ঠাকুরদা মারা যাওয়ার পর দিনই পার্লারে কাজলের মেয়ে

ঠাকুরদা মারা যাওয়ার পর দিনই পার্লারে কাজলের মেয়ে

ঠাকুরদা মারা যাওয়ার পর দিনই পার্লারে কাজলের মেয়ে

সোমবারই মারা গিয়েছেন ঠাকুরদা বীরু দেবগণ। গোটা বলিউডে নেমে এসেছিল শোকের ছায়া। অমিতাভ বচ্চন, ঐশ্বর্য রাই বচ্চন, সইফ আলি খান, সুনীল শেঠি থেকে রানী মুখোপাধ্যায় দেবগণ পরিবারের পাশে থাকতে সেদিন পৌছে গিয়েছিলেন বলিউড অনেক সেলেবরাই। 

শেষকৃত্যের সময়ও বীরু দেবগণের বউমা তথা অভিনেত্রী কাজল বন্ধু ঐশ্বর্যের কাঁধে মাথা রেখে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন। মঙ্গলবারও বলিউড ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই দেবগণদের বাসভবনে পৌঁছেছিলেন শোকজ্ঞাপন করতে। আর এহেন শোকের পরিস্থিতিতেই কাজল-কন্যা নাইশাকে মঙ্গলবার দেখা গেল পার্লারের বাইরে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিতে। ক্যামেরায় সেই মুহূর্তবন্দি করার সুযোগ বিন্দুমাত্র হাতছাড়া করেননি পাপারাজিরা। আর সেই নেটদুনিয়ায় সেই ছবি ভাইরাল হতেই ট্রোলের শিকার হলেন নাইশা দেবগণ।

পান থেকে চুন খসলেই নেটদুনিয়ায় ট্রোল করাটা যেন ট্রেন্ড হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর তারকাদের মতোই তাঁদের সন্তানরাও সবসময়েই প্রচারের আলোতেই থাকেন। তাঁরা কী খাচ্ছেন, কী পরছেন থেকে কোথায় যাচ্ছেন… সবেতেই পাপারাজিদের লেন্সের তাক তাঁদের দিকে। তাই আলোচনাই হোক আর সমালোচনা, জল্পনার কেন্দ্রবিন্দুতে সবসময়েই রয়েছেন সুহানা, আব্রাম, সারা, ইব্রাহিম, নাইশা, তৈমুরদের মতো সেলেব-কিডরা। তাই, ঠাকুরদা মারা যাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই যে শোক ভুলে নাইশা পার্লারে গিয়ে সাজতে বসেছেন, এহেন কর্মকাণ্ড নজর কেড়েছে নেটিজেনদের, এমনটাই মনে করছে অনেকে।

বাদামী কার্গো প্যান্ট, অফ-শোল্ডার সাদা ক্রপ টপ, খোলা চুল… এমনভাবেই মঙ্গলবার বিকেলে পার্লারের সামনে হাসিমুখে বন্ধুদের সঙ্গে গল্প করতে দেখা গিয়েছে অজয় দেবগণ এবং কাজলের একমাত্র মেয়ে নাইশাকে। “মাথা খারাপ হয়েছে নাকি মেয়ের! গতকালই দাদু মারা গিয়েছেন আর আজই পার্লারে চলে এসেছে,” এমন মন্তব্যবাণই নেটিজেনরা ছুঁড়ে দিয়েছেন নাইশার দিকে। কেউ কেউ আবার নাইশার পক্ষ নিয়ে বলেছেন, “ওর মনে কতটা কষ্ট রয়েছে বা ও কী পরিস্থিতিতে রয়েছে, তা না জেনেই সমালোচনা করা বন্ধ করুন।”

পাঠকের মন্তব্য