বাঁশখালীতে ছাত্রকে বলাৎকার, মাদ্রাসা শিক্ষক আটক 

বাঁশখালীতে মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকার, মাদ্রাসা শিক্ষক আটক 

বাঁশখালীতে মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকার, মাদ্রাসা শিক্ষক আটক 

প্রতিনিধি, বাঁশখালী, চট্টগ্রাম : বাঁশখালীতে এক মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে তাঁর ছাত্রকে (৭) বলাৎকারের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি জানাজানি হলে ওমর ফারুক (৩০) নামের ওই মাদ্রাসা শিক্ষককে পিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেন এলাকাবাসী। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ওই মাদ্রাসা শিক্ষককে বাঁশখালী পৌরসভার আশকরিয়া পাড়া থেকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে গত বুধবার রাত একটার দিকে ওই মাদ্রাসাছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগ রয়েছে। ঘটনার এক দিন পর শিশুটি তার মাকে জানায়। এরপর বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ওই মাদ্রাসাছাত্র এখন পুলিশের হেফাজতে রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রমতে জানা যায়, শিশুটি ওই মাদ্রাসায় অবস্থান করে লেখাপড়া করত। শিশুটি জানিয়েছে, গত বুধবার দিবাগত রাত একটার দিকে তাকে মাদ্রাসায় একা পেয়ে জোরপূর্বক বলাৎকার করেছেন মাদ্রাসা শিক্ষক ওমর ফারুক। পরে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে গতকাল রাত আটটার দিকে ওমর ফারুককে আটক করে পিটুনি দেন স্থানীয় লোকজন। পরে তাঁকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

বাঁশখালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কামাল উদ্দিন বলেন, এ বিষয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। মাদ্রাসাশিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

পাঠকের মন্তব্য