আমরণ অনশনে বসেছেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা 

আমরণ অনশনে বসেছেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা 

আমরণ অনশনে বসেছেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা 

গভীর রাতে হামলার শিকার হয়ে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা আমরণ অনশনে বসেছেন রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে। শনিবার গভীর রাতে তারা হামলার শিকার হন। বিতর্কিত নেতাদের বিষয়ে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে তথ্য দিতে গিয়ে এ হামলার শিকার হয়েছেন বলে জানিয়েছেন পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবিতে অনশন কর্মসূচি পালন করছেন তারা।

জানা যায়, গতকাল দিবাগত রাত ২টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর রাত তিনটা থেকে বৃষ্টিতে ভিজেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশন করছেন তারা।

পদবঞ্চিতরা জানান, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী প্রত্যাশিত পদ না পাওয়া নতুন কমিটির সংস্কৃতিবিষয়ক উপসম্পাদক লিপি আক্তারকে আপত্তিকর কথা বললে তিনি প্রতিবাদ জানান। এর জের ধরে সেখানে উপস্থিত গোলাম রাব্বানীর কর্মীরা লিপিসহ পদবঞ্চিত কয়েকজনকে মারধর করেন।

এছাড়া মারধরের শিকার হয়েছেন নতুন কমিটির সংস্কৃতিবিষয়ক উপসম্পাদক নিপু ইসলাম তন্বী, তিলোত্তমা শিকদার, বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ফরিদা পারভীন ও সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী শায়লা, শামসুন নাহার হল শাখার সাধারণ সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তা, সাবেক কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপসম্পাদক এমদাদ হোসেন সোহাগ, সাবেক কেন্দ্রীয় সহসম্পাদক আজমীর শেখ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক উপ-প্রচার সম্পাদক শেখ আব্দুল্লাহসহ কয়েকজন।

পরে ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক টিএসসি থেকে বেরিয়ে রাজু ভাস্কর্যের সামনে আসেন। তারা ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের অবস্থান ছেড়ে হলে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেন ও সবকিছুর সুষ্ঠু সমাধানের কথা বলেন। তাদের ওপর হামলার ঘটনায় দুঃখও প্রকাশ করেন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক।

তবে পদবঞ্চিতরা সে প্রতিশ্রুতি মানতে পারেননি। তারা মারধরের বিচার দাবি করে তাদের চলে যেতে বলেন। পদবঞ্চিতরা জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস না পেলে তারা অনশন ও অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন।

পাঠকের মন্তব্য