চাঁদের জন্যই প্রাণ এসেছে পৃথিবীতে, দাবি বিজ্ঞানীদের 

চাঁদের জন্যই প্রাণ এসেছে পৃথিবীতে, দাবি বিজ্ঞানীদের 

চাঁদের জন্যই প্রাণ এসেছে পৃথিবীতে, দাবি বিজ্ঞানীদের 

পৃথিবীকে প্রাণীর বাসযোগ্য করার ক্ষেত্রে এর একমাত্র উপগ্রহ চাঁদের বিশাল অবদান রয়েছে বলে দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি এক গবেষণায় বলা হয়েছে, চাঁদের গঠনের ফলেই পৃথিবীতে পানির আগমন ঘটে।

এই পানিই হচ্ছে জীবের টিকে থাকার প্রথম ও প্রধান উপাদান। বলা বাহুল্য, চাঁদকে মানুষের বসবাসযোগ্য হিসেবে গড়ে তুলতে সেখানে পানির উপাদান খুঁজে বেড়াচ্ছে মহাকাশ গবেষণা সংস্থাগুলো।

নেচার অ্যাস্ট্রোনমির সর্বশেষ সংস্করণে প্রকাশিত এক গবেষণাপত্রে জার্মানির মুনস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রহ বিশেষজ্ঞরা এ অভিমত তুলে ধরেন। তারা বলছেন, আজ থেকে প্রায় ৪৪০ কোটি বছর আগে চাঁদ গঠিত হয়। ঠিক ওই সময়েই পৃথিবীতে পানির উদ্ভব।

মূলত থেইয়া নামক একটি গ্রহ বা গ্রহাণুর (আয়তনে মঙ্গলগ্রহের সমান) সঙ্গে ঘর্ষণের ফলে চাঁদের সৃষ্টি হয়। ওই ঘর্ষণের ফলেই পৃথিবীর কাছে সোলার পদ্ধতি গড়ে ওঠে ও পানির সৃষ্টি হয়। বিজ্ঞানীরা বলছেন, মহাজাগতিক বিস্ফোরণের ফলে সৃষ্ট পৃথিবী প্রথম দিকে খুবই উত্তপ্ত ছিল। থেইয়ার সঙ্গে ওই ঘর্ষণের ফলে চাঁদের সৃষ্টি না হলে পৃথিবী ঠাণ্ডা হতো না।

মুনস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্লানেটোলজি বিভাগের অধ্যাপক থরস্টেন ক্লেইন বলছেন, আমাদের এই আবিষ্কার প্রথমবারের মতো চাঁদ গঠনের সঙ্গে পৃথিবীতে পানির উদ্ভবের সম্পর্কের বিষয়টি তুলে ধরল। বিষয়টি স্পষ্ট, চাঁদ না থাকলে পৃথিবীতে প্রাণের অস্তিত্ব থাকত না।

পাঠকের মন্তব্য