চলতি বছরই শুরু হবে পাতালরেল প্রকল্পের কাজ

 ওবায়দুল কাদের

ওবায়দুল কাদের

চলতি বছরই শুরু হবে পাতালরেল প্রকল্পের কাজ৷ মঙ্গলবার এমনই জানালেন সড়ক-পরিবহণ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি জানান, পাঁচটি ধাপে দেশে পাতালরেল প্রকল্পের কাজ হবে। এমআরটি লাইন ১, এমআরটি লাইন ২, এমআরটি লাইন ৩, এমআরটি লাইন ৪ ও এমআরটি লাইন ৫। ২০৩০-এর মধ্যে সবকটি লাইনের কাজ শেষ হবে। এদিন ঢাকার কাওলায় ‘ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের’ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শনে যান ওবায়দুল কাদের৷ সেখানেই একথা জানান তিনি৷

তিনি আরও বলেন, এমআরটি লাইন ১ ও ৫–এর কাজ আগে হবে। এমআরটি লাইন ১–এ আছে সাড়ে ১৬ কিলোমিটার, আর ৫–এ আছে সাড়ে ১৩ কিলোমিটার পথ। তারপর অবে অন্যান্য লাইনের কাজ৷ এমনকী তিনি জানান, ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেস প্রকল্পের কাজটি পিপিপি মডেলে চলছে। চিনের এক্সিম ব্যাংক এই প্রজেক্টে বিনিয়োগ করছে। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, কুড়িল, বনানী, মহাখালী, তেজগাঁও, মগবাজার, কমলাপুর, সায়েদাবাদ ও যাত্রাবাড়ী, ঢাকা-চট্টগ্রাম সংযোগ হাইওয়ের দৈর্ঘ্য হচ্ছে প্রায় ২০ কিলোমিটার৷ তিনি জানান, প্রকল্পটি তিনটি ধাপে সম্পন্ন হবে। প্রথম ধাপে এয়ারপোর্ট থেকে বনানী, দ্বিতীয় ধাপে বনানী থেকে মগবাজার ও শেষ ধাপে মগবাজার থেকে কুতুবখালী পর্যন্ত হবে রাস্তাটি।

সম্প্রতি সরকারের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে হস্তক্ষেপের অভিযোগ উঠেছে৷ এদিন এই অভিযোগের বিষয়েও মুখ খোলেন ওবায়দুল কাদের৷ বলেন, আমরা সব সময়ই বলে আসছি আদালত স্বাধীনভাবে বিচার করছে। শেখ হাসিনার সরকার এখনও পর্যন্ত আদালতের কার্যক্রমে কোনও প্রকার হস্তক্ষেপ করেনি। খালেদা জিয়ার মামলাতেও সরকার হস্তক্ষেপ করেনি।

পাঠকের মন্তব্য