ফণীর তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড ওড়িশা, ছবি প্রকাশ নাসার

ফণীর তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড ওড়িশা

ফণীর তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড ওড়িশা

ফণীর তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড ওড়িশা। বাড়িঘর তছনছ তো হয়েইছে, একাধিক জায়গায় আজও স্বাভাবিক হয়নি বিদ্যুৎ সরবরাহ। ফণী রাজ্য থেকে বিদায় নেওয়ার এক সপ্তাহ পরেও পরিস্থিতি যে তিমিরে ছিল, সেই তিমিরেই। নাসা সম্প্রতি একটি ছবি প্রকাশ করেছে। ছবিটি বর্তমান ভুবনেশ্বর ও কটকের। ছবিতেই দেখা গিয়েছে এখনও ছন্দে ফেরেনি ওড়িশা। বিমানবন্দর থেকে রেলস্টেশন, এখনও একাধিক জায়গা অন্ধকারাচ্ছন্ন।

বুধবার নাসার তরফে জানানো হয়েছে, ওড়িশার যেসব জায়গাগুলিতে ফণী প্রভাব ফেলেছিল, সেই সব জায়গার ছবি এটি। ৩০ এপ্রিল, ফণীর আগে ওড়িশার ছবি আর ৫ মে ফণীর তাণ্ডবের পর ওড়িশার ছবির মধ্যে তুলনা করলে দেখা যাচ্ছে, ঘূর্ণিঝড়ে প্রচুর ট্রান্সমিটার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রায় ১ লক্ষ ৫৬ হাজার পোল পুনরায় তৈরি করতে হবে।

৩ মে ওড়িশায় আছড়ে পড়েছিল ঘূর্ণিঝড় ফণী। সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল পুরী ও খুরদা রোড। পূর্ব নির্ধারিত সময়ের ঘণ্টাতিনেক আগেই স্থলভাগে ঢুকে পড়ে প্রবল শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়৷ ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয় ওড়িশার অন্তত ১১টি জেলা৷ বহু কাঁচা বাড়ির চাল উড়ে যায়৷ প্রবল ঝড়ে উড়ে যায় কারও কারও বাড়ি বা হোটেলের জলের ট্যাঙ্ক৷ বহু জায়গায় উপড়ে যায় গাছপালা৷ গোটা পুরীজুড়েই ব্যাহত হয়ে যায় বিদ্যুৎ সংযোগ৷ ইন্টারনেট পরিষেবাও ব্যাহত৷ এখনও পর্যন্ত রাজ্যে ৩০ জনেরও অধিক মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। ওড়িশা সরকারের তরফে জানানো হয়েছে ১২ মে-র মধ্যে সম্পূর্ণ স্বাভাবিক হয়ে যাবে পরিষেরা। তবে নাসার ছবি প্রকাশিত হওয়ার পর মনে হচ্ছে, ছন্দে ফিরতে আরও সময় লাগবে ওড়িশার।

পাঠকের মন্তব্য