চৈতী কম্পোজিটের বিরুদ্ধে নারী শ্রমিককে বেতনবিহীন বরখাস্ত 

 নারী শ্রমিককে বেতনবিহীন বরখাস্ত

নারী শ্রমিককে বেতনবিহীন বরখাস্ত

নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে অবস্থিত চৈতী কম্পোজিট লিঃ নামে একটি কারখানার কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে এক নারী শ্রমিককে চাকুরী থেকে বরখাস্তসহ তার সমুদয় পাওনা বেতন না দিয়ে বের করে দেয়ার গুরুত্র অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভূক্তভোগী ওই নারী শ্রমিক সোমবার রাতে সোনারগাঁ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন।

থানায় সূত্র জানায়, উপজেলা সোনারগাঁয়ের ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে অবস্থিত চৈতী কম্পোজিট লিঃ নামে একটি কারখানার এডমিনের জি.এম মিজানুর রহমান গত রমজান মাসের ২১ তারিখ মঙ্গলবার ১৫ রোজায় নুরভানু নামে কারখানার ৩য় তলায় ফিনিশিং শাখার এক নারীকে জোরপূর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে অনৈতিকভাবে কারখানা থেকে বের করে দেন। ভূক্তভোগী ঐ নারী সেই কারখানায় ফিনিশিং বিভাগে ক্লিনার পদে দীর্ঘদিন যাবত কর্মরত ছিলেন। তার আই ডি কার্ড নং- ২৪১৩। তিনি  আরও জানান, কারখানার এডমিনের জি.এম মিজানুর রহমান রমজান মাসের ১৫ রোজায় হঠাৎ করে আমাকে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে ও বাংলাদেশেরে শ্রম আইন অনুযায়ী আমার বেতনের কোন টাকা না দিয়ে আমাকে অনৈতিকভাবে সেখান থেকে বের করে দেয়। 

এখনও পর্যন্ত তিনি আমাকে আমার চাকুরী ফিরিয়ে দেননি এবং আমার সমুদয় পাওনা বেতনের টাকাও পরিশোধ করেন না। এমতাবস্থায় আমার কোন চাকুরী না থাকায় আমি মানসিক দিক থেকে অনেকটা বিপর্যস্ত ও পারিবারিক সমস্যায় দিন কাটাচ্ছি।

এবিষয়ে জানতে চৈতী কম্পোজিটের জেনারেল ম্যানেজার (জি.এম) মিজানুর রহমানের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, ভুক্তভোগী  এ বিষয়ে একটি সাধারন ডায়েরি করেন। 

পাঠকের মন্তব্য