১৬৯ কোটি টাকা বরাদ্দ পেলো পাটকল শ্রমিকরা 

১৬৯ কোটি টাকা বরাদ্দ পেলো পাটকল শ্রমিকরা 

১৬৯ কোটি টাকা বরাদ্দ পেলো পাটকল শ্রমিকরা 

বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধে সরকার ১৬৯ কোটি ১৪ লাখ টাকা ‘থোক বরাদ্দ’ দিয়েছে পাটকল শ্রমিকদের। ই ‘অপারেশন লোনের’ টাকা দিয়ে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ও ঈদ বোনাস দেওয়া হবে। সোমবার (২৭ মে) অর্থ মন্ত্রণালয় এ অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয়। পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শ্রমিকদের নিজস্ব ব্যাংক অ্যাকাউন্টে চেকের মাধ্যমে এ অর্থ দেওয়া হবে।

বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশনের (বিজেএমসি) অধীনে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও খুলনা অঞ্চলে ২৭টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল রয়েছে। এতে প্রায় ৮০ হাজার শ্রমিক কাজ করেন।

দীর্ঘদিন ধরে বেতন-ভাতা বকেয়া থাকায় নয় দফা দাবিতে বেশ কিছুদিন ধরে আন্দোলন করে আসছেন দেশের বিভিন্ন স্থানে পাটকল শ্রমিকরা। অর্থ বরাদ্দ দিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে বলা হয়, আগামী ২০ বছরে ৫ শতাংশ সুদে প্রতি ছয় মাসের কিস্তিতে বিজেএমসিকে এই অর্থ শোধ করতে হবে। এজন্য অর্থ বিভাগের সঙ্গে বিজেএমসিকে একটি ঋণ চুক্তি করতে হবে।

চিঠিতে বিশেষভাবে বলা হয়েছে, বরাদ্দ দেওয়া অর্থ কেবল শ্রমিকদের বকেয়াসহ মজুরি এবং উৎসব ভাতা হিসেবে পরিশোধ করতে হবে। লোকসানি প্রতিষ্ঠান হওয়ায় বিজেএমসির (বাংলাদেশ জুট মিল করপোরেশন) কাছে এতদিন শ্রমিকদের বেতন ও ভাতা দিতে ভরসা পাচ্ছিল না সরকার। ফলে সরকারি কোষাগার থেকে সরাসরি শ্রমিকদের নিজস্ব অ্যাকাউন্টে টাকা জমা দেওয়া হবে বলে আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অর্থ মন্ত্রণালয় এই অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে।

শ্রমিকদের দাবির মধ্যে রয়েছে, সরকার ঘোষিত জাতীয় মজুরি ও উৎপাদনশীলতা কমিশন-২০১৫ এর সুপারিশ বাস্তবায়ন, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্র্যাচুইটি ও মৃত শ্রমিকের বীমার বকেয়া টাকা প্রদান, টার্মিনেশন ও বরখাস্ত শ্রমিকদের কাজে পুনর্বহাল, শ্রমিক-কর্মচারীদের নিয়োগ ও স্থায়ীকরণ, মৌসুমের সময় পাট কিনতে অর্থ বরাদ্দ এবং উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মিলগুলোকে পর্যায়ক্রমে বিএমআরই করা।

পাঠকের মন্তব্য