রাহুল নয়, কংগ্রেসের নেতৃত্ব দেবেন আবারও সোনিয়া গান্ধী

রাহুল নয়, কংগ্রেসের নেতৃত্ব দেবেন আবারও সোনিয়া গান্ধী

রাহুল নয়, কংগ্রেসের নেতৃত্ব দেবেন আবারও সোনিয়া গান্ধী

ফের কংগ্রেস সংসদীয় দলের নেত্রী নির্বাচিত হলেন সোনিয়া গান্ধী। শনিবার সংসদে নবনির্বাচিত কংগ্রেস সাংসদদের নিয়ে বৈঠক করে কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্ব। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যসভার সাংসদরাও। সর্বসম্মতিক্রমে সোনিয়াকেই ফের কংগ্রেস সংসদীয় দলের নেত্রী নির্বাচিত করেন সাংসদরা। তবে, লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা কে হবে তা নিয়ে এখনও জল্পনা চলছে।

লোকসভায় দলের হতশ্রী ফলাফলের পর একপ্রকার বিমর্ষ কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্ব। ইতিমধ্যেই দলের সভাপতি পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন রাহুল। ইস্তফার সিদ্ধান্তে এখনও অনড় কংগ্রেস সভাপতি। তাই অনেকে মনে করছিলেন, রাহুল যদি সভাপতি পদ থেকে সরে দাঁড়ান, সেক্ষেত্রে তাঁকে সংসদীয় দলের নেতা করা হতে পারে। তবে, এদিন তা না হওয়ায় রাজনৈতিক মহলের ধারণা, রাহুলকে একপ্রকার জোর করেই দলের সভাপতি পদে বহাল রাখতে চাইছে কংগ্রেস নেতৃত্ব। সংসদীয় দলের বৈঠকে রাহুলের বক্তব্যেও ইঙ্গিত মিলেছে, তিনি সভাপতি পদে বহাল থাকছেন।

কংগ্রেস সভাপতি এদিন দলীয় বৈঠকে বলেন, 'লোকসভায় আমাদের একত্রিত হয়ে লড়তে হবে। আরও বেশি আগ্রাসী হতে হবে। আমরা ৫২ জনই বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করতে যথেষ্ট। কারণ, আমরা লড়ছি সংবিধানের জন্য। বিজেপিকে এক মুহূর্তও স্বস্তি দেব না আমরা, ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে লড়াই করব। ওরা ক্রোধ আর ঘৃণা ছড়াবে, আপনারা সেগুলো উপভোগ করবেন।' পরে টুইট করেও দলের কর্মীদের একই বার্তা দেন রাহুল। এদিন, কংগ্রেস সাংসদদের সামনে রাহুলের প্রশংসা করেন মা সোনিয়াও। তিনি বলেন, 'লোকসভায় যেভাবে দিনরাত এক করে রাহুল পরিশ্রম করেছে, তা নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। রাহুল ইস্তফা দিতে চেয়েছে। কিন্তু, বিভিন্ন নেতার কাছ থেকে আবেগঘন চিঠি আসছে ওর ইস্তফা প্রত্যাহার করার জন্য। আমার আশা দ্রুত কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।'

বৈঠক শেষ কংগ্রেসের নেতারা অনেকটাই নিশ্চিত যে, রাহুলই সভাপতি পদে থাকছেন। যদিও, কংগ্রেসের তরফে সরকারিভাবে কোনও ঘোষণা করা হয়নি। অন্যদিকে, লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা কে হবেন তা নিয়ে জল্পনা এখনও চলছে। উঠে আসছে শশী থারুর, মণীশ তিওয়ারির মতো নেতাদের নাম। উল্লেখ্য, মাত্র ৫২ জন সাংসদ থাকায় লোকসভায় এককভাবে প্রধান বিরোধীদলের পদটি দাবি করতে পারবে না কংগ্রেস। সেক্ষেত্রেও তাদের জোটসঙ্গীদের সাহায্য নিতে হবে।

পাঠকের মন্তব্য