজী ও একাধিক মামলার আসামী সন্ত্রাসী ইসমাইল হোসেনকে অবশেষে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে গাজীপুর মেট্রোপলিটনের টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশ। 

বুধবার সন্ধ্যায় টঙ্গীর আউচপাড়া সুরতরঙ্গ রোড এলাকা থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেন। সন্ত্রাসী ইসমাইলের পিতার নাম আবুল কাশেম ভাল্লুইকা। সন্ত্রাসী মামলায় দীর্ঘদিন জেলে থাকার পর গত এক সপ্তাহ আগে জামিনে মুক্তি পেয়ে সন্ত্রাসী ইসমাইল হোসেন কয়েকজনকে কুপিয়ে আহত এবং এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে। তার বিরুদ্ধে কেউ থানা পুলিশে অভিযোগ না করায় সে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে। 

এলাকায় চাঁদাবাজী ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালিয়ে জনজীবন অতিষ্ঠ করে তোলে। তার সন্ত্রাসী কার্যকলাপের অভিযোগ স্থানীয় একটি কলেজের অনুষ্ঠানে গাজীপুর পুলিশ কমিশনার আনোয়ার হোসেনের উপস্থিতিতে দৃষ্টিগোচর করেন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তার বোন গাজীপুর মহানগর মহিলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আয়শা আক্তার আশা স্থানীয় নতুন বাজার আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৫৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাসির উদ্দিন মোল্লাকে লাঞ্ছিত করে। এতে স্থানীয় আওয়ামীলীগ সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক, সাধারণ সম্পাদক রজব আলী প্রতিবাদ করলেও তার তোপের মুখে তারাও রেহায় পায়নি। এতে উপস্থিত নেতাকর্মীরা আয়শা আক্তার আশার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে স্থানীয় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীসহ গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. আজমত উল্লা খান ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলমকে অবগত করেন। 

পরবর্তীতে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ হন্যো হয়ে সন্ত্রাসী ইসমাইল হোসেনকে খুঁজছিল। তার গ্রেফতারের খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে জনমনে স্বস্তি ফিরে আসে। এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে টঙ্গী পশ্চিম থানার ওসি এমদাদ হোসেন জানান, সন্ত্রাসী ইসমাইল হোসেনকে একাধিক সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী ও হত্যা মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে। ইতিপূর্বে তাকে এসব মামলায় কয়েকবার গ্রেফতার করা হলেও জামিনে বার বার ছাড়া পেয়ে পুনরায় এলাকায় সন্ত্রাসী কার্যকলাপ শুরু করে। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের বিশেষ নির্দেশনায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পাঠকের মন্তব্য