পাক দলের সঙ্গে পার্টি! সমর্থকদের রোষের মুখে সানিয়া মির্জা

সানিয়া মির্জা

সানিয়া মির্জা

ভারত-পাক ক্রিকেট যুদ্ধে ‘মাতাহারি’ তকমা মিলল ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জার। পাক সমর্থকদের অভিযোগ, খেলার আগে ক্রিকেটারদের অধ্যাবসয়, মনঃসংযোগ, নিয়মানুবর্তিতা নষ্ট করতেই ডিনারে গিয়েছিলেন ভারতীয় ‘লাস্যময়ী’। তার ফলেই ম্যাঞ্চেস্টারের মাঠে ভারতীয় ক্রিকেট দলের কাছে হেরে গিয়েছে পাক ক্রিকেট দল।

শনিবার স্থানীয় সময় রাত দু’টো। ম্যাঞ্চেস্টারের উইনস্লো রোডের শিশা ক্যাফেতে দেখা গেল সস্ত্রীক শোয়েব মালিককে। শুধু তিনি একা নন। ডিনারে হাজির ওয়াহাব রিয়াজ, ইমাম-উল-হক-সহ একাধিক পাক ক্রিকেটার। খানা-পিনায় মশগুল পাক ক্রিকেটারদের মাঝে মধ্যমণি হয়ে রয়েছেন ভারতীয় টেনিস তারকা। গোটা ঘটনা ধরা পড়েছে এক পাকভক্তের ক্যামেরায়। ভিডিওটি ভাইরাল হতেই পাকিস্তানের মাটিতে এমনকী বিদেশেও সমালোচনার ঝড় উঠেছে। পাক সমর্থকদের অভিযোগ, বিশ্বকাপের ময়দানে নামার ১২ ঘণ্টা আগে ফিটনেসের তোয়াক্কা না করে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশের প্রতিনিধির সঙ্গে মৌজ মস্তিতে মেতেছেন খেলোয়াড়রা। আর তাই এই হার। তবে পাক শিবিরের তরফে জানানো হয়েছে, ওখানে গ্লাসে কোনও মাদক পানীয় ছিল না, ছিল জল। আর শোয়েবও রাত সাড়ে দশটার মধ্যে হোটেলে ফিরে এসেছিলেন।

আসলে তাঁকে অপবাদ দিতেই এসব ছড়ানো হয়েছে। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, শুধু স্বামী শোয়েব নন, বহু পুরুষের ‘হার্ট থ্রব’ সানিয়ার মাদকতায় মত্ত বাকি পাক খেলোয়াড়রাও। শিশা ক্যাফের আলো-আঁধারিতে ধূমপান করতে দেখা গিয়েছে শোয়েবকে। আর সেই ধোঁয়ায় ঘোলাটে ক্যাফের টেবিলে বসে পিৎজা, বার্গারের মতো জাঙ্ক ফুডে কামড় দিচ্ছেন অন্য খেলোয়াড়রা। প্রশ্ন উঠেছে, কেন ম্যাচের আগের রাতে পার্টিতে গেলেন পাক ক্রিকেটাররা। কেনই বা বিশ্রাম ও ফিটনেসের তোয়াক্কা না করে জাঙ্কফুড ধূমপানে মাতেন তাঁরা। প্রশ্ন উঠেছে সানিয়ার ভূমিকা নিয়েও। স্বামী-সঙ্গ, নাকি তাঁর মাদকতায় পাক ক্রিকেটারদের বুঁদ করতেই শিশা ক্যাফেতে 
গিয়েছিলেন সানিয়া। প্রশ্নটা যতই ব্যক্তিগত হোক, আপাতত পাক সমর্থকদের মনে এমনই সন্দেহের মেঘ জমাট বেঁধে রয়েছে। তাঁদের অভিযোগ, ক্রিকেটারদের পিছনে মোটা টাকা খরচ করা হলেও দেশের সম্মান নিয়ে তাঁরা ভাবিত নন। বিশ্বকাপের মতো খেলায় যেখানে খেলোয়াড়দের ফিটনেস সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, সেখানে তা নিয়ে ক্রিকেটাররা উদাসীন। এর আগে ছ’বারই বিশ্বকাপের ময়দানে ভারতের বিরুদ্ধে পাক দলের হার হয়েছে। তারপরেও কেন নিয়মানুবর্তিতার তোয়াক্কা না করে এত রাত পর্যন্ত হুল্লোড়ে মাতলেন ওয়াহাব রিয়াজ, ইমাম-উল-হকরা।

এদিকে, রবিবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ম্যাচ দেখে ফেরার সময় পাক সমর্থকদের কটাক্ষের মুখে পড়তে হয় সইফ আলি খানকে। বলিউড অভিনেতার এজেন্ড বিনোদ এবং ফ্যানটম ছবির উল্লেখ করে তাঁকে নিয়ে মশকরা করা হয়। এমনকী তাঁকে ভারতীয় দলের টুয়েলভথ ম্যানও বলা হয়। যদিও পাকভক্তদের সেসব সমালোচনায় কান দেননি পতৌদিপুত্র। 

পাঠকের মন্তব্য